১৪  আশ্বিন  ১৪২৯  রবিবার ২ অক্টোবর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘কাদের জন্য রামলালাকে তাঁবুতে থাকতে হয়েছে?’ রাম মন্দির ইস্যুতে অখিলেশকে খোঁচা শাহর

Published by: Kishore Ghosh |    Posted: January 1, 2022 12:42 pm|    Updated: January 1, 2022 12:43 pm

Amit Shah to Akhilesh Yadav In Ayodhya, Why Lord Ram Have To Stay In Tent | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: উত্তরপ্রদেশের আসন্ন বিধানসভা (UP Assembly Election) নির্বাচনে ফের উঠে এল রাম মন্দির (Ram Mandir) ইস্যু। সৌজন্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (Union Home Minister Amit Shah)। এদিন অযোধ্যার (Ayodhya) মানুষকে অখিলেশ যাদবের (Akhilesh Yadav) সমাজবাদী পার্টিকে যোগ্য জবাব দেওয়ার আহ্বান জানান অমিত শাহ। বলেন, “কারা করসেবকদের উপর গুলি চালিয়ে ছিল, সেটা ভুলবেন না। কাদের জন্য রামলালাকে এতদিন তাঁবুতে থাকতে হয়েছে?”

শুক্রবার অযোধ্যায় নির্মীয়মাণ রাম মন্দির পরিদর্শনের পর ‘জন বিশ্বাস যাত্রা’র জনসভায় যোগ দেন শাহ। সভায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অভিযোগ করেন, সমাজবাদী পার্টি, বহুজন সমাজ পার্টি ও কংগ্রেস সরকার অযোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণে বারবার বাধা দিয়েছে। সমাজবাদী পার্টি ক্ষমতায় থাকাকালীন ১৯৯০ সালে করসেবকদের উপর গুলি চালানো হয়েছিল। শাহ বলেন, “আমাদের নিশ্চয়ই মনে আছে, কীভাবে করসেবকদের উপর গুলি চলেছিল, তাঁদের মৃতদেহ সরযু নদীর জলে ভাসিয়ে দেওয়া হয়েছিল।”

[আরও পড়ুন: হাতে হনুমানের ছবি, গদা! উত্তরপ্রদেশে ভোটের মুখে কট্টর হিন্দু অবতারে অখিলেশ]

অমিত শাহর আরও অভিযোগ, উত্তরপ্রদেশে সমাজবাদি পার্টি ও বিএসপি ক্ষমতায় থাকাকালীন মানুষের বিশ্বাসের উপর বারবার আঘাত করা হয়েছে। বলেন, “আজকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ সেই বিশ্বাসকে ফের গৌরবময় করে তুলেছেন।” এদিন অখিলেশ যাদবকে সরাসরি কটাক্ষ করে শাহ বলেন, “এখানে আখিলেশজি যখন ভোট চাইতে আসবেন, তখন প্রশ্ন তাঁকে করবেন, করসেবকরা কী দোষ করেছিল? কেন তাঁর সরকার করসেবকদের উপর নির্বিচারে গুলি চালিয়েছিল? ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার নিয়ে আপনার আপত্তিটা কোথায়?”

[আরও পড়ুন: কলকাতা পুরভোটের ফলপ্রকাশের পরদিনই দিল্লিতে রাজ্যপাল, বৈঠক অমিত শাহের সঙ্গে]

৩৭০ ধারা প্রত্যাহার নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেও খোঁচা দেন অমিত শাহ। বলেন, “সমাজবাদী পার্টি, বিএসপি, কংগ্রেস আর তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) জোট বেঁধে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার নিয়ে আপত্তি করছে।” তবে আগাগোড়া গেরুয়া রাজনীতিই ছিল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ভাষণের ফোরফ্রন্টে। শাহ হুঙ্কার দেন, “কেউ যদি রাম মন্দির নির্মাণ বন্ধ করতে চান, তাহলে করে দেখান। কারও মন্দির নির্মাণ বন্ধ করার ক্ষমতা নেই। কয়েক মাসের মধ্যে বিরাট মন্দির নির্মাণ সম্পূর্ণ হবে ভগবান রামে জন্মভূমিতেই।”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে