৯ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

নাগরিকপঞ্জির বিরোধিতা, মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা রুজু অসম পুলিশের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 4, 2018 1:50 pm|    Updated: January 4, 2018 1:50 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অসমে নাগরিকপঞ্জির প্রথম খসড়ায় নাম নেই সে রাজ্যে বসবাসকারী ৭০ শতাংশ বাঙালির। এই নিয়ে প্রকাশ্য জনসভায় সরব হয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই অপরাধে তাঁর বিরুদ্ধে এফআইআর করল কৃষক, শ্রমিক, কল্যাণ পরিষদ নামে একটি সংগঠন। সেই অভিযোগের প্রেক্ষিতেই মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা রুজু করেছে অসম পুলিশ। যদিও এই ঘটনাকে আমল দিতে নারাজ তৃণমূল কংগ্রেসের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তাঁর সাফ কথা, ভয় দেখিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চুপ করিয়ে রাখা যাবে না।

[নাগরিকপঞ্জির প্রথম খসড়ায় নাম নেই, অসমে আত্মঘাতী ১]

নতুন বছরের শুরুতেই অসমে ন্যাশনাল রেজিস্টার অফ সিটিজেনস (এনআরসি) বা নাগরিকপঞ্জি নিয়ে বিতর্ক চরমে। ৩১ ডিসেম্বর মধ্যরাতে প্রকাশিত হয়েছে প্রথম দফার  খসড়া তালিকা। জানা গিয়েছে, প্রথম তালিকায় নাম নেই প্রায় দেড় কোটি অসমবাসীরা। দীর্ঘদিন ধরে অসমে বসবাস করা সত্ত্বেও, তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন প্রায় ৭০ শতাংশ বাঙালি। বুধবার বীরভূমের জনসভায় এই ইস্যুতে অসমের বিজেপি সরকারকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর অভিযোগ, বিজেপি সরকার চক্রান্ত করে অসম থেকে বাঙালিদের তাড়ানোর চেষ্টা করছে। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সব রাজ্যে অন্য রাজ্যের লোক থাকে। এটা তাঁদের অধিকার। সব জায়গার লোক সব জায়গায় কাজের জন্য যায়। কাজকে ভালবেসে সংসার তৈরি করেন। ৩০-৪০ বছর ধরে যাঁরা রয়েছেন, আজকে তাঁদের তাড়িয়ে দেওয়ার চক্রান্ত চলছে।’  বিজেপিকে মমতার হুঁশিয়ারি, ‘এই অশান্তি বরদাস্ত করা হবে না। আগুন নিয়ে খেলবেন না। সারা ভারতে আগুন জ্বালাবেন না। আর যদি লোকের গায়ে হাত পড়ে, সে বাঙালিই হোক কিংবা পাঞ্জাবি, আমরা ছেড়ে কথা বলব না।’

[খোদ সিবিআই আদালতের বিচারককেই ‘হুমকি’ ফোন লালু অনুগামীদের]

জানা গিয়েছে, অসমে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেছে কৃষক, শ্রমিক, কল্যাণ পরিষদ নামে এক সংগঠন। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে বাংলার মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলাও রজু করেছে অসম পুলিশ। যদিও বিষয়টি একবারেই আমল দিতে রাজি নয় তৃণমূল কংগ্রেস। দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, ভয় দেখিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চুপ করিয়ে রাখা যাবে না। বাঙালিদের উপর আঘাত এলে, বাঙালিরাই তো প্রতিবাদ করবে। বস্তুত, অসমে নাগরিকপঞ্জি নিয়ে বৃহস্পতিবার উত্তাল ছিল সংসদও। বাঙালি খেদানোর অভিযোগ তুলে সংসদের বাইরে ধরনা দেন তৃণমূল সাংসদরা। যদিও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং জানিয়েছেন, নাগরিকপঞ্জির প্রথম খসড়ায় নাম না থাকলে, পরে নাম তোলার সুযোগ পাওয়া যাবে।

[নয়া রূপে আত্মপ্রকাশের অপেক্ষায় ১০ টাকার নোট, কেমন দেখতে জানেন?]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement