BREAKING NEWS

২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ২৩ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

দলে সোনিয়ার উত্তরসূরি কে? স্থির করতে জানুয়ারিতেই নির্বাচনের প্রস্তুতি কংগ্রেসের

Published by: Biswadip Dey |    Posted: October 16, 2020 4:22 pm|    Updated: October 16, 2020 4:24 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অন্তর্বর্তীকালীন কংগ্রেস সভানেত্রীর পদে তিনি আর থাকতে চান না, একথা এর আগেই জানিয়ে দিয়েছিলেন সোনিয়া গান্ধী (Sonia Gandhi)। এবার দলের নতুন সভাপতি ঠিক করতে প্রস্তুতি শুরু করে দিল কংগ্রেস (Congress)। মঙ্গলবার এক বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে সাংগঠনিক নির্বাচনের বিষয়ে। কংগ্রেসের সদর দপ্তরে হওয়া ওই বৈঠকের নেতৃত্ব দেন মধুসূদন মিস্ত্রি। এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের সূত্রানুসারে সব কিছু ঠিক থাকলে ২০২১ সালের গোড়াতেই নতুন সভাপতির নির্বাচন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে। সম্ভবত জানুয়ারি মাসেই। কেবল সভাপতি নন, নতুন কার্যকরী কমিটির সদস্যরাও নির্বাচিত হবেন।

গত আগস্টেই ২৩ জন কংগ্রেস নেতা একটি চিঠিতে দলের উপর থেকে নীচ সব পদের সাংগঠনিক নির্বাচনের দাবি জানান। বাকি ‌নেতাদের সঙ্গে তাঁদের উত্তপ্ত বাদানুবাদ হয়। সোনিয়া গান্ধী এরপরই জানিয়ে দিয়েছিলেন, আগামী ছ’মাসের মধ্যে সভাপতি ন‌ির্বাচনের প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হয়ে যাওয়া উচিত। কংগ্রেসের নিয়ম অনুযায়ী, কার্যকরী কমিটির ১১ জন সদস্যকে নির্বাচিত করা হয়। বাকি ১২ জনকে মনোনীত করেন দলের সভাপতি। সারা দেশের কংগ্রেস সদস্যদের মধ্যে থেকে এই ক’জনকে নির্বাচিত করা রীতিমতো কঠিন এক প্রক্রিয়া।

[আরও পড়ুন: সৈনিককে প্রাপ্য সম্মান! পাক আর্মি অফিসারের জীর্ণ সমাধিস্থল পুনর্নির্মাণ করল ভারতীয় সেনা]

গত ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ব্যর্থতার সব নৈতিক দায় নিজের ঘাড়ে নিয়ে পদত্যাগ করেছিলেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী। এরপর থেকে দলের অন্তর্বর্তী সভাপতির দায়িত্ব সামলাচ্ছেন সোনিয়া গান্ধী। রাহুল আগে জানিয়েছিলেন, তিনি আর সভাপতি হতে চান না। তাঁর ইচ্ছা, গান্ধী পরিবারের বাইরে কাউকে দলের সভাপতির দায়িত্ব দেওয়া হোক। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে সভাপতি পদে রাহুলের প্রত্যাবর্তনের সম্ভাবনাকে উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। কেননা সাম্প্রতিক দলীয় সিদ্ধান্তের ক্ষেত্রে রাহুল ঘনিষ্ঠ নেতাদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে দেখা যাচ্ছে। সেই থেকেই জল্পনা শুরু হয়েছে, আবারও সভাপতির পদে ফিরতে পারেন রাহুল গান্ধী।

[আরও পড়ুন: প্রকাশ্যে যুবককে গুলি করে খুন বিজেপি বিধায়ক ঘনিষ্ঠের! ফের প্রশ্নের মুখে উত্তরপ্রদেশের আইনশৃঙ্খলা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement