৩১ আষাঢ়  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গাঁজার বৈধতা নিয়ে সম্প্রতি সংসদে আলোচনার সম্মতি দিয়েছে পরিষদীয় কমিটি৷ আসন্ন শীতকালীন অধিবেশনেই হয়তো এ নিয়ে আলোচনা হতে পারে৷ ব্যথার উপশমকারী ওষুধ হিসেবে গাঁজাকে বৈধ করার ডাক উঠেছে৷ গাঁজা যোগে বাহারি রান্না যে আরও সুস্বাদু করে তোলা যায়, এমনটাও দাবি করে থাকেন কেউ কেউ৷ আর গোটা এশিয়ায় সেরা গাঁজার চাষ হয় ভারতেই৷

সেরা এই গাঁজাকে ‘ইদুক্কি গোল্ড’ বলেই চেনেন অনেকে৷ নামেই গুণাগুণ বোঝা যায়৷ কেরলের ইদুক্কি অঞ্চলে চাষ হয় এই ধরনের গঞ্জিকার৷ যে বিশেষ রাসায়নিকের উপস্থিতিতে গাঁজার দ্রব্যগুণ নির্ধারিত হয়, তা সর্বাধিক পরিমাণে থাকে এই অঞ্চলের গাঁজাতেই৷ এই গাঁজার চাষ ছড়িয়েছে অন্ধ্র-ওড়িশা সীমান্তেও৷ নকশাল উপদ্রুত অঞ্চল হিসেবে এমনিতেই এদিকে সাধারণ মানুষের বাস নেই৷ এই অঞ্চলকে তাই বেছে নেওয়া হয়েছে ইদুক্কি গাঁজার চাষের জন্য৷ জানা যাচ্ছে, পরিবেশের প্রভাবেই এই ধরনের গাঁজা অত্যন্ত উৎকৃষ্ট মানের হয়৷

তবে গাঁজা চাষ এখনও দেশে অবৈধ৷ আর তাই গোপনেই চাষাবাদ করে থাকেন সাধারণ মানুষ৷ তাঁরা নিজেরাও এই অবৈধতার কথা জানেন৷ কিন্তু এই ধরনের গাঁজা চাষের উপর বহু সংখ্যক মানুষের জীবন-জীবিকা নির্ভর করছে৷ বাজারে এই বিশেষ গাঁজার চাহিদাও বিপুল৷ বিক্রিও হয় চড়া দামে৷ আর তাই ঝুঁকি নিয়েও ইদুক্কির চাষ করেন বহু সাধারণ মানুষ৷

আপাতত চোরাগোপ্তা বিক্রি চললেও যদি গাঁজা দেশে বৈধতা পায় তবে বড় উপকারে লাগতে পারে এই ইদুক্কি গোল্ড, এমনটাই মনে করছেন অনেকে৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং