BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

সাধারণতন্ত্র দিবসে দিল্লির রাজপথে বর্ণাঢ্য কুচকাওয়াজ, হাজির ১০ রাষ্ট্রপ্রধান

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 26, 2018 9:51 am|    Updated: January 26, 2018 9:51 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ৬৯তম সাধারণতন্ত্র দিবস উপযাদনে নয়া নজির ভারতের। এ বছর প্রথম দিল্লির রাজপথে সাধারণতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানে যোগ দিলেন আসিয়ানভুক্ত ১০টি দেশের রাষ্ট্রপ্রধানরা। আসিয়ানভুক্ত দেশগুলির সঙ্গে সুসম্পর্কের প্রতীক হিসেবে কুচকাওয়াজে দেখা গেল বিশেষ ট্যাবলো। শুক্রবার শহিদ গরুড় কমান্ডো করপোরাল জ্যোতি প্রকাশ নারাল পরিবারের হাতে মরণোত্তর অশোক চক্র সম্মান তুলে দিলেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ।

[গর্বের মুহূর্ত, সবথেকে বড় তেরঙ্গা উড়িয়ে নজির বাংলার]

৬৯তম সাধারণতন্ত্র দিবস উদযাপনে মেতেছে গোটা দেশ। দিনভর কুচকাওয়াজ-সহ নানা অনুষ্ঠান হল সর্বত্রই। দিল্লির রাজপথে সাধারণতন্ত্র দিবসে অনুষ্ঠানে শামিল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, কেন্দ্রীয় সরকারের অন্যান্য মন্ত্রী ও বহু গণমান্য ব্যক্তিত্বরাও। অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন আসিয়ানভুক্ত ১০টি দেশের রাষ্ট্রপ্রধানরাও। যা নজিরবিহীন।

[নিষেধাজ্ঞা উড়িয়ে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ভাগবতের]

এদিন সাধারণতন্ত্র দিবস উপলক্ষ্যে শহিদদের উদ্দেশ্যে অমর জওয়ান জ্যোতিতে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। প্রধানমন্ত্রীর মাথায় ছিল ত্রিবর্ণরঞ্জিত পাগড়ি। এরপর ইন্ডিয়া গেটের কাছে রাজপথে শুরু হল মূল অনুষ্ঠান। রীতিমাফিক পতাকা উত্তোলন করেন প্রধানমন্ত্রী। রাজপথে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা নজর কাড়ে দর্শকদের । কুচকাওয়াচের মাধ্যমে রাষ্ট্রপতিকে অভিবাদন জানান সেনা, বায়ুসেনা ও নৌবাহিনীর জওয়ানরা। দিল্লির রাজপথে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রায় অংশ নেয় বিভিন্ন রাজ্যের সুসজ্জিত ট্যাবলো। শোভাযাত্রায় নজর কাড়ে মোদির নিজের রাজ্য গুজরাটের ট্যাবলোর। ট্যাবলোর থিম ছিল আমেদাবাদের সবরমতী আশ্রম। আমেদাবাদে এই আশ্রমটি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন মহাত্মা গান্ধী। এ বছর আশ্রমের শতবর্ষ। বাইক নিয়ে নানা ধরণে স্টান্ট করে দেখালেন বিএসএফের মহিলা জওয়ানরা। ভারতীয় সেনাবাহিনীর ট্যাবলোতে ছিল টি-৯০ ট্যাঙ্ক, ব্রহ্মস ও আকাশ ক্ষেপণাস্ত্র। বায়ুসেনার ট্যাবলো আবার দেখা গেল দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি তেজস যুদ্ধবিমান। এ বারের সাধারণতন্ত্র দিবসে মরণোত্তর অশোক চক্র সম্মান পেলেন বায়ুসেনার গরুড় কমান্ডো শহিদ করপোরাল জ্যোতি প্রকাশ নারাল। তাঁর স্ত্রী ও মায়ের হাতে দেশের সর্বোচ্চ সম্মান তুলে দিলেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। সাহসিকতার জন্য পুরস্কার পেল ১৮ জন শিশুও। মরণোত্তর পুরস্কার পেল ৩ জন।

 [সাধারণতন্ত্রের ৬ দশক পার, কতটা বদলাল দেশ?]

দিল্লির রাজপথে এই বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের সাক্ষী থাকলেন আসিয়ানভুক্ত ১০টি দেশের রাষ্ট্রপ্রধান। এমনিতে প্রতি বছর সাধারণতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানে বিদেশি রাষ্ট্রপ্রধানকে আমন্ত্রণ জানানো হয়। এটাই দস্তুর। কিন্তু, এরআগে কখনও এই অনুষ্ঠানে একসঙ্গে ১০টি দেশের রাষ্ট্রপ্রধানরা যোগ দেননি। ওয়াকিবহাল মহলে মতে, সাধারণতন্ত্র  দিবসে অনুষ্ঠানে ১০ জন রাষ্ট্রপ্রধানকে হাজির করে পূর্ব এশিয়া প্রভাব বৃদ্ধির বার্তা দিল মোদি সরকার।

 

[পদ্ম সম্মানে উজ্জ্বল ৫ বঙ্গসন্তান, সম্মানিত ধোনি]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement