BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘পড়ুয়াদের প্রতি মানবিক হোন’, UGC’র নয়া নির্দেশিকা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন মমতার

Published by: Paramita Paul |    Posted: July 27, 2020 5:51 pm|    Updated: July 27, 2020 8:40 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাজ্য-রাজ্যপালের সংঘাতের জল গড়াল প্রধানমন্ত্রীর দরবার পর্যন্ত। সোমবার বিকেলে করোনা ল্যাব উদ্বোধনের আগে বাংলা, মহারাষ্ট্র ও উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকে বসেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi)। বক্তব্যের শুরুতেই নাম না করে রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Bannerjee)। এমনকী,  ওই বৈঠকে ইউজিসির সিদ্ধান্তহীনতাকেও তুলোধোনা করেন মুখ্যমন্ত্রী। পাশাপাশি, ছাত্রছাত্রীদের কথা মাথায় রেখে করোনা আবহে পরীক্ষা বাতিলের আবেদনও জানান তিনি। 

বৈঠকে ইউজিসির (UGC) বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেন মমতা। তিনি প্রধানমন্ত্রীকে জানান, ইউজিসি প্রথমে জানিয়েছিল স্নাতক ও স্নাতকোত্তরের চূড়ান্ত বর্ষের পড়ুয়াদের পরীক্ষা নেওয়া হবে না। পরে ফের নোটিস পাঠিয়ে পরীক্ষা নেওয়ার কথা বলা হয়। কিন্তু এমন পরিস্থিতিতে কীভাবে পরীক্ষা নেওয়া হবে জানতে চান মুখ্যমন্ত্রী। একইসঙ্গে তাঁর দাবি, “করোনা সংক্রমণ হু হু করে বাড়ছে। এখন পড়ুয়াদের একসঙ্গে বসিয়ে পরীক্ষা নেওয়া অসম্ভব। পড়ুয়ারাও পড়াশোনা করতে পারছে না। তাদের প্রতি মানবিক হওয়া দরকার।” তিনি মোদিকে আরও একবার মনে করিয়ে দেন যে এ বিষয় নিয়ে তিনি প্রধানমন্ত্রীকে চিঠিও লিখেছিলেন। কিন্তু কোনও জবাব আসেনি। তাই তাঁদের কথা মাথায় রেখে প্রধানমন্ত্রীর কাছে পরীক্ষা স্থগিত রাখার আবেদন জানান বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। প্রসঙ্গত, স্নাতক ও স্নাতকোত্তরের চূড়ান্ত পর্বের পরীক্ষা নিয়ে সুূপ্রিম কোর্টও ইউজিসির জবাব তলব করেছে। আগামী দুদিনের মধ্যে এ বিষয় চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আদালতকে জানাতে হবে। 

[আরও পড়ুন : ‘করোনা মোকাবিলায় কেউ কেউ অসহযোগী’, ঘুরিয়ে ধনকড়কে নিয়ে মোদিকে নালিশ মমতার]

এদিন বিভিন্ন ইস্যুতে নাম না করে রাজ্যপালের নামেও নালিশ জানান মমতা। বলেন, “করোনা মোকাবিলায় কেন্দ্র সহযোগিতা করছে। কিন্তু সাংবিধানিক পদে থেকেও অনেকে রাজ্যের কাজে বাধা দিচ্ছে। এই সময় সকলকে হাতে হাত মিলিয়ে লড়তে হবে। কিন্তু সরকারের কাজে বাধা সৃষ্টি করে অনেকে মজা পাচ্ছেন।” বলাবাহুল্য, রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের বিরুদ্ধে এর আগেও এই অভিযোগ করেছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু এভাবে প্রধানমন্ত্রীর সামনে প্রকাশ্যে বৈঠকে এহেন অভিযোগ একেবারে নজিরবিহীন বলেই দাবি করছে ওয়াকিবহাল মহল। ছাত্রছাত্রীদের পরীক্ষা নিয়েও রাজ্যপালের সঙ্গে বারবার রাজ্যের সংঘাত বেধেছে। এদিন সবটারই বহিঃপ্রকাশ হল প্রধানমন্ত্রীর সামনে। 

[আরও পড়ুন : একটি সম্প্রদায়ের জন্য ‘সংরক্ষণ’ করা হতে পারে করোনার প্রতিষেধক! ইঙ্গিত সেরাম কর্তার]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement