BREAKING NEWS

২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২০ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

কর্ণাটকে উপনির্বাচনের আগেই কংগ্রেস সভাপতির সম্পত্তিতে সিবিআই হানা, বাজেয়াপ্ত ৫০ লক্ষ

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: October 5, 2020 5:02 pm|    Updated: October 5, 2020 5:02 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিধানসভা আসনে উপনির্বাচনের আগেই কর্ণাটকের কংগ্রেস সভাপতি ডি শিব কুমার ও তাঁর ভাই ডিকে সুরেশের ১৫টি সম্পত্তিতে অভিযান চালাল সিবিআই। এর ফলে ৫০ লক্ষ টাকা বাজেয়াপ্ত হয়েছে বলে দাবি করেছেন তদন্তকারীরা। যদিও এই অভিযোগ উড়িয়ে প্রতিহিংসার রাজনীতির অভিযোগ তুলেছে কংগ্রেসে। মোদি ও ইয়েদুরাপ্পার এই রাজনৈতিক খেলা সবাই ধরে ফেলেছে বলেও কটাক্ষ করেছেন জাতীয় কংগ্রেসের মুখপাত্র রণদীপ সিং সুরজেওয়ালা। অন্যদিকে ডি শিব কুমারের মা ব্যঙ্গ করে জানিয়েছেন, সিবিআই তাঁর ছেলে ভালবাসে। তাই বারবার তাঁদের বাড়িতে আসে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, সোমবার সকালে আয়ের সঙ্গে হিসাব বর্হিভূত সম্পত্তি থাকার অভিযোগে ডি শিবকুমার (DK Shivakumar) -এর বিভিন্ন সম্পত্তিতে তল্লাশি চালিয়েছে সিবিআই (CBI)। কর্ণাটকের কনকপুরা এলাকার দোদ্দালাহাল্লি এলাকায় থাকা কংগ্রেস সভাপতির বাড়ি-সহ মোট ১৫টি জায়গা তল্লাশি অভিযান চালান তদন্তকারীরা। কর্ণাটকের পাশাপাশি হানা দেওয়া দিল্লি ও মুম্বইয়েও। ওই জায়গাগুলিতে তল্লাশি চালিয়ে মোট ৫০ লক্ষ টাকা বাজেয়াপ্ত হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

[আরও পড়ুন: ফের রক্তাক্ত কাশ্মীর, জঙ্গি হামলায় শহিদ দুই CRPF জওয়ান ]

এদিকে এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই বিজেপি ও সিবিআইয়ের বিরুদ্ধে সরব হয় কংগ্রেস। জাতীয় মুখপাত্র রণদীপ সিং সুরজেওয়ালা টুইট করে তোপ দাগেন, সিবিআইকে নিজেদের হাতের পুতুলে পরিণত করেছে বিজেপির নেতৃত্বাধীন কেন্দ্রীয় সরকার। তাই ইয়েদুরাপ্পা সরকারের বিরুদ্ধে তদন্ত না করে তারা প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি ডি শিবকুমারের বাড়িতে তল্লাশি চালাচ্ছে। তবে এভাবে কংগ্রেসের মুখ বন্ধ করা যাবে না। মোদি ও ইয়েদুরাপ্পা সিবিআইয়ের ভয় দেখিয়ে নিজেদের রাজনৈতিক স্বার্থপূরণ করার যে চেষ্টা করছেন তা কোনওদিন সফল হবে না।

যদিও কংগ্রেসের এই অভিযোগ অস্বীকার করে সিবিআই আইন অনুযায়ী কাজ করছে বলে দাবি কর্ণাটক বিজেপির। এপ্রসঙ্গে তাদের এক নেতা জানান, কর্ণাটকের কংগ্রেস সভাপতি ডি শিবকুমারের বিরুদ্ধে আগেও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। এর জেরে জেল খেটেছেন তিনি। কিছুদিন আগে বিএস ইয়েদুরাপ্পার নেতৃত্বাধীন সরকারের তরফে শিবকুমারের দুর্নীতির মামলার তদন্তভার সিবিআইয়ের হাতে তুলে দেওয়ার সুপারিশ করা হয়েছিল। তাই তদন্তে নেমেই নিজেদের কাজ শুরু করেছে সিবিআই।

[আরও পড়ুন: চিন ও পাকিস্তানের বিরুদ্ধে একসঙ্গে লড়াইয়ে জন্য প্রস্তুত রয়েছি, হুঙ্কার বায়ুসেনা প্রধানের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement