BREAKING NEWS

১৯ ফাল্গুন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ৪ মার্চ ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘করোনার শেষের শুরু’, দেশজুড়ে টিকাকরণ প্রক্রিয়ার সূচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: January 16, 2021 10:51 am|    Updated: January 16, 2021 11:10 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অপেক্ষার অবসান। দেশজুড়ে করোনার টিকাকরণের সূচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi)। এদিন সকাল সাড়ে দশটায় ভারচুয়ালি বিশ্বের সবচেয়ে বড় টিকাকরণ (Vaccination) প্রক্রিয়ার সূচনা করেন প্রধানমন্ত্রী। প্রথম দিন দেশের প্রায় ৩ হাজার কেন্দ্রে ৩ লক্ষ স্বাস্থ্যকর্মীকে এই টিকা দেওয়া হবে। সেরাম ইনস্টিটিউটের কোভিশিল্ড এবং ভারত বায়োটেকের কোভ্যাক্সিন, দুটি টিকাই দেওয়া হবে স্বাস্থ্যকর্মীদের। তবে, টিকা নেওয়ার সময় তা বাছাই করার সুযোগ পাবেন না গ্রহীতারা। 

এদিন করোনার টিকাকরণের সূচনা করে প্রধানমন্ত্রী এত কম সময়ের মধ্যে দেশের ভারতের মাটিতে জোড়া টিকা (Corona Vaccine) তৈরির জন্য বিজ্ঞানীদের সাধুবাদ দেন। তিনি বলেন, এমনিতে যে কোনও টিকা তৈরিতে বছরের পর বছর সময় লেগে যায়। কিন্তু করোনার ক্ষেত্রে তা খুব কম সময়ে তৈরি হয়েছে। এটাই ভারতের সামর্থ্য, প্রতিভা এবং বৈজ্ঞানিক গবেষণার জলজ্যান্ত উদাহরণ। এর পিছনে গবেষকদের নিরলস পরিশ্রমের কথা তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, দেশের চিকিৎসক এবং গবেষকরা দিনের পর দিন যেভাবে পরিশ্রম করেছেন, এটা তারই ফলশ্রুতি।

[আরও পড়ুন: টিকাকরণ শুরুর দিনও করোনাজয়ীদের ভ্যাকসিন দেওয়া নিয়ে বিভ্রান্তি! সন্দিহান চিকিৎসকরাই]

এদিন মোদি বলেন, ভারত এত বড় টিকাকরণের সুচনা করছে, যা এর আগে বিশ্বের কোনও দেশ কখনও করেনি। প্রথম দফাতেই স্বাস্থ্যকর্মী, করোনাযোদ্ধা এবং ফ্রন্টলাইন ওয়ার্কারদের বিনামূল্যে টিকা দেওয়া হবে। পরবর্তী পর্যায়ে বেশি বয়সি এবং জটিল রোগে আক্রান্ত মোট ৩০ কোটি মানুষকে টিকা দেওয়া হবে। যা ভারতের সামর্থ্যের কথাই তুলে ধরে। প্রধানমন্ত্রী আশ্বস্ত করেন, ধাপে ধাপে প্রত্যেক দেশবাসীই টিকা পাবেন।

[আরও পড়ুন: টিকাকরণ শুরুর দিনই দেশের করোনা পরিসংখ্যানে স্বস্তি, অনেকটা কমল দৈনিক মৃতের সংখ্যা]

প্রধানমন্ত্রী এদিন আরও একবার স্পষ্ট করে দেন, দেশের মাটিরে তৈরি দুটি ভ্যাকসিনই সম্পূর্ণ নিরাপদ। এবং এই ভ্যাকসিন নিয়ে কোনওপ্রকার গুজবে কান না দিয়ে সবার তা নেওয়া উচিত। প্রধানমন্ত্রী জানিয়ে দেন, করোনার বিরুদ্ধে আমাদের লড়াই, আত্মবিশ্বাস এবং আত্মনির্ভরতার। এই লড়াইয়ে আমাদের আত্মবিশ্বাস হারানো চলবে না। এই ভ্যাকসিনই আমাদের করোনা যুদ্ধে জেতাবে। তবে ভ্যাকসিন পেলেও যে করোনা বিধি ভুলে গেলে চলবে না, তা এদিন আরও একবার মনে করিয়ে দেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি দেশবাসীর কাছে অনুরোধ করেন, “টিকাকরণ শুরুর পরও শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখুন, এবং মাস্ক পরুন। দয়া করে এটা ভুলবেন না। টিকা পেয়ে গেলেন মানেই এটা নয় যে, আমরা করোনা থেকে বাঁচার অন্য সব পন্থা ভুলে যাব।” এবার দেশবাসীকে নয়া শপথ নিতে অনুরোধ করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, এখন থেকে আমাদের মনে রাখতে হবে,”দাওয়াই ভি, কড়াই ভি।” অর্থাৎ, ভ্যাকসিনের পাশাপাশি সাবধানতাও অবলম্বন করতে হবে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement