১০ কার্তিক  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

রাজ্যসভায় পাশ দিল্লি বিল, ‘গণতন্ত্রের কালো দিন’ দাবি কেজরিওয়ালের

Published by: Paramita Paul |    Posted: March 25, 2021 11:21 am|    Updated: March 25, 2021 10:30 pm

Centre's Delhi Bill Clears Rajya Sabha Amid Protests | Sangbad Pratidin

স্টাফ রিপোর্টার, নয়াদিল্লি: লোকসভা আগেই ছাড়পত্র দিয়েছিল। এবার বিরোধীদের আপত্তি উড়িয়ে বুধবার রাজ্যসভায় পাশ হল গভর্নমেন্ট অফ ন্যাশনাল ক্যাপিটাল টেরিটরি অফ দিল্লি (সংশোধনী) বিল, ২০২১ বা এনসিটি।  ফলে, নির্বাচিত সরকারের হাত থেকে দিল্লির (Delhi) যাবতীয় প্রশাসনিক ক্ষমতা হস্তান্তর হল লেফটেন্যান্ট গভর্নরের হাতে। অর্থাৎ এই বিল আইনে পরিণত হলে যে কোনও গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিতে গেলে দিল্লির (Delhi) সরকারকে সেখানকার লেফটেন্যান্ট গভর্নরের অনুমতি নিতে হবে।

কেন্দ্রের অনড় মনোভাবে সংসদের উচ্চকক্ষে এই বিল পাশের ফলে ধাক্কা খেল কেজরিওয়াল সরকার। এনসিটি বিল পাসে কেন্দ্রের এই মনোভাবের তীব্র বিরোধিতা করেছে আম আদমি পার্টি। গত ২২ মার্চ লোকসভায় পাশ হয়েছিল এনসিটি বিল (NCT Bill)। মুখ্যমন্ত্রী কেজরিওয়ালের প্রতিক্রিয়া, “গণতন্ত্রের দুঃখজনক দিন আজ। কিন্তু আমরা লড়াই চালিয়ে যাব। বাধা এলেও কাজ করে যাব।”

এনসিটি বিলের উপর আলোচনায় অংশ নিতে তড়িঘড়ি দিল্লি ছুটে এসেছিলেন তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদরা। নির্বাচনের কাজে ব‌্যস্ত থাকায় অধিবেশনে নিয়মিত যোগ দিতে পারছেন না তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদরা। তাই আপাতত রাজ্যসভায় বিল নিয়ে আলোচনা স্থগিত রাখার দাবি জানিয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেস। গত মঙ্গলবার রাজ‌্যসভার চেয়ারম‌্যান তথা উপরাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নায়ডুকে চিঠিও লিখেছিলেন সংসদের উচ্চকক্ষে তৃণমূল কংগ্রেস দলনেতা ডেরেক ও’ব্রায়েন। কিন্তু তাতে লাভ হয়নি। মঙ্গলবারই রাজ‌্যসভায় পেশ করা হয় এনসিটি (সংশোধনী) বিল, ২০২১। এই বিলের প্রতিবাদে নৈতিক সমর্থন জানিয়ে দিল্লির মুখ‌্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালকে আগেই চিঠি দিয়েছিলেন বাংলার মুখ‌্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ‌্যায়।

[আরও পড়ুন : হোলির আগে চিন্তা বাড়াল দেশের করোনা গ্রাফ, ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ৫৩ হাজারেরও বেশি]

মঙ্গলবার এনসিটি বিলের প্রতিবাদে রাজ‌্যসভায় শোরগোল বাধান বিরোধী দলের সাংসদরা। ফলে বারবার মুলতবি হয় অধিবেশন। বুধবার অধিবেশনের শুরু থেকে বিল পাসের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ান আপ, কংগ্রেস এবং সমাজবাদী পার্টির সাংসদরা। আরও একবার ‘ত্রুটিপূর্ণ’ এই বিলকে সংসদের স্থায়ী কমিটিতে পাঠানোর দাবি জানান বিরোধী দলনেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে, সমাজবাদী পার্টি সাংসদ বিশ্বম্ভর প্রসাদ নিষাদরা। কিন্তু বিরোধী আপত্তি উড়িয়ে রাতেই রাজ্যসভায় পাশ হয় এনসিটি বিল। প্রতিবাদে ওয়াক আউট করে কংগ্রেস, বিজেডি-সহ রাজনৈতিক দলগুলি।

কেন্দ্রকে আক্রমণ করে আপ সাংসদ সঞ্জয় সিং বলেন, “দিল্লিতে পর পর দু’বার বিধানসভায় হেরেছে বিজেপি। তারই বদলা নিতে এই বিল পাশ হল।” কেন্দ্রশাসিত দিল্লিতে ২০১৩—য় ক্ষমতায় প্রথম আসার পর থেকেই প্রশাসনিক ক্ষমতা হস্তান্তরের বিরুদ্ধে লড়াই শুরু করেন আপ নেতা ও মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। এলজি—র হাতে ক্ষমতা হস্তান্তরের বিরুদ্ধে বারবার রুখে দাঁড়ান কেন্দ্রের বিরুদ্ধে। কিন্তু বুধবার রাজ্যসভায় এনসিটি বিল পাসের পর সেই লড়াই কার্যত শেষ হয়ে গেল।

[আরও পড়ুন : হামলা চালাতে সাহস পাবে না প্রতিপক্ষ, এবার চেন্নাই উপকূলে প্রহরীর ভূমিকায় ‘বজ্র’]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement