BREAKING NEWS

১৪ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বুধবার ১ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

সোশ্যাল মিডিয়ায় শিক্ষিকার অশ্লীল ছবি, অভিযুক্ত ৯ ছাত্র

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: August 19, 2017 4:19 am|    Updated: August 19, 2017 4:19 am

BBAU Professor registered FIR against 9 students for uploading obscene photos

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: শিক্ষিকার অশ্লীল ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড। একের পর এক কুরুচিকর মন্তব্য। এমন অভিযোগই উঠল লখনউয়ের বাবাসাহেব ভীমরাও আম্বেদকর বিশ্ববিদ্যালয়ের ৯ ছাত্রের বিরুদ্ধে। ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে।

[বাংলা, অসম, বিহারের বন্যা পরিস্থতির জন্য দায়ী চিন?]

অভিযোগকারিণী শিক্ষিকার নাম নীতু সিং। বিশ্ব বিদ্যালয়ের হোম সায়েন্স বিভাগের অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রফেসর পদে রয়েছেন তিনি। শুক্রবারই আশিয়ানা পুলিশ স্টেশনে ৯ ছাত্রের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন নীতু সিং। তাঁর অভিযোগ, গত ১১ আগস্ট তাঁর অশ্লীল ছবি ফেসবুকের একটি ওয়েবপেজে আপলোড করা হয়ে। এর পর থেকে তাঁকে নিয়ে একাধিক কুরুচিকর মন্তব্য করা হয়েছে। একজন মহিলা হিসেবে এতে তাঁর সম্মানহানি হয়েছে।

 

অভিযুক্ত ছাত্রদের নাম বসন্ত কনৌজিয়া, অজয় কুমার, শ্রেয়াত বৌদ্ধ, সন্দীপ শাস্ত্রী, রমেন্দ্র নরেশ, অশ্বিনী রঞ্জন, জয় সিং, সন্দীপ গৌতম ও সুমিত কুমার। প্রত্যেকের বিরুদ্ধে  মহিলার সম্মানহানি ও কম্পিউটার ব্যবহার করে অশ্লীল মেসেজ ছড়ানোর অভিযোগ আনা হয়েছে।

[কেরলে নাবালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার আরএসএস নেতা]

ঘটনায় শোরগোল পড়েছে বাবাসাহেব ভীমরাও আম্বেদকর বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে। শিক্ষিকার পক্ষে দাঁড়িয়েছেন এক পক্ষ। আবার অভিযুক্ত ছাত্রদের হয়েও সওয়াল করেছেন অনেকে। তাঁদের মতে অভিযুক্তদের অনেকে বিশ্ববিদ্যালয়ে দলিতদের অধিকার নিয়ে লড়াই করেন। সেই কারণেই তাঁদের ফাঁসানো হচ্ছে। তবে শিক্ষিকার দাবি, এমন ঘটনায় সামাজিকভাবে তাঁর সম্মানহানি হয়েছে। তাই অভিযুক্তদের কড়া শাস্তির দাবি জানিয়েছেন তিনি। ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের তরফে এখনও কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। তবে তদন্ত আইন মেনেই এগোবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

[ভারতের সঙ্গে আকাশপথে সমস্ত যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হল আন্দামানের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে