BREAKING NEWS

৬ মাঘ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২০ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

জোট বাঁচানোর মরিয়া চেষ্টা! উদ্ধব ঠাকরের সঙ্গে দেখা করবেন অমিত শাহ

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 5, 2018 11:46 am|    Updated: June 5, 2018 11:46 am

BJP’s Amit Shah to meet Shiv Sena’s Uddhav Thackeray

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: উপনির্বাচনের ফলপ্রকাশের পর পরিষ্কার যে সংবদ্ধ বিরোধীরা বেশ বেগ দিতে পারে বিজেপিকে। আর তা আন্দাজ করতে পেরেই হয়তো নিজেদের ঘর গোছাতে শুরু করেছে বিজেপি। ইতিমধ্যেই বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি ‘সম্পর্ক সে সমর্থন’ কর্মসূচির মাধ্যমে সমমনোভাবাপন্ন মানুষের সমর্থন জোগাড় করার চেষ্টা শুরু করে দিয়েছেন । এই কর্মসূচিতেই  বুধবার শিব সেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরের সঙ্গে দেখা করবেন অমিত শাহ।

[নিট পরীক্ষায় খারাপ ফলের জের, বারান্দা থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা ছাত্রের]

নোটবাতিলের পর থেকে এনডিএ জোটে থাকা সত্ত্বেও বিজেপির তীব্র বিরোধিতা শুরু করেছে শিব সেনা। নরেন্দ্র মোদির বিরোধিতায় সবচেয়ে বেশি সুর চড়িয়েছেন শিব সেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরেই। বৃহন্মুম্বই পুরসভার নির্বাচনেও আলাদা আলাদা ভাবে লড়েছিল দুই দল। এমনকী ইতিমধ্যেই ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে আলাদাভাবে লড়ার কথা ঘোষণাও করে দিয়েছে সেনা। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, মহারাষ্ট্রে শিব সেনা, এবং বিজেপির ভোটব্যাংক একই। বিজেপি বড় শরিক । তাই ভোটাররা সেনার থেকে মুখ ফিরিয়ে ঝুঁকছেন গেরুয়া শিবিরের দিকেই। তাই নিজেদের ভোটব্যাংক বাঁচাতে বিজেপি বিরোধিতাকেই একমাত্র পথ হিসেবে মনে করছে শিব সেনা।

[ভারতীয় সংবিধান এই মুহূর্তে বিপন্ন, মত গোয়ার আর্চবিশপের]

বিজেপি অবশ্য শুরু থেকেই জোটের পক্ষে। নিজেদের সবচেয়ে পুরনো জোটসঙ্গীকে হারালে তাদের যে ক্ষতিই হবে তা হয়ত বুঝতে পারছে গেরুয়া শিবিরের নেতারা। তাছাড়া ২০১৯ নির্বাচনে কংগ্রেস ও এনসিপি একসঙ্গে লড়ার কথা ঘোষণা করে দিয়েছে ইতিমধ্যেই। তাই শিবসেনা-বিজেপি আলাদা আলাদা ভাবে লড়লে সুবিধা পাবে বিরোধীরাই। ইতিমধ্যেই, উপনির্বাচনে আলাদা লড়ে একটি লোকসভা এবং একটি বিধানসভা আসন খোয়াতে হয়েছে বিজেপিকে। মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়ণবিশ ইতিমধ্যেই জোট বাঁচাতে আসরে নেমে পড়েছেন। এবার আসরে নামলেন খোদ বিজেপি সভাপতি। বুধবার শিব সেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরের সঙ্গে দেখা করবেন অমিত শাহ। সন্ধ্যা ৬টা নাগাদ উদ্ধবের বাসভবন ‘মাতশ্রী’তে দেখা হওয়ার কথা দুই নেতার। সুত্রের খবর, তিক্ততা ভুলে ২০১৯-এ ফের একসঙ্গে লড়ার আবেদন করতে পারেন অমিত শাহ। প্রয়োজনে আসন-রফাতে কিছুটা সমঝোতাও করতে পারে বিজেপি। তবে, এই বৈঠকে কতটা ফলপ্রসূ হবে তা নিয়ে সংশয়ে বিজেপি নেতাদের একাংশও। সুত্রের খবর, ইতিমধ্যেই ১৯-এর নির্বাচন একা লড়ার প্রস্তুতি শুরু হয়ে গিয়েছে বিজেপি শিবিরে। দলের জেলা সভাপতিদের পৃথকভাবে লড়ার জন্য প্রস্তুত হতে নির্দেশও দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী ফড়ণবিশ। অমিত শাহের এই বৈঠককে পুরনো সঙ্গীকে কাছে টানার শেষ চেষ্টা হিসেবেই দেখছে মহারাষ্ট্র বিজেপি।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে