১০ আষাঢ়  ১৪২৮  শুক্রবার ২৫ জুন ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

নিয়মের গেরো, CBI প্রধান পদে কেন্দ্রের পছন্দের ২ প্রার্থীকে বাদ দিলেন প্রধান বিচারপতি!

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: May 25, 2021 1:14 pm|    Updated: May 25, 2021 4:29 pm

CJI NV Ramana emphasized a rule that eliminated from the race at least two government choices for CBI chief | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা অর্থাৎ সিবিআইয়ের (CBI) পরবর্তী প্রধান কে হবেন? এই নিয়ে ৯০ মিনিটের আলোচনার পরও সোমবার কোনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে পৌছাতে পারেনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন ৩ সদস্যের কমিটি। সূত্রের খবর, সুপ্রিম কোর্টের একটি রায়ের দোহাই দিয়ে প্রধান বিচারপতি এন ভি রামানা (NV Ramana) কেন্দ্রের পছন্দের দুই প্রার্থীর নাম বকলমে বাতিল করে দিয়েছেন। যার ফলে সিবিআই প্রধান নির্বাচনে বেড়েছে জটিলতা।

চলতি বছর ফেব্রুয়ারিতে ঋষিকুমার শুক্ল অবসর নেওয়ায় বর্তমানে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার ভারপ্রাপ্ত প্রধান হিসেবে দায়িত্ব সামলাচ্ছেন সিবিআইয়ের অতিরিক্ত ডিরেক্টর প্রবীণ সিনহা। তার জায়গায় আসবেন নয়া ডিরেক্টর। গতকাল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির (Narendra Modi) বাসভবনে নতুন সিবিআই ডিরেক্টর নির্বাচন নিয়ে বৈঠক ছিল তিন সদস্যের কমিটির। যার সদস্য খোদ প্রধানমন্ত্রী মোদি, লোকসভার কংগ্রেস দলনেতা অধীর চৌধুরী (Adhir Ranjan Chowdhury) এবং দেশের প্রধান বিচারপতি এম ভি রামানা। তিন সদস্যের এই কমিটির মধ্যে প্রায় ৯০ মিনিট আলোচনা হয় পরবর্তী সিবিআই প্রধানের নির্বাচন নিয়ে। কানাঘুষো শোনা যাচ্ছিল এই পদে বসার দৌড়ে এগিয়ে রয়েছেন রাকেশ আস্তানা, যোগেশ মোদি-সহ বেশ কয়েকজন আইপিএস অফিসার। কিন্তু প্রধান বিচারপতি রামানা সরকারের প্রথম দুই পছন্দের প্রার্থীকেই বাতিল করে দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের (Supreme Court) একটি নির্দেশের উল্লেখ করে। তিনি জানান, চাকরির মেয়াদ ছ’মাস বাকি থাকতে কোনও সরকারি আমলাকে পুলিশ প্রধানের দায়িত্বে বসানো আইনবিরোধী।

[আরও পড়ুন: ‘বাংলায় ভোট পরবর্তী হিংসা সামলাতে রাষ্ট্রপতির হস্তক্ষেপ চাই’, কোবিন্দের দ্বারস্থ বিশিষ্টজনেরা]

যার ফলে রাকেশ আস্তানা এবং যোগেশ মোদি দুজনেই লড়াই থেকে ছিটকে যান। কারণ, এই মুহূর্তে বিএসএফ (BSF) প্রধান পদে আসীন আস্তানার অবসর নেওয়ার কথা আগামী ৩১ অগস্ট। অন্যদিকে NIA প্রধান যোগেশ মোদির চাকরিজীবন শেষ হচ্ছে আগামী ৩১ মে। অর্থাৎ দু’জনেরই চাকরির মেয়াদ ছ’মাসের কম। যা নিয়ে আপত্তি তোলেন প্রধান বিচারপতি। তাঁর পাশে দাঁড়িয়ে আপত্তি জানান অধীরও। এর ফলে তিন সদস্যের নিয়োগ কমিটিতে সংখ্যাগরিষ্ঠের মত আস্থানা এবং যোগেশের বিরুদ্ধে যায়।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement