১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

বিরিয়ানি না পেয়ে রেস্তরাঁ কর্মীদের বেধড়ক মারধর ডিএমকে নেতাদের

Published by: Sayani Sen |    Posted: August 2, 2018 2:22 pm|    Updated: August 2, 2018 2:22 pm

DMK leaders beat up restaurant staff

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিনামূল্যে বিরিয়ানি দিতে চাননি দুই রেস্তরাঁ কর্মী৷ সেই ‘অপরাধে’ রেস্তরাঁয় ঢুকে ওই দুই কর্মীকে বেধড়ক মারধর করল দুজন ডিএমকে নেতা৷ ওই ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হওয়ায় অস্বস্তিতে দলীয় নেতৃত্ব৷ দলের সিদ্ধান্তে সাসপেন্ড করা হয়েছে ওই দুই ডিএমকে নেতাকে৷  

[ভারতীয় সেনার পরিকাঠামো উন্নয়নে ৭২ কোটি টাকা বরাদ্দ কেন্দ্রর]

২৮ জুলাই যুবরাজ ও সালেম আর আর আনবু নামে দুই ডিএমকে নেতা তামিলনাড়ুর ভিরুগাবাক্কাম এলাকায় একটি রেস্তরাঁয় যায়৷ কর্মীরা বলেন রেস্তরাঁ বন্ধ হয়ে গিয়েছে৷ কিন্তু রেস্তরাঁ কর্মীদের কথা না শুনে বিরিয়ানি চাইতে থাকে যুবরাজ ও সালেম৷ পকেটের একটি পয়সাও খরচ না করেই বিরিয়ানি খাওয়ায় ‘আবদার’ করতে থাকে দুই ডিএমকে নেতা৷ ডিএমকে নেতাদের প্রস্তাবে রাজি হননি রেস্তরাঁ কর্মীরা৷ এরপরই যুবরাজ ওই রেস্তরাঁর ক্যাশ কাউন্টারে বসে এক থাকা এক কর্মী-সহ দুজনকে মারধর করতে শুরু করে৷ কিল, চড় ও ঘুসি মারতে শুরু করে তারা৷ মারধরের হাত থেকে বাঁচাতে এসে রেস্তরাঁর আরও বেশ কয়েকজন কর্মীও এই গন্ডগোলে জড়িয়ে পড়েন৷ ডিএমকে নেতাদের দাদাগিরির ঘটনা রেস্তরাঁর সিসি ক্যামেরাবন্দি হয়ে রয়েছে৷

[বাড়ির পিছনের গর্তে উদ্ধার একই পরিবারের ৪ জনের দেহ, কালাজাদুর আশঙ্কা পুলিশের]

আপাতত ডিএমকে দুই নেতার দাদাগিরির ঘটনা নেটদুনিয়ায় ভাইরাল৷ বর্তমানে অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে ডিএমকে সুপ্রিমো এম করুণানিধির৷ তারই মাঝে এই ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ায় বেজায় অস্বস্তিতে দলীয় নেতৃত্ব৷ এই দাদাগিরির ঘটনা সামনে আসতেই চাপের মুখে পড়ে দলের তরফে যুবরাজ ও সালেমকে সাসপেন্ড করা হয়েছে৷ যদিও দলীয় নেতৃত্বের বক্তব্য, রেস্তরাঁ কর্মীদের সঙ্গে অভব্য অত্যাচারের জন্যই এই সিদ্ধান্ত৷ যুবরাজ ও সেলিম যা করেছে তা কোনওভাবেই সমর্থনযোগ্য নয় বলে টুইটও করেন এমকে স্টালিন৷ টুইটে তিনি আরও উল্লেখ করেন, দুজনের বিরুদ্ধে কঠোর আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে৷  

[তৃণমূলের প্রতিনিধিদের কড়া নজরদারিতে রাখতে অসমে গঠিত বিশেষ দল]

রেস্তরাঁ কর্তৃপক্ষের তরফে স্থানীয় থানায় যুবরাজ ও সালেমের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে৷ তবে ঘটনার পর থেকেই গা ঢাকা দিয়েছে অভিযুক্তরা৷ খুব শীঘ্রই তাদের গ্রেপ্তার করা হবে বলেই আশ্বাস পুলিশের৷ প্রহৃত রেস্তরাঁ কর্মীদের চিকিৎসা চলছে৷   

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে