১২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৯ নভেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বাড়ি ফেরার পথে তীব্র প্রসব যন্ত্রণা, রেলের সহায়তায় শ্রমিক স্পেশ্যাল ট্রেনেই জন্মাল শিশু

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: May 24, 2020 4:32 pm|    Updated: May 24, 2020 4:32 pm

An woman delivers in train, both mother and baby are healthy

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লকডাউনে বাড়ি ফিরতে ভরসা শ্রমিক স্পেশ্যাল ট্রেনের। হাজার পরিযায়ী শ্রমিকদের সঙ্গে ট্রেনে বাড়ি ফেরার সাহস দেখালেন এক অন্তঃসত্ত্বা। কিন্তু ফিরতি পথেই দেখা দিল তীব্র প্রসব যন্ত্রনা। ফলে ট্রেনেই সন্তানের জন্ম দিলেন তিনি। বর্তমানে মা ও সন্তান দুজনেই সুরক্ষিত বলে জানা যায়।

জীবনে মাতৃত্বের স্বাদ উপভোগের সময়ই চরম দুর্ভোগে কাটিয়েছেন এক মহিলা অন্তঃসত্ত্বা শ্রমিক। একদিকে পেটের লড়াই, অন্যদিকে শরীরে একটু একটু করে বেড়ে ওঠা সন্তানের চিন্তা। ভাগ্যের সঙ্গে লড়াই করে লকডাউনের দীর্ঘ সময় এই মহিলা শ্রমিক কাটিয়েছেন ভিন রাজ্যে। সংক্রমণ ও খাবারের অন্নেষ্বণের দ্বৈত চিন্তায় দিন কেটেছে তাঁর। অগত্যা শ্রমিক স্পেশ্যাল ট্রেনে (Shramik Special Train) বাড়ি ফেরার সিদ্ধান্ত নেন। গন্তব্য ছিল বিহারের নাওয়াদা (Nawada) স্টেশন। গুজরাটের সুরাট থেকে শ্রমিক স্পেশ্যাল ট্রেন ধরে ফিরছিলেন তিনি। হঠাৎ মাঝপথে উঠল অসহ্য প্রসব যন্ত্রনা। তৎখনাত আগ্রা স্টেশনের কাছে খবর দেওয়া হয় রেলের এক চিকিৎসককে। তড়িঘড়ি ট্রেন থামিয়ে চিকিৎসক পুলকিতা উঠে পড়েন ট্রেনের কামরায়। সেখানেই সন্তানের প্রসবের সমস্ত আয়োজন করা হয়। রেলের তরফ থেকে টুইট করে জানানো হয় যে, মা ও সন্তান দুজনেই সুস্থ।

[আরও পড়ুন:সম্প্রীতির নজির, রমজান মাসে ৫০০ মুসলিমের শেরি ও ইফতারের ব্যবস্থা করল বৈষ্ণোদেবী মন্দির]

দীর্ঘ লকডাউনে ঘরমুখো হতে পেরে সব নেই-এর মাঝে কিছুটা স্বস্তি পেয়েছিলেন শ্রমিকরা। তবে নবজাতকের জন্ম আরও একটা খুশির খবর নিয়ে এসেছে বলে মত বাড়ি ফিরতি শ্রমিকদের। এপর্যন্ত শ্রমিক স্পেশ্যাল ট্রেনে মোট ২০ জন শিশুর জন্ম হয়েছে বলে জানা যায়। ট্রেনে জন্ম দেওয়া প্রতিটি শিশু ও তাদের মায়েদের আরপিএফের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসা পরিষেবার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন:এ যেন উলটপুরাণ! ৮০ কিমি পথ হেঁটে বিয়ে করতে গেলেন ধন্যি মেয়ে]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে