১৬ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শুক্রবার ৩ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

নেতাজি অন্তর্ধান রহস্যে নেওয়া সিদ্ধান্ত থেকে সরে দাঁড়াল কেন্দ্র

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 3, 2017 3:24 am|    Updated: June 3, 2017 3:24 am

Centre U-turn on Netaji Subhas Chandra Bose issue, says it's not closed yet

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর অন্তর্ধান রহস্যে দিন দুয়েকের মধ্যেই ডিগবাজি খেল সরকার। গত বুধবার মোদি সরকারের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল তাইহোকু বিমান দুর্ঘটনাতেই মৃত্যু হয়েছিল নেতাজির। কিন্তু কেন্দ্রের এই ঘোষণার তীব্র বিরোধিতা করে সুভাষচন্দ্রের পরিবার তথা বিরোধী দলগুলি। আর তার জেরেই শুক্রবার ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে গেল কেন্দ্র। বলা হল, এখনও পর্যন্ত অন্তর্ধান রহস্যের সম্পূর্ণ কিনারা করা যায়নি। নতুন তথ্য মিললে তা ফের খতিয়ে দেখা হবে।

স্বাধীনতার পর নেতাজি অন্তর্ধান রহস্যের কিনারা করতে তিন-তিনটে কমিশন গঠন করেছে সরকার। কিন্তু রহস্যের কিনারা হয়নি। তবে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে বুধবার জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল, ১৯৪৫ সালের ১৮ অগাস্ট বিমান দুর্ঘটনাতেই নিহত হন নেতাজি। গত এপ্রিল মাসে তথ্য জানার অধিকার আইনে নেতাজি সম্পর্কে কিছু তথ্য জানতে চেয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের কাছে আবেদন করেছিলেন ওপেন প্ল্যাটফর্ম ফর নেতাজি নামে এক সংগঠনের মুখপাত্র সায়ক সেন। তাঁর প্রশ্নের উত্তরে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে জানানো হয়, শাহনওয়াজ কমিটি, বিচারপতি জিডি খোলসা কমিশন ও বিচারপতি মুখোপাধ্যায় কমিশনের রিপোর্ট বিবেচনা করে সরকার এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছে যে বিমান দুর্ঘটনাতেই নেতাজির মৃত্যু হয়েছিল। আরও জানানো হয়েছে, গুমনামি বাবা ও ভগবানজি সম্পর্কে কিছু তথ্য বিচারপতি মুখোপাধ্যায় কমিশনের রিপোর্টে ১১৪ থেকে ১২২ পাতায় রয়েছে। তবে মুখোপাধ্যায় কমিশন এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছিল যে গুমনামি বাবা বা ভগবানজি নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু ছিলেন না। বলা হয়, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক নেতাজি সংক্রান্ত যাবতীয় ফাইল প্রকাশ করে দিয়েছে।

[বিলাসবহুল জীবনযাত্রাই কাল, তিন মাসের জন্য দল থেকে সাসপেন্ড ঋতব্রত]

তবে কেন্দ্রের এই ঘোষণার পরই সরব হন তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং রাজ্যের বিজেপি নেতারা। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “কোনও প্রমাণ ছাড়াই সরকারের এমন একক সিদ্ধান্তে সত্যিই অবাক হচ্ছি।” রাজ্য বিজেপির তরফেও জানানো হয়েছিল, আরটিআই-এর সিদ্ধান্ত তারা সমর্থন করে না। পাশাপাশি নেতাজির পরিবারের তরফেও বিশেষ তদন্তের দাবি জানানো হয়। একপ্রকার চাপের মুখেই নিজেদের সিদ্ধান্ত থেকে কেন্দ্র সরে এল বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল। শুক্রবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের মুখপাত্র বলেন, “২০০৬ সালে ইউপিএল সরকার একবার এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছিল যে নেতাজির মৃত্যু হয়েছে। তবে তখনও বিষয়টি নিয়ে খোঁজ শেষ হয়নি। তার উপর ভিত্তি করেই নেতাজির মৃত্যু রহস্যের কিনারার চেষ্টা হয়েছিল। তবে নেতাজি অন্তর্ধান রহস্যের বিষয়টি এখনও পুরোপুরি মিটে যায়নি। নতুন কোনও তথ্য উঠে এলে তা অবশ্যই খতিয়ে দেখা হবে। এ বিষয়ে কেন্দ্র সঠিক সিদ্ধান্তই গ্রহণ করবে।”

[ইংরাজি না জানায় উপহাস! সিভিল সার্ভিসে তৃতীয় হয়ে জবাব ব্যক্তির]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে