BREAKING NEWS

১৬ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  শনিবার ৩ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

হিন্দু নন জৈন অমিত শাহ, সোমনাথ মন্দির বিতর্কে খোঁচা রাজ বব্বরের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: December 1, 2017 5:43 am|    Updated: September 21, 2019 3:41 pm

Amit Shah calls himself a Hindu, but he is a Jain: Raj Babbar

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কংগ্রেসের হবু সভাপতি রাহুল গান্ধী হিন্দু না অ-হিন্দু, সেই বিতর্কে এবার নয়া সংযোজন রাজ বব্বর। বিগদ্ধ কংগ্রেস নেতার দাবি, বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ নাকি জৈন। কিন্তু তিনি কেন নিজেকে হিন্দু বলে দাবি করেন তা নিয়ে সওয়াল করেছেন অভিনেতা-সাংসদ। একইসঙ্গে গান্ধী পরিবারের হয়ে ব্যাট চালিয়ে বলেছেন, রাহুলদের পরিবারের শিব ভক্তি কারও অজানা নয়। দীর্ঘদিনের শিব উপাসক গান্ধী পরিবার। তার প্রমাণ ইন্দিরা গান্ধী রুদ্রাক্ষের মালা পরতেন। শিব উপাসকদের যা অন্যতম চিহ্ন।

[সোমনাথ মন্দির বিতর্কে মুখ খুলে নিজেকে ‘শিবভক্ত’ বললেন রাহুল]

সোমনাথ মন্দিরে রাহুল গান্ধীর প্রবেশ নিয়ে বিতর্ক উসকে দিয়েছে বিজেপি। সোমনাথ মন্দিরে কোনও অ-হিন্দু প্রবেশ করলে নাম নথিভুক্ত করতে হয়। বিধানসভা ভোটের আগে ঈশ্বরের আশীর্বাদ পেতে রাহুলও পৌঁছে যান ওই মন্দিরে। দেখা যায়, মন্দিরের রেজিস্টারে কংগ্রেসের এক কর্মী সই করেছেন। সেই সইয়ের উপরে রাহুল গান্ধী ও আহমেদ প্যাটেলের নামও নথিভুক্ত রয়েছে। ঝাঁপিয়ে পড়ে বিজেপি শিবির। রাহুল গান্ধী যে হিন্দু নন প্রমাণ করতে নেতা-কর্মীদের ময়দানে নামিয়ে দেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ।। বিজেপি প্রশ্ন তোলে, হিন্দুই যখন নন, তা হলে ভোটের সময় মন্দিরে-মন্দিরে ঘোরার ‘নাটক’ কেন করছেন রাহুল?

[মোদি হিন্দুই নয়, সোমনাথ বিতর্কে বিস্ফোরক দাবি সিব্বলের]

সেই কটাক্ষের জবাবে পালটা দেন রাহুলও। বলেন, নিজের ধর্মবিশ্বাসকে তিনি রাজনীতিতে টেনে আনার পক্ষপাতী নন। তাঁর দিদিমা ইন্দিরা গান্ধী শিবের একনিষ্ঠ ভক্ত ছিলেন। সে কথা যেন মোদি ভুলে না যান। একইসঙ্গে বৃহস্পতিবার প্রবীণ কংগ্রেস নেতা কপিল সিব্বল রাহুলের পাশে দাঁড়িয়ে আক্রমণ করেন মোদিকে। বলেন, হিন্দু ধর্মের সঙ্গে হিন্দুত্ববাদের কোনও যোগ নেই। মোদি আসলে হিন্দুই নন, বিস্ফোরক মন্তব্য করেন সিব্বল। শুক্রবার সিব্বলেরই মন্তব্যের রেশ টেনে রাজ বব্বর অমিত শাহকে আক্রমণ করেন। গুজরাট ভোটের আগে বিজেপি-কংগ্রেস যুযুধান দুই শিবিরের রাজনীতির বিষয় এখন কে কোন ধর্মে বিশ্বাসী। সেক্ষেত্রে পশ্চিম ভারতের এই রাজ্যের মানুষ কোন মাপকাঠিতে শাসকদল বেছে নেবে তা নিয়ে সন্দিহান দেশের ওয়াকিবহালমহল।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে