BREAKING NEWS

১৬ মাঘ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ৩১ জানুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

CAA বিরোধী আন্দোলনে কংগ্রেসের প্রশংসা, বিজেপিকে টুইট খোঁচা পিকের

Published by: Paramita Paul |    Posted: January 12, 2020 4:37 pm|    Updated: January 12, 2020 4:37 pm

After rebuke over CAA, PK has ‘special thanks' for Congress.

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কংগ্রেসের প্রশংসায় পঞ্চমুখ প্রশান্ত কিশোর। ইতিপূর্বে CAA বিরোধী আন্দোলনে কংগ্রেসের ভূমিকার তীব্র সমালোচনা করেছিলেন জেডিইউয়ের সহ সভাপতি। এবার নিজের অবস্থান থেকে ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে রাহুল গান্ধি ও প্রিয়াংকা গান্ধির ভূয়সী প্রশংসা করলেন তিনি। তাঁর কথায়, এই আন্দোলনে অগ্রণী ভূমিকা নিয়েছেন তাঁরা। হঠাৎ প্রশান্ত কিশোরের এই বদল রাজনৈতিকভাবে তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন বা CAA নিয়ে দেশজুড়ে আন্দোলন চলছে। সেই আন্দোলনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছে একাধিক রাজনৈতিক দল। কিন্তু সেই কংগ্রেসের ভূমিকা নি্য়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন পিকে। এবার সেই অবস্থান থেকে সরে এলেন তিনি। নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে তিনি লেখেন, “দেশজুড়ে CAA, NRC, NPR’র বিরোধী আন্দোলনে কংগ্রেসের ভূমিকা প্রশংসনীয়। বিশেষ করে রাহুল ও প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে আমি ধন্যবাদ জানাতে চাই। তাঁরা অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন।” তাঁর কথায়, বি্হারে ঘরে-ঘরে গিয়ে NRC-এর বিরোধিতা করেছে কংগ্রেস। এমনকী বিহারে CAA, NRC কার্যকর হবে না বলেও মানুষকে আশ্বস্ত করেছেন কংগ্রেস কর্মীরা। এজন্য তাঁদেরও ধন্যবাদ জানিয়েছেন পিকে। ইতিপূর্বে বারবার কংগ্রেসকে এই ইস্যুতে আক্রমণ করেছিলেন পিকে। অভিযোগ করেছিলেন, CAA বিরোধিতায় কংগ্রেস নিজেদেরে অবস্থান স্পষ্ট করছে না। আবার কখনও বলেছেন, কংগ্রেসের বলিষ্ঠ আন্দোলন করা উচিত। এমন অবস্থায় কংগ্রেসের প্রশংসা যে রাজনৈতিক মহলে চর্চার বিষয় হবে, তা বলাই বাহুল্য।

[আরও পড়ুন : ভারতীয় মালবাহকের মুণ্ডচ্ছেদে অভিযুক্ত পাক সেনা, বদলার হুমকি নারাভানের]

CAA, NRC নিয়ে নিজের দল JDU যাতে স্পষ্ট অবস্থান নেয়, তার জন্য বারবার সচেষ্ট হয়েছেন প্রশান্ত কিশোর। কিন্তু সংসদে এই আইনের সপক্ষেই ভোট দিয়েছিলেন দলীয় সাংসদরা। পরে অবশ্য JDU প্রধান নীতীশ কুমার জানিয়েও দেন বিহারে CAA কার্যকর হবে না। কিন্তু এরপরই তাঁর ডেপুটি সুশীল মোদি জানিয়ে দেন NPR-এর কাজ চালু হবে। সুশীল মোদি জানিয়েছেন, “দেশজুড়ে এনপিআর-এর প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে ১ এপ্রিল থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। বিহারে সেটি হবে ১৫ মে থেকে ২৮ মে-এর মধ্যে। এনআরসি ও এনপিআর দু’টি আলাদা বিষয়। আর যে যে রাজ্য বলছে যে তারা সিএএ লাগু করবে না, আমি তাদের উদ্দেশে বলতে চাই, যে তাদের এই আইনটি লাগু না করার এক্তিয়ার নেই।”    

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে