BREAKING NEWS

১৬ মাঘ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ৩১ জানুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

খুনের পর শ্রদ্ধার হাত থেকে খোলা আংটি পরিয়েছিল নতুন বান্ধবীকে, প্রকাশ্যে আফতাবের কুকীর্তি

Published by: Paramita Paul |    Posted: November 28, 2022 4:13 pm|    Updated: November 28, 2022 4:13 pm

Delhi murder: Aftab gave Shraddha's ring to another girlfriend | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দিল্লির শ্রদ্ধার ওয়ালকার (Delhi Sraddha Murder) হত্যাকাণ্ডে প্রেমিক আফতাব পুনাওয়ালার চরিত্র ভাবাচ্ছে দিল্লি পুলিশকে। প্রেমিকাকে খুন করে তার হাত থেকে আংটি খুলে উপহার দিয়েছিল নতুন বান্ধবীকে। তাও আবার খুনের পর নিজের ফ্ল্যাটে ডেকে এনে নতুন বান্ধবীর হাতে আংটি পরিয়ে দিয়েছিল সে। দিল্লি পুলিশের তদন্তে এমনই চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এসেছে।

শ্রদ্ধা ওয়ালকার খুনেক পরতে পরতে নয়া রহস্য। রহস্য বাড়াচ্ছে প্রেমিক আফতাব পুনাওয়ালার চরিত্রও। পুলিশি তদন্তে জানা গিয়েছে, দেহ থেকে শ্রদ্ধার মাথা কেটে নেওয়ার পর তাঁর মাথা কামিয়ে দিয়েছিল আফতাব। কাটা চুল ফেলেছিল ছতরপুর জঙ্গলে। প্যাকেটবন্দি গোছা-গোছা সেই চুল উদ্ধার করে ডিএনএ পরীক্ষা করেছে দিল্লি পুলিশ। এর মাঝেই তদন্তে উঠে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য।

[আরও পড়ুন: ‘পঞ্চায়েত নির্বাচনে তৃণমূল জিতবে’, আদালতে ঢোকার আগেও আত্মবিশ্বাসী পার্থ]

আফতাবের নতুন বান্ধবীকে জেরা করেছে দিল্লি পুলিশ। জানা গিয়েছে, শ্রদ্ধাকে খুন করার পর তাঁকে নিজের ফ্ল্যাটে নিয়ে গিয়েছিল আফতাব। সেখানে তাঁর আঙুলে পরিয়ে দিয়েছিল একটি আংটি। সেটি ছিল শ্রদ্ধার। খুনের পর তাঁর হাত থেকে খুলে নিয়েছিল আফতাব। আংটিটি শনাক্ত করেছেন শ্রদ্ধার বাবা বিকাশ ওয়ালকার। তিনি জানিয়েছেন, জন্মদিনে মেয়েকে আংটি উপহার দিয়েছিলেন তিনি। স্বাভাবিকভাবেই এই আংটি ও আফতাবের বান্ধবীর বয়ান এই মামলায় যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ হয়ে দাঁড়াল।

২০২০ সালে মহারাষ্ট্রের (Maharashtra) ভেসাই শহরতলিতে একটি ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়ে থাকতেন শ্রদ্ধা-আফতাব। ওই বছর ২৩ নভেম্বরে পুলিশকে লেখা চিঠিতে শ্রদ্ধা অভিযোগ করেন, আফতাব তাঁকে মারধর করে। আফতাবের পরিবারও এই বিষয়ে জানে। খুনের তদন্তে নেমে ওই চিঠির কথা জানতে পেরেছে দিল্লি পুলিশ। যেখানে শ্রদ্ধা জানিয়েছিল, আফতাব তাঁকে কেটে টুকরে করে ফেলবে বলে হুমকি দিয়েছিল। শ্রদ্ধার অভিযোগ পেয়ে ভাসাই পুলিশ কী ব্যবস্থা নিয়েছিল তাও খতিয়ে দেখছেন দিল্লির তদন্তকারীরা।

[আরও পড়ুন: রাজনীতির কারাগারে ‘বন্দি’ জাতির জনক, গুজরাটে ভোটের আগে ক্ষোভে ফুঁসছে সবরমতী]

১৮ মে দিল্লির মেহেরৌলিতে প্রেমিকা শ্রদ্ধা ওয়াকারকে খুন করে তাঁর প্রেমিক তথা লিভ-ইন সঙ্গী আফতাব আমিন পুনাওয়ালা। খুনের পর শ্রদ্ধার দেহ ৩৫টি টুকরো করে আফতাব। এরপর দিল্লি শহরের বিভিন্ন জায়গায় তা ফেলতে থাকে সে। আফতাবকে ভালবেসে পরিবার, চাকরি, শহর ছেড়ে দিল্লিতে চলে এসেছিল তরুণী। যদিও তাঁর পরিণতি হয় মর্মান্তিক

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে