BREAKING NEWS

১২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

অকারণে রাস্তায় ঘুরল ট্যাক্সিচালক, বিনা চিকিৎসায় মৃত্যু দুর্ঘটনাগ্রস্ত শিশুর

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: February 13, 2017 7:58 am|    Updated: February 13, 2017 7:58 am

cabbie mows child to death in Delhi

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক : ট্যাক্সির চাকায় পিষে দিয়ে জখম চার বছরের শিশুটিকে নিয়ে প্রায় ৫ ঘণ্টা ঘুরে বেড়াল ওই গাড়ির চালক। না! চিকিৎসার জন্য নয়। নিজের দোষ ঢাকতে। ট্যাক্সিতে তুলে নেন ওই শিশুর মাকেও। কোনওরকম অভিযোগ জানালে, পুড়িয়ে মারার হুমকিও দেন ওই মহিলাকে। এদিকে ৫ ঘণ্টার এই ধকল সহ্য করতে না পেরে রাস্তায় মৃত্যু হয় শিশুটির। ঘটনা দিল্লির মুখার্জিনগরের। অভিযুক্ত ট্যাক্সিচালককে গ্রেপ্তার করেছে দিল্লি পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ইন্দিরা বিকাশ কলোনির বাসিন্দা চার বছরের রোহিত বাড়ির সামনে খেলছিল। রাহুল নামে এক ট্যাক্সিচালক গাড়ি ঘোরানোর সময় শিশুটিকে ধাক্কা মারে। রোহিতের কান্না শুনে এলাকার লোকজন ছুটে আসেন।রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয় তাকে। ঘিরে ধরেন ট্যাক্সিচালক রাহুলকে। এরপর নিজেকে বাঁচাতে নাটক শুরু করে সে। রোহিতের মা বাসন্তী কুমারীকে বলেন, সে জখম রোহিতকে হাসপাতালে নিয়ে যাবে। রোহিতকে নিয়ে বাসন্তীদেবী রাহুলের ট্যাক্সিতে চাপেন।

অমর্ত্য সেন ইস্যুতে মিলে গেল বাম-তৃণমূল

পাড়ার মোড় ঘুরতেই আসল রূপ নেয় ওই চালক। হুমকি দিতে শুরু করেন বাসন্তীদেবীকে। সাফ জানান, কোনওরকম অভিযোগ দায়ের করলে কপালে বিপদ আছে। এমনকী মা ও ছেলেকে গাড়ির ভিতর রেখে পুড়িয়ে মারার হুমকিও দেয়। বাসন্তীদেবী জানান, পাঁচ ঘণ্টা ধরে ট্যাক্সিতে এদিক ওদিক ঘোরাতে থাকে রাহুল। ছেলের প্রাণ ভিক্ষা চেয়ে কান্নাকাটি শুরু করেন মা। এরপরই তিন চারটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় রোহিতকে। কিন্তু সব হাসপাতালের বাইরে এসেই রাহুল বলে, রোহিতকে কেউ ভর্তি নিতে চাইছে না। তালিকায় ছিল AIIMS Trauma Center-ও। বাসন্তীদেবী জানান, রাস্তায় রাস্তায় ঘোরার ফলে বিনা চিকিৎসায় মৃত্যু হয়েছে রোহিতের। গোটা ঘটনাটি পুলিশকে জানান বাসন্তী কুমারী। এরপর বাড়ি থেকেই গ্রেপ্তার করা হয় অভিযুক্তকে।

শহিদ জওয়ানদের বিরুদ্ধে কুরুচিকর মন্তব্য, পালটা জবাব দিলেন শেহবাগ

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে