৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৪ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

টানা ৩৫ দিন দেশে দৈনিক সংক্রমণের থেকে বেশি করোনাজয়ীর সংখ্যা, কমছে অ্যাক্টিভ কেস

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: November 7, 2020 9:59 am|    Updated: November 7, 2020 10:01 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দেশের কোনও কোনও রাজ্যে করোনার দ্বিতীয় ধাক্কার ইঙ্গিত পাওয়া গেলেও স্বস্তি দিচ্ছে ধারাবাহিকভাবে বাড়তে থাকা করোনাজয়ীর সংখ্যা। গত ৩৫ দিন ধরে টানা দেশের দৈনিক নতুন করোনা আক্রান্তের থেকে বেশি করোনা রোগী এই মারণ রোগকে জয় করে বাড়ি ফিরছেন। যার ফলে করোনার অ্যাক্টিভ কেস অর্থাৎ চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা লাগাতার কমছে। এই মুহূর্তে দেশের মোট আক্রান্ত ৮৫ লক্ষের কাছাকাছি হলেও অ্যাক্টিভ কেস মাত্র ৫ লক্ষের কাছাকাছি, যা বড়সড় স্বস্তির খবর। আবার উদ্বেগের খবরও আছে। দিল্লি, বাংলা-সহ কয়েকটি রাজ্যে করোনার নতুন সংক্রমণ এখনও লাগামছাড়া। গতকালই প্রথমবার ৭ হাজারের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন দিল্লিতে। সার্বিকভাবে গোটা দেশে এখনও প্রায় ৫০ হাজার মানুষ দৈনিক এই রোগের কবলে পড়ছেন।

শনিবার সকালে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের (Ministry of Health and Family Welfare) দেওয়া পরিসংখ্যান বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৫০ হাজার ৩৫৭ জন করোনা (Coronavirus) আক্রান্ত হয়েছেন। যা আগের দিনের থেকে প্রায় ৩ হাজার বেশি। ফলে দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮৪ লক্ষ ৬২ হাজার ৮১ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে মৃতের সংখ্যাটা অবশ্য খানিকটা কমেছে। স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের দেওয়া পরিসংখ্যান অনুযায়ী, এদিন দেশে মৃত্যু হয়েছে ৫৭৭ জনের। ফলে দেশে মোট মৃত্যু হল বেড়ে দাঁড়াল ১ লক্ষ ২৫ হাজার ৫৬২ জন।

[আরও পড়ুন: কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় খোলার নতুন গাইডলাইন দিল UGC, খুলতে পারে হস্টেলও]

গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৫৩ হাজার ৯২০ জন। যা আগের দিনের তুলনায় সামান্য কম। নতুন দৈনিক আক্রান্ত এবং দৈনিক করোনাজয়ীর সংখ্যার মধ্যে ব্যবধান প্রায় ৪ হাজার। এই মুহূর্তে দেশে মোট করোনাজয়ীর সংখ্যা ৭৮ লক্ষ ১৯ হাজার ৮৮৭ জন। চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা কমে দাঁড়িয়েছে ৫ লক্ষ ১৬ হাজার ৬৩২ জন।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement