BREAKING NEWS

১১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  রবিবার ২৯ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

পরিবেশ নিয়ে আলোচনায় পার্লামেন্টে বসবে খুদেরাই! বিশ্ব শিশু দিবসে অভিনব উদ্যোগ ভারতের

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: November 15, 2020 7:26 pm|    Updated: November 15, 2020 7:38 pm

An Images

ছবি: প্রতীকী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ছোটরা কি বলতে পারে না নাকি ওদের কথা গুরুত্ব দেওয়া হবে না? না, কোনওটাই নয়। বরং এই কঠিন পরিস্থিতিতে ওদের ভাবনা, বক্তব্যকে সামনে এনেই বিশ্ব শিশু দিবসকে (World Children’s Day) সার্থক করে তোলা যায়। সেভাবেই আগামী ২০ নভেম্বর কর্মসূচির ভাবনা ভেবেছে UNICEF. আর এতে ভারতের একটা বড় অবদান থাকছে। ওই দিন রাষ্ট্রপতি ভবন, সংসদ ভবন, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, কুতুব মিনার-সহ দেশের একাধিক ঐতিহ্যবাহী ভবন সেজে উঠবে নীল আলোয়। শিশু অধিকার রক্ষায় যে পরিকল্পনার নাম #GoBlue ক্যাম্পেন।

শিশুদের জন্য সংসদীয় কমিটির সঙ্গে হাত মিলিয়ে UNICEF’এর পরিকল্পনাটা বেশ অভিনব। কোভিড (COVID-19) পরিস্থিতিতে কেমন আছে শিশুরা, সমাধানে কী ভাবছে, ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে তাদের সমস্ত ভাবনা প্রকাশের সুযোগ করে দেওয়া হবে। ওইদিন ভারতের উপরাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নায়ডুর (Venkaiah Naidu) নেতৃত্বে একটি পার্লামেন্ট বসবে, যা পরিচালনা করবে শিশুরাই। আর নেতৃত্বে থাকবেন বেঙ্কাইয়া নায়ডু নিজে এবং ৩০ জন সাংসদ। আলোচনা হবে পরিবেশ বদল নিয়ে।

[আরও পডুন: বিহার বিজেপিতে অশান্তি! উপমুখ্যমন্ত্রী পদ নিয়ে ধোঁয়াশা]

UNICEF’এর এক সদস্যের কথায়, ”বাচ্চারা সেদিন মাস্ক পরে কর্মসূচিতে অংশ নেবে। কিন্তু তা বলে কি ওদের স্বর চাপা থাকবে? না, মাস্ক পরা থাকলেও ওরা মূক নয়। এবছর এটাই বিশ্ব শিশু দিবসের মূল নির্যাস।” তিনি আরও জানান, শিশুরা নিজেদের অধিকার প্রতিষ্ঠার দাবিতে ওই দিন একটি দাবিপত্র পেশ করবে। জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে তারা নিজেদের ভাবনা, পরিকল্পনা দিয়ে বড়দেরও সাহায্য করতে চায়।

[আরও পডুন: হ্যালের তথ্য হাতাতে ‘হানিট্র্যাপ’, সোশ্যাল মিডিয়ায় ভুয়ো অ্যাকাউন্ট বানাচ্ছে ISI]

এই অবদানের জন্য বিশ্ব শিশু দিবসে আরও এক প্রাপ্তি হবে ভারতের। ওইদিন রাষ্ট্রপতি ভবন, সংসদ ভবন, দিল্লির নর্থ ব্লক, সাউথ ব্লক, কুতুব মিনার-সহ সমস্ত ঐতিহ্যবাহী স্থান এবং সরকারের গুরুত্বপূর্ণ ভবনগুলিকে নীল আলোয় সাজিয়ে দেবে UNICEF. সবটাই হবে শুধুই ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য। গত ১৪ তারিখ ভারতে শিশু দিবস পালিত হয় তাদের প্রতি স্বাধীন ভারতের প্রথম প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহরুর প্রীতিকে স্মরণীয় করে রাখতে। তবে দেশে এই দিনটি উদযাপন করলেও, আন্তর্জাতিক স্তরেও যে ভারতের গুরুত্ব কতখানি, ২০ নভেম্বর বিশ্ব শিশু দিবসে অভিনব কর্মসূচি পালন করেই তা বুঝিয়ে দেবে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement