BREAKING NEWS

৩১ আশ্বিন  ১৪২৮  সোমবার ১৮ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

সেলেবদের বিকৃত, আহত ছবি নিয়ে প্রতিবাদের ঝড়

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 26, 2016 7:45 pm|    Updated: March 29, 2019 7:04 pm

campaign featuring morphed Indian celebs images creates Controversy

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মুখে অজস্র ক্ষতচিহ্ন। কারও বা নষ্ট হয়ে যাওয়া চোখে ব্যান্ডেজ। ছবিতে যাঁদের দেখা যাচ্ছে তাঁদের দিকে একঝলক তাকিয়ে স্তম্ভিত নেটিজেনরা। এ যে অমিতাভ বচ্চন, শাহরুখ খান, আলিয়া ভাট, বিরাট কোহলি, নরেন্দ্র মোদির ছবি। কেন এই বিকৃত ছবি ঘুরছে নেটদুনিয়ায়? নেপথ্যে আছে প্রতিবাদ ও পাল্টা প্রতিবাদের কাহিনি।

সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ক্যাম্পেন শুরু করেছে জনৈক মহম্মদ জিবরান নাসের। উত্তপ্ত কাশ্মীর উপত্যকায় সেনার পেলেট গানে আহত হয়েছে বহু সাধারণ মানুষ। এই ঘটনায় ইতিমধ্যেই দুঃখিত বলে জানিয়েছেন সিআরপিএফ ডিজি। বিক্ষোভকারীদের ঠেকাতে সাধারণ মানুষের আহত হওয়ার prnscrn

ঘটনায় পেলেট গান ব্যবহারের পরিবর্ত ভাবনা ভাবছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং। এমত পরিস্থিতিতে ‘নেভার ফরগেট পাকিস্তান’ নামে একটি ক্যাম্পেন শুরু করা হয়েছে। যেখানে ভারতীয় সেলেবদের আহত অবস্থার ছবি ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে ইন্টারনেটে। ক্যাম্পেনের মূল বক্তব্য, যদি এঁরা আহত হতেন তবে কেমন হত! তার সঙ্গে জুড়ে দেওয়া হযেছে একটি চিঠিও, যেখানে সাধারণ একজন আহতের বয়ান লেখা রয়েছে। দাবি করা হয়েছে, মানবিকতার খাতিরে ভারতীয় সেনার কাজকর্মের বিরুদ্ধেই এই ক্যাম্পেন। মাত্রাতিরিক্ত দেশাত্মবোধের খাতিরে ( jingoism) এ ক্যাম্পেন নয় বলেও বলা হয়েছে।

কিন্তু এ নিয়ে রীতিমতো শোরগোল পড়েছে নেটদুনিয়ায়। পাকিস্তানি মিডিয়া যথারীতি এ ক্যাম্পেনকে খবরের শিরোনামে এনেছে। পাল্টা প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে ভারতীয়দের মধ্যেও। হিজবুল জঙ্গী বুরহান ওয়ানির মৃত্যুতে যেভাবে বিছিন্নতাবাদ মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে উপত্যকায়, তা প্রতিরোধ করতে সেনাবাহিনীর কঠোর হওয়া ছাড়া আর কিছু করার ছিল না। যেখানে খোদ সিআরপিএফ ডিজি দুঃখপ্রকাশ করেছেন, সংসদে পেলেট গানের বিকল্প ব্যবহারের ভাবনা চলছে, সেখানে এই ধরনের ক্যাম্পেন করে যে জনমানসে অপ্রীতিকর ছবি তুলে ধরা হচ্ছে এমনটাই মনে করছেন বহু মানুষ।

ইতিমধ্যেই এই ক্যাম্পেনের বিরুদ্ধে খোলা চিঠি ঘুরছে নেটদুনিয়ায়। যার সার বক্তব্য, যে যুক্তিতে এই ক্যাম্পেন করা হয়েছে সন্ত্রাসীদের যুক্তিও তো ছিল এরকমই। এ ছবি দেখে যে কোনও তরুণ মনে করতে পারে, যদি এ কাজ করা যায় তবে হয়ত সবক শেখানো যাবে। এ আসলে বিছিন্নতাবাদকেই প্রশ্রয় দেওয়া। আর তাই এরকম ক্যাম্পেনের তীব্র নিন্দা করেছেন বহু সচেতন ভারতীয়।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement