BREAKING NEWS

১৫  আষাঢ়  ১৪২৯  শুক্রবার ১ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘ইউপিএ আমলে সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের রেকর্ড নেই’, RTI-এর উত্তরে জানাল প্রতিরক্ষা মন্ত্রক

Published by: Tanujit Das |    Posted: May 7, 2019 4:39 pm|    Updated: May 7, 2019 10:16 pm

Centre says no records of surgical strikes during UPA regime

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ‘সার্জিক্যাল স্ট্রাইক’ ইস্যুতে আবারও মুখ পুড়ল কংগ্রেসের৷ প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং-সহ অন্যান্য কংগ্রেস নেতাদের দাবি উড়িয়ে দিল প্রতিরক্ষা মন্ত্রক৷ জম্মু-কাশ্মীরের বাসিন্দা রোহিত চৌধুরী নামের এক ব্যক্তির করা আরটিআই-এর জবাব দিল সংশ্লিষ্ট মন্ত্রক৷ জানাল, ২০০৪ থেকে ২০১৪ পর্যন্ত ভারতীয় সেনার সার্জিক্যাল স্ট্রাইক সংক্রান্ত কোনও তথ্য নেই মন্ত্রকের কাছে৷ ২০১৬ থেকে সার্জিক্যাল স্ট্রাইক সংক্রান্ত তথ্য রয়েছে মন্ত্রকের কাছে৷

[ আরও পড়ুন: দাবি খারিজ, ভিভিপ্যাট মামলায় সুপ্রিম কোর্টে ধাক্কা বিরোধীদের]

রাজনীতির ময়দানে সেনার সার্জিক্যাল স্ট্রাইক নিয়ে বিতর্ক নতুন কিছু নয়৷ সম্প্রতি সেই বিতর্কে নয়া মাত্রা যোগ করেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং৷ সাম্প্রতিক একটি সাক্ষাৎকারে মনমোহন সিং বলেন, ‘‘আমি মনে করিয়ে দিতে চাই, আমাদের সেনাকে সবসময় পূর্ণ স্বাধীনতা দেওয়া থাকে সমস্ত রকমের হামলার জবাব দেওয়ার। আমাদের সময়ও অনেক সার্জিক্যাল স্ট্রাইক হয়েছিল। আমাদের জন্য, সার্জিক্যাল স্ট্রাইক ছিল কৌশলগত পদক্ষেপ এবং ভারত-বিরোধী শক্তিগুলিকে মোক্ষম জবাব দেওয়ার অস্ত্র। আমরা কখনই এই সাফল্যকে ভোটের ময়দানে কাজে লাগাতে চাইনি।”

মনমোহনের এই সাক্ষাৎকারের পরই কংগ্রেস আমলে ৬টি সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের দাবি করেন দলের নেতা রাজীব শুক্লা৷ তাঁদের সমর্থন করেন ২০১৬ সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের নায়ক তথা কংগ্রেসের জাতীয় নিরাপত্তা বিষয়ক শাখার প্রধান লেফটেন্যান্ট জেনারেল ডিএস হুদা৷ তিনিও জানান, এই প্রথম নয়, এর আগের সরকারের আমলেও একাধিকবার পাক সীমান্ত পেরিয়ে হামলা চালিয়েছে ভারত।

[ আরও পড়ুন: ভোট চলাকালীন হোটেলের ঘর থেকে বাজেয়াপ্ত ইভিএম, বিতর্ক তুঙ্গে ]

কিন্তু কংগ্রেস নেতাদের সমস্ত দাবি উড়িয়ে দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ তিনি বলেন, “সার্জিক্যাল স্ট্রাইক কোনও ভিডিও গেম নয়। কংগ্রেস আমলে কোনও স্ট্রাইক হয়নি।” তবে প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের প্রকাশিত এই আরটিআই রিপোর্ট প্রধানমন্ত্রীর দাবিকেই সিলমোহর দিল বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল৷  

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে