১২ মাঘ  ১৪২৮  বুধবার ২৬ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

স্তব্ধ এটিএম, চরম ভোগান্তিতে সাধারণ মানুষ

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: November 9, 2016 8:47 am|    Updated: November 9, 2016 8:47 am

ATM stopped working, people are in massive trouble

স্টাফ রিপোর্টার: একশো চাই৷ একশো টাকার নোট৷

রাত সাড়ে আটটা৷ সবেমাত্র শহরের মানুষ জেনেছেন যে, বাতিল হয়েছে পাঁচশো ও হাজার টাকার নোট৷ মানুষের মুখে মুখে, টিভিতে, সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে সেই খবর৷ আর দেরি করেননি শহরবাসী৷ হাতে সময় মাত্র কয়েক ঘণ্টা৷ এর পরই বন্ধ হয়ে যাবে এটিএম৷ এক মিনিট মানেও যেন সময় নষ্ট হওয়া৷ প্রায় দৌড়ে এসে এটিএম-এ লাইন দিয়েছেন শহরবাসীরা৷ চাহিদা শুধু একশো টাকার নোটের৷ যদিও শিকে ছিঁড়েছে মাত্র জনা কয়েকের ভাগ্যে৷ এমনিতেই বেশিরভাগ এটিএম মেশিনে রাখা হয় পাঁচশো ও হাজার টাকার নোট৷ এটিএম কার্ড মেশিনে পুরে একশো টাকা চাইলে পাওয়া যায় না৷ একশো টাকার এই ‘আকালে’র মধ্যে মঙ্গলবার রাতে প্রত্যেকের চাহিদা একশো টাকার নোট৷ নোট বাতিলের খবর পেয়ে সঙ্গে সঙ্গেই যাঁরা এটিএম-এ দৌড়ে গিয়েছেন, তাঁদের মধ্যে মাত্র কয়েকজন হাতে পেয়েছেন একশো টাকার নোট৷ এর পর হঠাৎই বন্ধ হয়ে গিয়েছে এটিএম-এর সার্ভার৷

আবার কোনও মেশিন একশো টাকার নোট ফুরিয়ে যাওয়ার বার্তা দিয়েছে৷ বাধ্য হয়ে মানুষ ছুটে গিয়েছে অন্য এটিএম-এ৷ কিন্তু কলকাতার উত্তর থেকে দক্ষিণে সেই একই দৃশ্য৷ সব জায়গায় একশো টাকার নোটের আকাল৷ কোথাও এটিএম-এর নিরাপত্তারক্ষীরা জানিয়ে দিয়েছেন, ব্যাঙ্কের মূল অফিস থেকেই এটিএম-এর সার্ভার বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে৷ টাকা তোলার কোনও সুযোগ নেই৷ ঘণ্টাখানেকের মধ্যেই কোনও এটিএম-এর দরজার সামনেই হাতে লেখা নোটিস ঝুলিয়ে জানিয়ে দেওয়া হয়, একশো টাকার নোট নেই৷ সমস্যা এড়াতে রাত দশটার মধ্যেই বন্ধ করে দেওয়া হয় অনেক এটিএম-এর শাটার৷

এটিএম-এর এই অবস্থার পর রাতে ভিড় বাড়তে শুরু করে শহরের পেট্রোলপাম্পগুলিতে৷ একের পর এক গাড়ি আর বাইক এসে দাঁড়িয়েছে পেট্রোলপাম্পের সামনে৷ কেউ বা দু’শো টাকার পেট্রোল বা ডিজেল কেনার জন্য বাড়িয়ে দিয়েছেন হাজার টাকার নোট৷ আটটি একশো টাকার নোট পুরেছেন পকেটে৷ আবার কেউ একশো টাকার তেল কিনে পাঁচশো টাকার নোট বাড়িয়ে দিয়েছেন৷ প্রথম দিকে পাম্প মালিকরা একশো টাকার নোট দিয়েছেন৷ কিন্তু যখন তাঁরা বুঝেছেন যে, এই তেল কেনা শুধু ‘খুচরো’ অর্থাৎ একশো টাকার নোটের জন্য, তখনই বন্ধ হয়ে গিয়েছে খুচরো একশো টাকার নোট দেওয়া৷ যেহেতু এখন পেট্রোলপাম্পে পাঁচশো বা হাজার টাকার নোট চালানো যাবে, তাই পাম্পের মালিকরাও জানিয়ে দিয়েছেন, তেল কিনতে হলে পাঁচশো বা হাজার টাকার তেলই কিনতে হবে৷ বহু পাম্পে একশো টাকার নোট পাওয়া যাবে না বলে নোটিসও টাঙিয়ে দেওয়া হয়েছে৷

রাত থেকে পুরো বিষয়টির উপর নজর রেখেছে কলকাতা পুলিশও৷ নোট বাতিলের ইস্যুকে কেন্দ্র করে বুধবার যাতে শহরে গোলমাল না হয়, তাই সকাল থেকেই তৈরি থাকছে অতিরিক্ত পুলিশ৷ বুধবার ব্যাঙ্ক ও এটিএম বন্ধ৷ কিন্তু পোস্ট অফিস, পেট্রোলপাম্প বা সরকারি হাসপাতালে গিয়ে কেউ জোর করে পাঁচশো ও হাজার টাকার নোট বদলানোর চেষ্টা করা নিয়ে যাতে গোলমাল বা অশান্তি না হয়, সেই বিষয়েও ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে