BREAKING NEWS

১০  আশ্বিন  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

তেজ বাহাদুরের পর বঞ্চনার অভিযোগে সরব আরও এক জওয়ান

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 12, 2017 11:03 am|    Updated: January 12, 2017 11:07 am

After Tej Bahadur, CRPF soldier Jeet Singh cries discrimination

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিএসএফ জওয়ান তেজ বাহাদুরে ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর ফের প্রকাশ্যে এল আরও এক জওয়ানের ভিডিও। এবার সিআরপিএফ জওয়ান জিত সিং সেনাবাহিনীর বড়কর্তাদের বিরুদ্ধে পেনশন নিয়ে অনিয়মের অভিযোগ তুললেন। প্রায় ২ মিনিট ৫১ সেকেন্ডের ওই ভিডিও-য় জিত সিং দাবি করেছেন, সেনাবাহিনীর নিয়মিত সদস্যরা পেনশন-সহ যে যে সুবিধা পান, সিআরপিএফ জওয়ানরা তার ছিঁটেফোটাও পান না। তাঁর এই ভিডিওটি ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়ে গিয়েছে।

(বিএসএফ জওয়ান তেজ বাহাদুরের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট কে চালায় জানেন?)

জিত নিজে ২০১২ সালে সিআরপিএফে যোগ দিয়েছেন বলে দাবি করেছেন। তাঁর অভিযোগ, “আমাদের পেনশন নেই। ভারতীয় সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা পেনশন পান, ক্যান্টিনের সুবিধা পান, মেডিক্যাল বেনিফিট পান, অবসরের পরও বহু সুযোগ সুবিধা পান। কিন্তু সিআরপিএফ জওয়ানরা অবসরের পর কেন পেনশন বা কেন্দ্রীয় চাকরি পাবেন না?” জিত সিং একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, তাঁর অভিযোগ সিআরপিএফের বিরুদ্ধে নয়, তাঁর অভিযোগ কেন্দ্রের বিরুদ্ধে।

(দুর্নীতির অভিযোগ জানানো জওয়ান মদ্যপ, দাবি বিএসএফের)

অন্যদিকে, খাবারের মান নিয়ে অভিযোগ করার ‘শাস্তি’ পেলেন বিএসএফ জওয়ান তেজ বাহাদুর যাদব৷ সীমান্তরক্ষীর পদ থেকে সরাসরি কলের মিস্ত্রির পদে সরিয়ে দেওয়া হল তাঁকে৷ কেড়ে নেওয়া হয়েছে তাঁর সার্ভিস রাইফেলটিও৷ নিয়ন্ত্রণরেখার কাছে জওয়ানদের অখাদ্য খাবার খেতে দেওয়া ও উচ্চপদস্হ কর্তাদের বিরুদ্ধে চুরির অভিযোগ তুলে দিন কয়েক আগে ফেসবুকে একাধিক ভিডিও পোস্ট করেছিলেন ২৯ ব্যাটালিয়নের এই জওয়ান৷ এরপরই গোটা ঘটনার পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট তলব করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং৷ কিন্তু সেই রিপোর্ট পেশের আগেই তেজবাহাদুরকে জওয়ান থেকে কলমিস্ত্রির কাজে বদলি করা হল৷ যদিও গোটা ঘটনার তদন্ত করছে বিএসএফ৷ সার্ভিস রাইফেল কেড়ে নেওয়ার প্রসঙ্গে বিএসএফের বক্তব্য, “সার্ভিস রাইফেল সঙ্গে নিয়ে ভিডিও পোস্ট করা ঠিক হয়নি৷ তাই কনস্টেবল তেজ বাহাদুরের সার্ভিস রাইফেল কেড়ে নেওয়া হয়েছে৷”

ঘটনাচক্রে, তেজ বাহাদুরের করা অভিযোগের বিষয়টি নিয়ে বিতর্ক বাড়িয়েছে সীমান্ত এলাকায় বেশ কয়েকজন গ্রামবাসীর দাবি৷ শ্রীনগরের কাছে হুমহুমায় ব্যবসায়ীরা দাবি করেছেন, খাবার তো বটেই, পেট্রোল-ডিজেলও বাজারদরের থেকে কম দামে সেনা আধিকারিকদের কাছ থেকে কেনেন তাঁরা৷ অথচ নিয়ম হল, সেনাদের কাছে যে রসদ-দ্রব্য পাঠানো হয় তা বাজারে বিক্রি করা যায় না৷

(উপরওয়ালাদের দুর্নীতিতে পেট ভরে খাবারই জোটে না জওয়ানদের)

এদিকে, তেজ বাহাদুরের ‘ভিডিও বিতর্ক’-র জের কাটার আগেই আরও এক বিএসএফ জওয়ানের একই ধরনের অভিযোগ প্রকাশ্যে এসেছে৷ এবার সীমান্তে নিযুক্ত জওয়ানদের দুঃখদুর্দশার কথা জানিয়ে ওই জওয়ান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের কাছে চিঠি লিখেছেন৷ নয় পাতার চিঠিতে জওয়ান অভিযোগ করেছেন, খাদ্য, পোশাক, মোতায়েন, কাজের সময়, অস্ত্র সরবরাহ নিয়ে৷ এই চিঠির কথা সংবাদমাধ্যমে আসতেই কঠোর সিদ্ধান্ত কেন্দ্রীয় সরকারের৷

(স্কুলে নবি দিবস পালনকে ঘিরে উত্তেজনা, হামলা বহিরাগতদের)

পাশাপাশি, বুধবার কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে এক নির্দেশিকা জারি করে জওয়ানদের কোনও ছবি, ভিডিও অনলাইনে পোস্ট করার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে৷ কেন্দ্রের তরফে নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, যেসব পোস্ট এতদিন সেনা জওয়ানরা করেছেন তা সবই মুছে ফেলতে হবে৷ যদি ভবিষ্যতে কেউ কোনও ছবি-লেখা-ভিডিও পোস্ট করতে চান, তাহলে তাঁকে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে অনুমতি নিতে হবে৷ কী কী পোস্ট করতে চান, তা-ও বিস্তারিত জানাতে হবে৷ বুধবার রাজনাথ সিংকে লেখা চিঠিতে ওই জওয়ান অভিযোগ করেছেন, খাতায় কলমে তাঁদের কাজের সময় আট ঘণ্টা৷ কিন্তু, বেশিরভাগ সময়েই ২০ ঘণ্টা ধরে কাজ করতে হয়৷ খাদ্যের জন্য যে অর্থ বরাদ্দ হয়, তা খাদ্যের জন্য নয়, অন্যান্য কাজকর্মের জন্য ব্যয় করা হয়৷ জওয়ানের অভিযোগ, কেন্দ্রীয় সশস্ত্র বাহিনীর কোনও নিয়মই মেনে চলা হয় না৷

দেখুন সেই ভিডিও:

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে