BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

দিল্লিতে একদিনে সর্বোচ্চ সংক্রমণ, করোনা আক্রান্ত ২৪১৪ জন

Published by: Paramita Paul |    Posted: June 17, 2020 8:23 am|    Updated: June 18, 2020 8:43 am

An Images

ভারতে আনলক ওয়ান শুরু হওয়ার পর থেকে করোনা সংক্রমণের নিত্যনতুন রেকর্ড গড়ছে। ফলে আনলক টু নিয়ে বাড়ছে অনিশ্চয়তা।  দেশে আক্রান্তের সংখ্যা ৩ লক্ষ ৫৪ হাজার ৬৫। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ১১ হাজার ৯০৩ জনের। বাংলায় করোনা আক্রান্ত  ১২,৩০০ জন। এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৫০৬ জনের। করোনা সংক্রান্ত সমস্ত আপডেট: 

রাত ১০.৩২: একদিনে দিল্লিতে সর্বোচ্চ সংক্রমণ। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ২৪১৪ জন। মৃত্যু হয়েছে ৬৭ জনের।

রাত ৯.৪৮:  প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা আরজেডি নেতা করোনা আক্রান্ত। তিনি হাসপাতালে ভরতি রয়েছেন।

রাত ৯.০১: আমেরিকা, আফ্রিকা, দক্ষিণ এশিয়ার ৪ লক্ষ ৩৫ হাজারেরও বেশি মানুষ করোনায় মারা গিয়েছেন, বলছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ডিরেক্টর জেনারেল।

সন্ধে ৭.৪৫: দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈন করোনা আক্রান্ত।

সন্ধে ৭.১৫: হাওড়া সিটি পুলিশের পর এবার হাওড়ার গ্রামীণ পুলিশ করোনা সংক্রমণ। হাওড়া গ্রামীণ পুলিশের ২০ জন আক্রান্ত হয়েছেন করোনাতে। তার মধ্যে জগৎবল্লভপুর থানার ১১ জন পুলিশ কর্মী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্ত পুলিশ কর্মীদের মধ্যে ২ জন এএসআই ও ৯ জন কনস্টেবল। আক্রান্ত পুলিশ কর্মীরা বর্তমানে ফুলেশ্বরের সঞ্জীবন কোভিড হাসপাতালে ভরতি। 

সন্ধে ৭.১৪: গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে করোনা আক্রান্ত ৩৯১ জন। মোট করোনা আক্রান্ত  ১২,৩০০ জন। একদিনে  মৃত্যু হয়েছে ১১ জনের। মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৫০৬ জন।

সন্ধে ৬.৩৭:  শিলিগুড়ির পুরনিগমের প্রশাসক বোর্ডের চেয়ারম্যান অশোক ভট্টাচার্য করোনা আক্রান্ত। তাঁকে ফোন করে শরীরের হাল-হকিকত জানতে চাইলেন রাজ্যের পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। বুধবার সন্ধেয় পুরভবন থেকে বসে তিনি অশোক ভট্টাচার্যকে ফোন করেন। শরীর কেমন আছে? রিপোর্টে কি বলা হয়েছে? এই ধরনের একাধিক বিষয়ে তিনি জানতে চান। অশোকবাবু তাঁকে যাবতীয় তথ্য দেন।

সন্ধে ৬.০০: মুচিবাজার ব়্যানডম টেস্টে ১০০ জনের মধ্যে ৫ জন করোনা পজিটিভ ধরা পড়েছেন। রামকৃষ্ণ মিশন শিশু হাসপাতালে আজ আরও ৪ জন আক্রান্ত হয়েছেন। রোগী , কর্মচারী, মিলিয়ে এখনও পর্যন্ত মোট৫৬জন আক্রান্ত হল। ফোর্ট উইলিয়াম ১৮, বাগবাজার একটি বসতিতে ১৬ জন করোনা আক্রান্ত। 

বিকেল ৫.৪0: সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে কত কোভিড বেড ফাঁকা আছে তা নিয়মিত জানাতে হবে। জানালেন মুখ্যমন্ত্রী।

বিকেল ৫.১০: রাজ্যে সাড়ে তিন লক্ষ টেস্ট হয়েছে। সাংবাদিক বৈঠকে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

বিকেল ৪.২০: আপের তিন বিধায়ক করোনা আক্রান্ত। তার মধ্যে দিল্লির অতিশী. বিশেষ রবি ও রাজকুমার আনন্দ  সংক্রমিত। 

বিকেল ৪.০০: এবার রেলের কয়লাঘাট দফতরে করোনার থাবা। আক্রান্ত এক প্রবীণ কমার্শিয়াল ক্লার্ক। পজিটিভ রিপোর্ট পাওয়ামাত্র তাঁর সংস্পর্শে আসা চোদ্দো জন আধিকারিক ও ক্লার্ককে হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠিয়েছে দক্ষিণ পূর্ব রেল। 

দুপুর ৩.৩৭: করোনা পরিস্থিতি নিয়ে বলতে শুরু করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। দেশে চিকিৎসা পরিকাঠামো উন্নত হয়েছে। আরও বাড়াতে হবে।

দুপুর ৩.১৫: দিল্লির বিধায়ক অতীশি করোনা পজিটিভ।

দুপুর ৩.০০: আবারও রাজনৈতিক মহলে করোনার থাবা। এবার আক্রান্ত শিলিগুড়ি পুরনিগমের প্রশাসক বোর্ডের চেয়ারম্যান তথা বিধায়ক অশোক ভট্টাচার্য। মাটিগাড়ার কোভিড হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে তাঁকে।

দুপুর ১.৩০: দিল্লিতে রেলের ৫০৯ টি কোচে তৈরি হচ্ছে আইসোলেশন বেড। জানালেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

বেলা ১২.৫০: নবান্নে ফের করোনার থাবা। এবার আক্রান্ত ঠিকা সাফাই কর্মী। তিনি রাজারহাট কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে ছিলেন। তাঁর উপসর্গ দেখা দেওয়ায় সেখানে রাখা হয়েছিল। মঙ্গলবার রাতে লালারস পরীক্ষাৈর রিপোর্ট আসে। প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেই করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন নবান্নের কয়েকজন গাড়ি চালক।

সকাল ১১.৫০: করোনা চিকিৎসায় স্ট্রিকনিন ব্যবহারে উপকার মিলছে। চিকিৎসার গইডলাইনসে পরিবর্তন আনছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO)।

সকাল ১১.১৫: দেশের ডাক্তারদের দ্রুত বেতন মেটাতে হবে। এ নিয়ে বৃহস্পতিবারের মধ্যে কেন্দ্রকে নির্দেশিকা দেওয়ার নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট।

সকাল ১১.০০: আজ থেকে ফের বন্ধ নগর দায়রা আদালত ও ব্যাঙ্কশাল কোর্ট।

সকাল ১০.৩০: প্রধানমন্ত্রীর করোনা বৈঠকে হাজির থাকবেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং-ও। 

সকাল ৯.৪৫ : বকখালিতে এখনই খুলছে না হোটেল।

সকাল ৯.৩৭: গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে রেকর্ড মৃত্যু। রাতারাতি মৃত্যু হয়েছে ২০০৩ জনের। ফলে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১১,৯০৩ জন। নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১০,৯৭৪ জন। ফলে দেশে সংক্রমিতের সংখ্যা বেড়ে ৩,৫৪,০৬৫ জন।

সকাল ৯.০০: নাগাল্যান্ডে গত ২৪ ঘণ্টায় দুজন আক্রান্তের হদিশ মিলল। ফলে সে রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৭৮ জন।

সকাল ৮. ৫০: গত ২৪ ঘণ্টায় মিজোরামে নতুন করে আক্রান্তের খবর নেই। সে রাজ্যের সংক্রমিতের সংখ্যা ১২১। কোনও মৃত্যু নেই।

সকাল ৮.৩০: অন্তত এক হাজার বিমান বাতিল করল বেজিং।

সকাল ৮.১৫: বন্দে ভারত মিশনে নিউজিল্যান্ড, অকল্যান্ড থেকে দেশে ফিরছেন ২১৭ ভারতীয়।

সকাল ৮.১০: বেজিংয়ে আক্রান্ত আরও ৩১ জন। বাড়ছে আতঙ্ক।

সকাল ৮.০০: ভারতে মৃতের সংখ্যা অনেকটাই বাড়ল। সূত্রের খবর বলছে, মঙ্গলবার দেশে আরও দুহাজার জনের মৃত্যু হয়েছে।  যার অধিকাংশই মহারাষ্ট্র ও দিল্লিতে। ফলে এক লাফে ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুর হার বেড়ে দাঁড়াল ২০ শতাংশ।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement