BREAKING NEWS

১ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

লকডাউনে ফাঁকা রেল আবাসন, গৃহস্থের বাড়িতে দিব্যি সংসার পাতল চোর

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: April 18, 2020 4:18 pm|    Updated: April 18, 2020 10:00 pm

An Images

সুব্রত বিশ্বাস: করোনা আতঙ্কে যখন আতঙ্কিত গোটা বিশ্ব, তখন অতি সক্রিয় হয়ে উঠেছে এক শ্রেণির চোর। লকডাউনের জেরে বহু রেলকর্মী রেল অবাসনে তালা ঝুলিয়ে নিজেদের বাড়ি চলে যাওয়ায় ফাঁকা অবাসনকে টার্গেট করেছে চোরেরা। লোক না থাকায় নির্বিঘ্নে তালা ভেঙে চুরি করছে তারা। লকডাউনে এহেন পরিস্থিতিতে রীতিমতো তটস্থ পুলিশ। আরপিএফকে এনিয়ে সতর্ক করেছে রেলবোর্ড। লকডাউনকে অস্ত্র করে এই চুরির অসংখ্য ঘটনা সামনে এসেছে। ওয়েস্ট সেন্ট্রাল রেলের কোটা ডিভিশনে নিউ রেল কলোনির বন্ধ আবাসন থেকে চোর ধরা পড়ার পর বিষয়টি নিয়ে উদ্বিগ্ন রেল আধিকারিকরা।

[আরও পড়ুন: এবার করোনার থাবা সেন্ট্রাল মেডিক্যাল স্টোরে, বেলেঘাটা আইডিতে ভরতি স্বাস্থ্যকর্তা]

শুক্রবার নিউ রেল কলোনি গার্ডেন এলাকার একটি বন্ধ আবাসনের ভিতর নানা শব্দ ও কথা শুনতে পাওয়ায় পর অন্য আবাসিকদের সন্দেহ হওয়ায় তাঁরা স্থানীয় রেল কলোনি থানায় বিষয়টি জানান। পুলিশ এসে আবাসনের ভিতর থেকে দরজা বন্ধ দেখে ডাকাডাকি করে সারা না পাওয়ায় দরজা ভেঙে ফেলে। এরপর শৌচালয়ের ভিতর থেকে এক ব্যক্তিকে পাকড়াও করে। পুলিশের জেরায় ধৃত ব্যক্তি স্বীকার করে, লকডাউনের সুযোগে কুড়ি দিন ধরে সে ওই আবাসনে রয়েছে। আবাসিকের রান্নাঘরে রান্না করছে, ফ্রিজে খাবার, জল সব রেখে বহাল তবিয়তে দিন কাটাচ্ছে। রাতে নিশ্চিন্তে চুরি করেছে। লকডাউনের কুড়ি দিনে বন্ধ আবাসন ১৬৩ এ, ৪৩৯ বি, ওয়ার্কশপ আবাসন ২২৮ সি-সহ রেলকর্মী রামপ্রসাদ মিনা ও দীনেশ মিনার আবাসনে চুরি করেছে সে। পুলিশ ধৃত চোরের থেকে প্রচুর চোরাই সামগ্রী উদ্ধার করেছে।

এদিকে, বিষয়টি জানাজানি হতেই কর্মীদের মধ্যে চাঞ্চল্য ছড়ায়। দেশজুড়ে রেলের আবাসনগুলিকে সুরক্ষিত রাখতে আরপিএফকে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। কারণ করোনা আতঙ্কে লকডাউনে বহু রেলকর্মী আবাসন বন্ধ করে বাড়ি চলে গিয়েছে। পাশাপাশি আবাসন চত্বর শুনশান হওয়ায় চোরেরা সুযোগ খুঁজছে।

[আরও পড়ুন: করোনা ‘যুদ্ধে’ শামিল অস্ত্র কারখানাও, তাঁবুই হচ্ছে ‘কোয়ারেন্টাইন সেন্টার’]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement