১৯ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  সোমবার ৬ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

টাটা গোষ্ঠীর সঙ্গে সম্মুখ সমরে সাইরাস

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: October 25, 2016 12:25 pm|    Updated: January 10, 2020 4:35 pm

 Challenging Tata Sons decision Cyrus Mistry to move in Bombay high court

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মাত্র চার বছর আগে বিশাল টাটা সাম্রাজ্যের ব্যাটনটি এসেছিল তাঁর হাতে৷  প্রায় বিনা নোটিশেই তা আবার ছিনিয়ে নেওয়া হয়েছে৷ ঘটনায় ক্ষুব্ধ সদ্য প্রাক্তন হওয়া টাটা গোষ্ঠীর চেয়ারম্যান সাইরাস মিস্ত্রি৷ অপসারণের সিদ্ধান্তর বিরোধিতা করে তিনি বম্বে হাই কোর্টের দ্বারস্থ হচ্ছেন বলেই জানা যাচ্ছে৷

টাটাদের দীর্ঘদিনের পারিবারিক ও ব্যবসায়িক বন্ধু শাপুরজি পালোনজি গোষ্ঠীর উত্তরসূরিকেই ব্যবসা দেখভালের দায়িত্ব দিয়ে অবসর নিয়েছিলেন রতন টাটা৷  তাঁর আকস্মিক প্রত্যাবর্তনে যেমন চমকিত কর্পোরেট দুনিয়া, তেমনই ক্ষুব্ধ সাইরাস মিস্ত্রি৷  সূত্রের খবর, এই অপসারণ কিছুতেই মেনে নিতে পারেননি তিনি৷ ঘনিষ্ঠমহলে এই সিদ্ধান্তকে বেআইনি বলেই ব্যাখ্যা করেছেন তিনি৷ যদিও টাটা সন্সের বোর্ড মিটিংয়েই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে৷ কিন্তু উপস্থিত ৯ জনের মধ্যে একজন ছিলেন সাইরাস নিজেই৷ স্বাভাবিকভাবেই এই প্রক্রিয়ায় তিনি অংশ নিতে চাননি৷ বাকিদের মধ্যে ২ জন কোনও মত দেননি৷ ৬ জন অবশ্য পরিবর্তনের পক্ষেই রায় দেন৷  কিন্তু সাইরাস ক্ষুব্ধ হয়েছেন বিনা নোটিশে এভাবে বোর্ড মিটিং করে চেয়ারম্যান পদ থেকে তাঁকে বরখাস্ত করায়৷ অন্তত ১৫ দিন আগে নোটিশ দেওয়া উচিত ছিল বলেই দাবি তাঁর৷  যদিও তাঁকে কোম্পানির ডিরেক্টর পদে রাখা হয়েছে৷  তবে সূত্রের খবর, সংস্থার সমস্ত শীর্ষ পদ তিনি ছাড়তে চলেছেন৷

cyrus-mistry-sack-759অন্তর্বর্তী চেয়ারম্যান পদে নিজের নিযুক্তির পক্ষে রতন টাটা যে যুক্তি দেখিয়েছেন, তাতে কোম্পানির স্থায়িত্বের কথা বলা হয়েছে৷  কিন্তু টাটা গোষ্ঠীর স্থায়িত্ব বা কাঠামো যে ভেঙে পড়েছিল এমনটা নয়৷ আয়-ব্যয়ের যে হিসেব সামনে আসছে তাতেও তাঁর অপসারণ যে খুব যুক্তিযুক্ত, এমনটা মনে করছেন না অর্থনীতির বিশেষজ্ঞরা৷ বিশেষত মাত্র চার বছর কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া বা তার দীর্ঘমেয়াদি ফল পরখ করে দেখার ক্ষেত্রে খুবই অল্প বলেই মনে করা হচ্ছে৷ সেক্ষেত্রে চমকপ্রদ এই সিদ্ধান্তের নেপথ্য কারণটি কিছুতেই স্পষ্ট হচ্ছে না৷  শাপুরজি পালোনজিদের সঙ্গে টাটাদের বৈবাহিক সম্পর্কও আছে৷  দীর্ঘদিনের পারিবারিক বন্ধু তাঁরা৷  সাইরাসের অপসারণ তাঁরা কীভাবে নেবেন সে নিয়ে প্রশ্ন উঠছে৷ এছাড়া শাপুরজিরা টাটা সন্সের ১৬-১৮ শতাংশ শেয়ারহোল্ডার৷  টাটা ছাড়া অন্যান্য শেয়ারহোল্ডারদের মধ্যে তারাই সবথেকে বেশি অংশের ভাগীদার৷ এই সিদ্ধান্তের পর সাইরাসরা যদি টাটাদের থেকে নিজেদের দূরে রাখে বা আদালতের দ্বারস্থ হয়, তবে টাটা গোষ্ঠীতে ভাঙন ধরার সম্ভাবনাও উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না৷ সাইরাসের হাতে দায়িত্ব তুলে দেওয়ার সময় তাঁর অনভিজ্ঞতা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল৷ এতবড় সাম্রাজ্য সামলানোর দক্ষতা তাঁর আছে কি না, তা নিয়ে সব প্রশ্নে ইতি টেনেছিলেন খোদ রতন টাটাই৷ তিনি নিজে পাশে থেকে তাঁকে কাজ শেখাবেন বলেও জানিয়েছিলেন৷ তারপর মাত্র চার বছরে কী এমন হল যাতে সাইরাসকে সরতে হচ্ছে তা রীতিমতো জল্পনার বিষয় কর্পোরেট দুনিয়ায়৷ তবে মিস্ত্রি পরিবার যে এই সিদ্ধান্তকে সহজভাবে নেয়নি তা স্পষ্ট৷ সাইরাসের আদালতের দ্বারস্থ হওয়ার সিদ্ধান্তে টাটাদের সঙ্গে তাদের সম্মুখ সমরেরই ইঙ্গিত দিল৷

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে