৭ মাঘ  ১৪২৮  শুক্রবার ২১ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

চিন পরমাণু হামলা চালালে পাল্টা বেজিংকে শ্মশান করে দেবে ‘অগ্নি-৫’

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: December 29, 2016 9:06 am|    Updated: December 29, 2016 9:12 am

China has no business whatsoever to complain about the recent test of the Agni-V intercontinental ballistic missile

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পাঁচ হাজার কিলোমিটার পাল্লার ইন্টার কন্টিনেন্ট ব্যালিস্টিক ‘অগ্নি-৫’ মিসাইলের সফল পরীক্ষা চিনের রাতের ঘুম কেড়ে নিয়েছে৷ বেজিংও এখন এসে গিয়েছে ভারতের পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্রের পাল্লার মধ্যে৷ এবার চূড়ান্ত সংঘাত বাঁধলে ভারতীয় সেনাবাহিনী যে চিনের বিরুদ্ধে পাল্টা হামলা দাগতে বিন্দুমাত্র দেরি করবে না হাবেভাবে সেই কথাই যেন বুঝিয়ে দিলেন প্রাক্তন বায়ুসেনা প্রধান অরূপ রাহা৷

বেশ কয়েকদিন ধরেই ভারতে হামলার জন্য দেলিংহা ও দা কোয়াইদামে পারমাণবিক বোমা বহনকারী দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েন রেখেছে চিন৷ প্রতিবাদ জানিয়েছে ‘অগ্নি-৫’ ক্ষেপণাস্ত্রের বিরুদ্ধে৷ পাল্টা ভারত জানিয়ে দিয়েছে, দ্রুতই ‘অগ্নি-৫’ ক্ষেপণাস্ত্র তুলে দেওয়া হবে দেশের সশস্ত্র বাহিনীর হাতে৷ পারমাণবিক যুদ্ধে হামলা করার থেকেও বেশি গুরুত্বপূর্ণ হামলা সহ্য করে পাল্টা হামলা চালানোর প্রক্রিয়া৷ যাকে পোশাকি ভাষায় বলে ‘কাউন্টার নিউক্লিয়ার স্ট্রাইক৷’ ভারত সেই সক্ষমতা গড়ে তোলার লক্ষ্যে এখন আরও একধাপ এগিয়ে গিয়েছে বলে মত সামরিক বিশেষজ্ঞদের৷

অগ্নি-৫ ক্ষেপণাস্ত্রের বিরুদ্ধে চিনের আপত্তি প্রসঙ্গে বুধবার প্রাক্তন বাঙালি বায়ুসেনা অফিসার চিনের নাম না করে বলেন, “যে দেশ পরমাণু প্রযুক্তি অন্য দেশে পাচার করে তাদের কোনও অধিকারই নেই এ নিয়ে কথা বলার৷” উল্লেখ্য, পাকিস্তানকে গোপনে পরমাণু প্রযুক্তি পাচার করার পুরনো অভিযোগ রয়েছে চিনের বিরুদ্ধে৷ শুধু তাই নয়, চিনও এখন লাগাতার তাদের পারমাণবিক অস্ত্রভাণ্ডারকে সমৃদ্ধ করে চলেছে৷ ১১,২০০ কিলোমিটার রেঞ্জের ডংফেং-৩১এ, ১৪,৫০০ কিলোমিটার রেঞ্জের ডিএফ-৪১-এর মতো ভূমি থেকে ভূমি ব্যালিস্টিক মিসাইল এখন রয়েছে চিনা ভাঁড়ারে৷

এর পাশাপাশি, দেশের সমর বিশেষজ্ঞদের চিন্তা বাড়িয়েছে চিনা সশস্ত্র বাহিনীর হাতে আইসিবিএম ও এমআইআরভি-র মতো অস্ত্র৷ ওই একটি মিসাইল একসঙ্গে একাধিক পারমাণবিক অস্ত্র বহনে সক্ষম৷ এক একটি মিসাইল এক একটি ভারতীয় শহরে আলাদা আলাদা ভাবে আঘাত করতে পারবে৷ এক সিনিয়র অফিসার বলছেন, “অগ্নি-৫ এর সফল উৎক্ষেপণে চিনের কান্নার কিছুই হয়নি৷ তাদের কাছে আরও বিতর্কিত পারমাণবিক বোমা মজুত রয়েছে৷”

তবে রাহা বলছেন, “ভারত শান্তিতে বিশ্বাস করে৷ কারও সঙ্গে আগ বাড়িয়ে যুদ্ধ চায় না৷ কিন্তু অতীতে দেখা গিয়েছে ভারতকে যুদ্ধে টেনে নামানো হয়েছে৷ তাই এখন আমরা প্রতিরোধ গড়ে তোলায় বিশ্বাসী৷” একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম দেশের কয়েকজন শীর্ষ প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞকে উদ্ধৃত করে জানিয়েছে, চিন যদি একবার পরমাণু অস্ত্র দেগে দেয়, তাহলে ভারতও পাল্টা হামলায় বেজিংকে শ্মশানে পরিণত করতে দ্বিধা করবে না৷

অগ্নি-৫-এর বিরুদ্ধে চিনা আপত্তি উড়িয়ে রাহা বলেন, “কে কী বলল তাতে কান দিলে চলবে না৷ আমাদের দেশের সুরক্ষার স্বার্থে সর্বোচ্চ প্রতিরোধ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে৷ তার জন্য যা যা করতে হয় তাই’ই করতে হবে৷ এ নিয়ে কথা বলার বা আপত্তি করার অধিকার কোনও বিদেশি রাষ্ট্রের নেই৷ যাবতীয় প্রতিরোধকারী ব্যবস্থা নেওয়ার অধিকার রয়েছে একমাত্র ভারতের৷ ক্ষেপণাস্ত্রে পাল্লা বাড়ানোটা তারই অঙ্গ৷”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে