৪ কার্তিক  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২২ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ডোকলামের পর ফের সীমান্তে উত্তেজনা বাড়ল ভারত ও চিনের মধ্যে। লাদাখে হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়লেন দু’পক্ষের জওয়ানরা পরস্পর। সীমান্তে প্যাংগং লেকের কাছেই প্রায় সম্মুখসমরে অবতীর্ণ হয় দু’দেশের বাহিনী।

[আরও পড়ুন: আইএস অধিকৃত দ্বীপে ৪০ টন বোমা ফেলল আমেরিকা, খতম ২৫ জঙ্গি]

জানা গিয়েছে, বুধবার ভোরে পূর্ব লাদাখে অবস্থিত প্যাংগঙ লেকের উত্তর তীরে এই ঘটনা ঘটে। ১৩৪ কিমি লম্বা এই হ্রদের দুই-তৃতীয়াংশই চিনের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এর ব্যাপ্তি তিব্বত থেকে লাদাখ পর্যন্ত। সেনার তরফে জানান হয়েছে, ‘নিয়মিত টহল দেওয়ার সময় লাল ফৌজের জওয়ানদের সঙ্গে বচসা বাঁধে ভারতীয় জওয়ানদের। ওই এলাকায় তাঁদের যেতে বাধা দেয় চিনা সেনা। এর থেকেই যুযুধান দুই সেনার জওয়ানদের মধ্যে ঝামেলা ও হাতাহাতি শুরু হয়। দু’দেশই ওই এলাকায় আরও বাহিনী পাঠায়। সন্ধে পর্যন্ত এই উত্তেজনার পরিবেশ বজায় থাকে।’ যদিও পড়ে দ্বিপাক্ষিক চুক্তি ও ব্রিগেডিয়ার পদমর্যাদার অফিসারদের বৈঠকে দু’দেশের বাহিনীর মধ্যে উত্তেজনা প্রশমিত হয়েছে।

সেনার এক শীর্ষ আধিকারিক জানিয়েছেন, লাইন অফ অ্যাকচুয়াল কন্ট্রোল (LAC) ঠিক কোথা দিয়ে গিয়েছে, তা নিয়ে দ্বন্দ্বের কারণ রয়েছে। ফলে অনেক সময় এমন ঘটনা ঘটে। সীমান্ত কর্মীদের বৈঠক ও ফ্ল্যাগ মিটিঙের মাধ্যমে সেই সমস্যার সমাধান করা হয়।’ উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে দ্বিতীয় বৈঠকে সামিল হতে ভারত সফরে আসছেন চিনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। সেই সময় অরুণাচলপ্রদেশে ‘ভীম বিজয়’ মহড়া চালাবে ভারতীয় সেনাবাহিনী। ডোকলাম দ্বন্দ্বের পর ২০১৮ সালের এপ্রিলে ইউহানে মোদি-জিনপিংয়ের প্রথম বৈঠক হয়েছিল।

[আরও পড়ুন: কুলভূষণকে আর ভারতীয় কূটনৈতিকদের সঙ্গে দেখা করতে দিতে চায় না পাকিস্তান]

প্রসঙ্গত, অরুণাচলের ভিতরে ঢুকে রাস্তা বানিয়েছে চিন। বিজেপি রাজ্য সভাপতি ও সাংসদ তাপির গাওয়ের এই অভিযোগের প্রমাণ দিল স্যাটেলাইট। ভারত ও চিন সীমান্ত এলাকার উপগ্রহ চিত্রে তার প্রমাণ পেয়েছেন প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞরা। ওই এলাকার ছবি বিশ্লেষণ করে দেখা গিয়েছে, ভারতে অনুপ্রবেশ করে এক কিলোমিটার লম্বা একটি রাস্তা বানিয়েছে চিন।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং