৭ মাঘ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২১ জানুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

৭ মাঘ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২১ জানুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গলা পর্যন্ত ঋণের ভারে ডুবে থাকা রিলায়েন্স কমিউনিকেশনের ডিরেক্টর অনিল আম্বানি অবশেষে পদত্যাগ করলেন। শনিবার তাঁর সংস্থার তরফে এ খবর নিশ্চিত করা হয়েছে। অনিল আম্বানির পাশাপাশি ছায়া ভিরানি, মঞ্জরি ক্যাকার, সুরেশ রাঙ্গাচার এবং রায়না কারানি সংস্থার ডিরেক্টর পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন বলে একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানানো হয়েছে।

বিপুল ব্যবসায়িক ক্ষতির মুখে পড়ে কার্যত দেউলিয়া RCom। শুক্রবার তাদের তরফে একটি রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়। যেখানে জানানো হয়, ২০১৯-২০-র দ্বিতীয় কোয়ার্টারে সংস্থার মোট লোকসানের পরিমাণ ছিল ৩০,১৪২ কোটি টাকা। বম্বে স্টক এক্সচেঞ্জ এবং ন্যাশনাল স্টক এক্সচেঞ্জকে একটি চিঠি দেয় অনিল আম্বানির কোম্পানি। যেখানে ডিরেক্টর-সহ আরও চারজনের ইস্তফা দেওয়ার খবর দেওয়া হয়।

[আরও পড়ুন: লক্ষ্য স্থায়ী সরকার গঠন, মহারাষ্ট্রে জট কাটাতে ফের বৈঠকে এনসিপি-কংগ্রেস]

এর আগেই সংস্থার ডিরেক্টর এবং মুখ্য আর্থিক আধিকারিক পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছিলেন মণিকান্থন ভি। ইস্তফাপত্রগুলি অনুমোদনের জন্য ঋণদাতাদের কমিটির কাছে পেশ করা হচ্ছে।

ভারতের টেলিকম বাজারে রিলায়েন্স জিও আসার পর থেকেই খারাপ সময় শুরু হয় Rcom-এর। চূড়ান্ত প্রতিযোগিতার বাজারে ক্রমেই ক্ষতির মুখে পড়েন অনিল আম্বানি। গলা পর্যন্ত ঋণে জর্জরিত হয়ে পড়ে এক সময় নিজেদের ওয়ারলেস ব্যবসাও বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয় কোম্পানিটি। ২০১৭ সালের মার্চে শেষবার নিজেদের ঋণ সংক্রান্ত তথ্য জনসমক্ষে এনেছিল তারা। সে সময় কোম্পানির ব্যাংক ঋণের পরিমাণ ছিল ৭০০ কোটি মার্কিন ডলার। এর পাশাপাশি ভেন্ডাররাও তাদের থেকে মোটা অঙ্কের অর্থ পায়। এবার ইস্তফা দিলেন অনিল। সবমিলিয়ে অসহায় অবস্থা সংস্থার। শোনা যাচ্ছে, RCom-কে দেউলিয়া ঘোষণার প্রক্রিয়া ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে।

[আরও পড়ুন: বিজেপি বিরোধী আন্দোলনে শান, কৃষকদের সমর্থনে ‘ভারত বাঁচাও মহামিছিল’ কংগ্রেসের]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং