১৪  আশ্বিন  ১৪২৯  রবিবার ২ অক্টোবর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ভাঁড়ারে টান, সেপ্টেম্বরে রেশন ভাতা পেলেন না সিআরপিএফ জওয়ানরা

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: October 1, 2019 11:26 am|    Updated: October 1, 2019 3:07 pm

Centre scraps ration allowance of paramilitary forces

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মোদি সরকার ২.০-এর বেহাল আর্থিক দশা বারবার প্রকট হয়েছে। কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণের শাক দিয়ে মাছ ঢাকার প্রচেষ্টা ব্যর্থ করেই দেশবাসীর কাছে আসল ছবি  স্পষ্ট। একাধিক কেন্দ্রীয় সরকারি সংস্থার ঝাঁপ বন্ধ হয়ে যাওয়া, বিভিন্ন ক্ষেত্রে ভরতুকি কমানো-সহ একাধিক সিদ্ধান্তে কেন্দ্রের অর্থভাণ্ডারের অবস্থা টের পেয়েছেন সকলে। ধারাবাহিক এসব সিদ্ধান্তের পর এবার মোদি সরকারের আর্থিক দুরবস্থার প্রভাব পড়ল সেনা জওয়ানদের উপর। সেপ্টেম্বর মাসের রেশন ভাতা পেলেন না আধা সেনাবাহিনীর জওয়ানরা।

[ আরও পড়ুন: বিহারের বন্যায় মৃত্যু বেড়ে ২৯, জলমগ্ন উপমুখ্যমন্ত্রী-প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর বাসভবন ]

এর আগে প্রত্যেক মাসে সিআরপিএফ-সহ আধা সেনাবাহিনীর জওয়ানদের নির্দিষ্ট অঙ্কের রেশন ভাতা দেওয়া হত। বেতনের সঙ্গেই তা দিয়ে দেওয়া হত। তার অঙ্ক তিন হাজার টাকার আশেপাশে। তবে সম্প্রতি সেই ভাতা দেওয়ার পদ্ধতিতে ছেদ পড়েছে। গত সেপ্টেম্বর মাসে রেশন ভাতা পাননি জওয়ানরা। তাতেই আশঙ্কা বাড়ছিল। তবে নতুন মাসে কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়েছে, কোষাগারে টান রয়েছে। তাই সেপ্টেম্বরে রেশন ভাতা সংক্রান্ত কোনও অর্থই দেওয়া সম্ভব হয়নি। 
সিআরপিএফ–এর উচ্চ পর্যায়ের এক আধিকারিকের বক্তব্য, ‘‌এই প্রথম কোনও সরকার এমন সিদ্ধান্ত নিল। রেশন ভাতা জওয়ানদের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, দেশের এমন এমন স্থানে তাঁদের কাজ করতে হয়, সেখানে ঠিকমতো খাবার পেতে গেলে একটু বেশি টাকার প্রয়োজন হয়। দেশের প্রধানমন্ত্রী যেখানে বারবার জওয়ানদের সুস্থ থাকার কথা বলছেন, সেখানে এই সিদ্ধান্তে সরকারের দ্বিচারিতাই ধরা পড়ে।’‌ পাশাপাশি অবশ্য সিআরপিএফ-এর তরফে কেন্দ্রের কাছে আবেদন জানানো হয়েছে, যত দ্রুত সম্ভব বকেয়া ভাতাটি যেন দিয়ে দেওয়া হয়। 

[ আরও পড়ুন: রাফাল-সুখোই জোটেই শক্তিবৃদ্ধি, পাক-চিন যৌথ হামলাকেও পরাস্ত করতে তৈরি ভারত]

দেশের সেনা জওয়ানদের নিয়ে গর্বিত প্রত্যেক দেশবাসী। তাঁদের প্রতি দেশের সর্বসাধারণকে আরও শ্রদ্ধাশীল করে তোলার জন্য বারবারই বীরত্বের কাহিনি তুলে ধরেছেন নরেন্দ্র মোদি, অমিত শাহরা। সেনাবাহিনীর যে কোনও গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ, অপারেশনে সাফল্যের খবর শোনার জন্য গভীর উৎকণ্ঠায় রাত জেগেও থেকেছেন প্রধানমন্ত্রী। বালাকোট বিমান হামলা দেশের সেনাবাহিনীর যে কত বিরাট সাফল্য, তা বারবারই প্রতিধ্বনিত হয়েছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের বক্তব্যে। কিন্তু এসব যে শুধুই কথার কথা, তা বোঝা গেল কেন্দ্রের সাম্প্রতিক সিদ্ধান্তে। সমস্ত বাধাবিপদ তুচ্ছ করে দেশরক্ষার জন্য অনায়াসে শত্রুর বুলেটের সামনে বুক পেতে দেওয়া জওয়ানরা রেশন ভাতা না পেয়ে এই মুহূর্তে বড়সড় সমস্যার মুখে। 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে