BREAKING NEWS

১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

চিন শক্তিশালী হলে ভারতও দুর্বল নয়, কড়া বার্তা সেনাপ্রধানের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 13, 2018 6:38 am|    Updated: January 13, 2018 6:38 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারত দুর্বল দেশ নয়। ভারত ভূখণ্ডে হানাদারি মেনে নেওয়া হবে না। একেবারে নাম করেই প্রতিবেশী রাষ্ট্র চিনের উদ্দেশে কড়া বার্তা দিলেন সেনাপ্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াত। একই সঙ্গে তিনি বলেছেন, রাসায়নিক, জৈব, তেজস্ক্রিয় ও পরমাণু অস্ত্রের বিপদ সম্পর্কে আশঙ্কা ক্রমশ বাস্তব হচ্ছে। তাঁর মতে, জঙ্গি-সন্ত্রাসবাদীদের থেকেই এই বিপদ আসতে পারে।

[ভারতকে দেশীয় অস্ত্রে লড়তে হবে, ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’র সওয়াল সেনাপ্রধানের]

শুক্রবার এক সাংবাদিক সম্মেলনে জেনারেল রাওয়াত পাকিস্তানের থেকেও চিন বড় বিপদ বলে ইঙ্গিত করেছেন। তিনি বলেন, পশ্চিমপ্রান্ত থেকে সরিয়ে এবার উত্তরের দিকে নজর দেওয়ার সময় এসেছে। যে কোনও বিদেশি আগ্রাসনের মোকাবিলা করতে সামরিক বাহিনী প্রস্তুত। এই অঞ্চলে চিনের অগ্রগতি প্রতিহত করার ক্ষমতা রাখে বাহিনী। উল্লেখ্য, চিন সাম্প্রতিককালে ভারতের বিভিন্ন প্রতিবেশী রাষ্ট্রকে বিপুল আর্থিক সহযোগিতা দিয়ে নিজেদের পক্ষে টানার চেষ্টা করছে। এ প্রসঙ্গে সেনাপ্রধানের মন্তব্য, ভারত তা হতে দেবে না। তিনি বলেন, “চিন শক্তিশালী হতেই পারে। তাই বলে ভারত কোনও অংশে দুর্বল নয়।”

ভারত ভূখণ্ডে চিনা আগ্রাসন প্রসঙ্গে জেনারেল রাওয়াত বলেন, “আমাদের ভূখণ্ডে অন্য দেশের হানাদারি বরদাস্ত করা হবে না।” একইসঙ্গে এদিন আরেক প্রতিবেশী রাষ্ট্র পাকিস্তানকেও তীব্র আক্রমণ করেন তিনি। সন্ত্রাসবাদ মোকাবিলা নিয়ে পাকিস্তানের ভূমিকায় অসন্তুষ্ট আমেরিকা সম্প্রতি ইসলামাবাদকে দেওয়া সামরিক সহায়তা বন্ধ করে দিয়েছে। এই প্রসঙ্গ উত্থাপন করে সেনাপ্রধান বলেন, “এর কী প্রভাব পড়ল, তা দেখার অপেক্ষায় থাকবে ভারত। তিনি যোগ করেন, পাকিস্তান জঙ্গিদের ব্যবহার করে ছুড়ে ফেলে দেয়। আর ভারতীয় সেনা নিশ্চিত করে যাতে পাকিস্তান কঠিন সমস্যায় পড়ে।”

রাসায়নিক, জৈব, তেজস্ক্রিয় ও পরমাণু অস্ত্র (সিবিআরএন)-এর বিপদ প্রসঙ্গে জেনারেল রাওয়াত বলেছেন, সিবিআরএন অস্ত্র ব্যবহারের বিপদের শঙ্কা এখন বাস্তব রূপ নিয়েছে। বিশেষ করে সন্ত্রাসীদের দিক থেকে এই বিপদ বেশি। সিবিআরএন অস্ত্রের ব্যবহার জীবন ও সম্পদে এমন আঘাত হানতে পারে, যা থেকে পুনরুদ্ধারে দীর্ঘ সময় লেগে যাবে। রাওয়াত জোরের সঙ্গেই বলেন, “গোলাবারুদ এক জায়গা থেকে অন্যত্র দ্রুত স্থানান্তর নিশ্চিত করার ক্ষমতা থাকতে হবে ভারতের। সরকার সেই বিষয়টিতে নজর দিচ্ছে। পশ্চিমাঞ্চল থেকে উত্তরের অঞ্চলগুলিতে বাহিনী সরিয়ে নেওয়ার ক্ষমতা আমাদেরও গড়ে তুলতে হবে।”

[অস্ত্রের অভাব নেই ভারতীয় সেনার, বার্তা সেনাপ্রধানের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement