১ শ্রাবণ  ১৪২৬  বুধবার ১৭ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ১৭ তম লোকসভার শুরুতেই তৈরি হল নতুন নজির! বাবুল সুপ্রিয় ও দেবশ্রী চৌধুরির শপথের সময় প্রথা ভেঙে ‘জয় শ্রীরাম‘ স্লোগান তুললেন একদল বিজেপি সাংসদ। আর এই নিয়েই দেখা দিয়েছে বিতর্ক। স্বাধীনতার পর থেকে কোনওদিনই এই ধরনের ঘটনা ঘটেনি বলে জানাচ্ছেন লোকসভার বর্ষীয়ান সাংসদরা।

[আরও পড়ুন- ‘কটা উইকেট পড়ল?’, সাংবাদিক বৈঠকে প্রশ্ন করে বিতর্কে বিহারের স্বাস্থ্যমন্ত্রী]

সোমবার শপথ নিতে উঠেছিলেন পরিবেশ এবং বনমন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। সেসময় বিজেপির সাংসদরা একসঙ্গে ‘জয় শ্রীরাম’ বলে চিৎকার করতে থাকেন৷ ফের একই ছবি চোখে পড়ে রায়গঞ্জের সাংসদ দেবশ্রী চৌধুরির শপথ নেওয়ার সময়৷ তখনও ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান দিতে থাকেন বিজেপির বেশিরভাগ সাংসদ। তাঁদের নেতৃত্ব দিচ্ছিলেন হুগলির বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়। এই সময় বিরোধীরা বিশেষ করে তৃণমূল সাংসদদের চুপচাপ বসে থাকতে দেখা যায়। তবে শুধু জয় শ্রীরামই নয়, সোমবার সংসদে দাঁড়িয়ে ‘ইনকিলাব জিন্দাবাদ‘ স্লোগান দেন আপ-এর সাংসদ ভাগবন্ত মানও। শপথ নেওয়ার পরই এই স্লোগান দেন পাঞ্জাবের সাঙরুর-এর এই সাংসদ। মঙ্গলবার আবার শপথ নেওয়ার সময় ‘আল্লাহু আকবর’ স্লোগান দেন হায়দরাবাদের সাংসদ ও এআইএমআইএম সুপ্রিমো আসাদউদ্দিন ওয়েইসি। তিনি যখন শপথ নিতে যাচ্ছিলেন তখন জয় শ্রীরাম, ভারত মাতা কী জয় ও বন্দেমাতরম বলে চিৎকার করতে থাকেন কিছু সাংসদ। এরপরই আসাদউদ্দিন স্লোগান দেন, “জয় ভীম, জয় মিম, তকবীর আল্লাহু আকবর, জয় হিন্দ।”

পরে সংসদ ভবনের বাইরে এসে বিষয়টির তীব্র সমালোচনা করেন মহারাষ্ট্রের অমরাবতীর নির্দল সাংসদ নভনীত রানা। তিনি বলেন, “এই স্লোগানের জন্য এটা উপযুক্ত জায়গা নয়। এর জন্য মন্দির আছে। সমস্ত ভগবানই সমান। কিন্তু, কাউকে টার্গেট করে নির্দিষ্ট ওই স্লোগান দেওয়া অনুচিত।”

[আরও পড়ুন- অনন্তনাগে সেনা-জঙ্গি গুলির লড়াইয়ে শহিদ জওয়ান,খতম ২ জইশ জঙ্গি]

গত ৩১ মার্চ উত্তর ২৪ পরগনার একটি জায়গায় যাচ্ছিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেসময় তাঁকে লক্ষ্য করে ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান দেন রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা কয়েকজন মানুষ। এর জেরে সাতজনকে আটকও করে পুলিশ। পরে অবশ্য আদালত থেকে জামিন পান তাঁরা। ওই সময়ের একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। তাতে দেখা যাচ্ছে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের গাড়ি রাস্তার দিয়ে যাওয়ার সময় ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান দিচ্ছেন কয়েকজন। আর গাড়ি থেকে নেমে এসে নিরাপত্তারক্ষীদের ওই ব্যক্তিদের নাম লিখে নেওয়ার নির্দেশ দিচ্ছেন মমতা।

এই ঘটনার পরেই ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগানের মাধ্যমে তৃণমূল নেতা-কর্মীদের বিরক্ত করার পন্থা নেয় বিজেপি! বারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান লেখা ১০ লাখ পোস্টকার্ড তৃণমূল সুপ্রিমোর বাড়িতে পাঠানোর হুঁশিয়ারি দেন। কিন্তু, লোকসভায় যেভাবে শপথ নেওয়ার সময় তৃণমূল সাংসদদের বিরক্ত করার জন্য জয় শ্রীরাম স্লোগান ব্যবহার করা হল। তা নিন্দনীয় বলে মন্তব্য করেছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের একাংশ।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং