৩১ ভাদ্র  ১৪২৬  বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অবৈধ অভিবাসীদের জন্য বন্দি শিবির বা ডিটেনশন সেন্টার তৈরি হবে নভি মুম্বইয়ে। শনিবার ‘মুম্বই মিরর’ পত্রিকায় একটি প্রতিবেদনে এই খবর প্রকাশিত হওয়ার পর চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে বাণিজ্য নগরীতে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মহারাষ্ট্র স্বরাষ্ট্র দপ্তরের এক উচ্চপদস্থ আধিকারিককে উদ্ধৃত করে খবরটি প্রকাশিত হয়েছে। তাতে বলা হয়েছে, জুলাই মাসেই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক রাজ্য সরকারগুলিকে নির্দেশ দিয়েছিল নির্দিষ্ট জায়গা জুড়ে পাকা উঁচু দেওয়াল ঘেরা ডিটেনশন সেন্টার তৈরি করার।

[আরও পড়ুন: ১০০ দিনে কোনও বিকাশ নেই! মোদি সরকারকে কটাক্ষ রাহুল গান্ধীর]

ভারতে বসবাসকারী বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারী-সহ বিভিন্ন দেশের অবৈধ বাসিন্দাদের চিহ্নিত করে ওই ডিটেনশন সেন্টার বা বন্দি শিবিরে রাখা হবে কড়া নজরদারির মধ্যে। যাতে ওই সব অবৈধ অভিবাসী পালিয়ে গিয়ে সমাজের মূল স্রোতে মিশে যেতে না পারে। এই ধরনের বিশাল বন্দি শিবির তৈরি করকে নভি মুম্বইয়ে জমি চিহ্নিত করেছে মহারাষ্ট্র সরকার। মহারাষ্ট্রে লক্ষাধিক বাংলাদেশি অবৈধভাবে বসবাস করছে কয়েক দশক ধরে। রয়েছে। এদের চিহ্নিত করে বন্দি শিবিরে রাখা হবে।

এদিকে, দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলকে বিশেষ মর্যাদা প্রদানকারী ৩৭১ ধারায় সরকার হস্তক্ষেপ করবে না বলে সেখানকার বাসিন্দাদের আশ্বস্ত করেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। রবিবার গুয়াহাটিতে উত্তর-পূর্ব কাউন্সিলের ৬৮তম পূর্ণাঙ্গ অধিবেশনে শাহ বিষয়টি ব্যাখ্যা করে বলেন, প্রকৃতপক্ষে ৩৭০ ধারা অস্থায়ী। কিন্তু ৩৭১ ধারা উত্তর-পূর্বাঞ্চলকে বিশেষ মর্যাদা দিতে। দু’টি ধারার মধ্যে অনেক পার্থক্য। কেন্দ্র সরকার জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা প্রদানকারী ৩৭০ ধারা রদের পর থেকেই উত্তর-পূর্বাঞ্চলের ৩৭১ ধারা রদের আশঙ্কা করা হচ্ছিল বিভিন্ন মহল থেকে। এদিন অমিত শাহ তেমন সম্ভাবনা সম্পূর্ণভাবে নস্যাৎ করে দিয়েছেন।

উল্লেখ্য, অসমে চূড়ান্ত নাগরিকপঞ্জি প্রকাশের পর এই প্রথম সেই রাজ্যে সফরে এলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। শাহ এদিন বলেন, “জম্মু ও কাশ্মীরের ৩৭০ ধারা বাতিলের পর থেকে উত্তর-পূর্বাঞ্চলের মানুষকে ভুল তথ্য দিয়ে বিভ্রান্ত করা হচ্ছে এই বলে যে, এবার কেন্দ্র ৩৭১ ধারাও বাতিল করে দেবে। আমি সংসদেও বিষয়টি স্পষ্ট করেছি এমন কিছু ঘটবে না। উত্তর-পূর্বের আট রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের উপস্থিতিতে আজ আবার বলছি, কেন্দ্র ৩৭১ ধারায় হস্তক্ষেপ করবে না।”

অসমে নাগরিকপঞ্জি থেকে ১৯ লক্ষ লোকের নাম বাদ গিয়েছে। তিনি আসার আগে অসমকে আগামী ছ’মাসের জন্য ‘অশান্ত অঞ্চল’ বলে ঘোষণা করা হয়েছে। দু’দিনের সফরে শাহ উত্তর-পূর্ব কাউন্সিলের সঙ্গে বৈঠক করবেন। সেখানে নাগরিকপঞ্জি প্রকাশের পরবর্তী পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা হবে। তাছাড়া আজ, সোমবার বিজেপির নেতৃত্বাধীন ‘নর্থ-ইস্ট ডেমোক্র্যাটিক’ জোটের সঙ্গে বৈঠকও করবেন তিনি। উত্তর-পূর্ব ভারতের উন্নয়ন তথা এই অঞ্চলের রাজ্যগুলির উন্নয়ন এবং যোগাযোগ স্থাপনের দায়িত্বে রয়েছে এনইসি। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হওয়ার পর এই প্রথম অমিত শাহ উত্তর-পূর্ব ভারতের কোনও রাজ্যে সফরে এলেন। শক্তিপীঠ কামাখ্যা দর্শনেও যাওয়ার কথা তাঁর।

[আরও পড়ুন: জেএনইউ’তে ফের লাল ঝান্ডার দাপট, ছাত্র সংসদ দখল বাম জোটের]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং