BREAKING NEWS

৫ মাঘ  ১৪২৮  বুধবার ১৯ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

চিনকে রুখে দিতে তৈরি ভারত, রাজ্যসভায় আক্রমণাত্মক সুষমা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 20, 2017 10:56 am|    Updated: July 20, 2017 10:56 am

Dragon digs teeth in Doklam, Sushma Swaraj Hits back in RS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চিনকে ন্যূনতম ভয় পায় না ভারত। ডোকলাম ত্রিমুখী সীমান্তে চিন বাড়াবাড়ি করলে নয়াদিল্লির কাছেও যথেষ্ট সরঞ্জাম রয়েছে বেজিংকে রুখে দেওয়ার মতো। বৃহস্পতিবার রাজ্যসভায় সরাসরি চিনের নাম করে এই ভাষাতেই হুঁশিয়ারি শোনা গেল কেন্দ্রীয় বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের গলায়।

[‘ভারত-চিন সংঘাতের কারণ হতে পারে মোদির উগ্র হিন্দু জাতীয়তাবাদ’]

বরাবরই সোজা কথার বলার হিম্মত রাখেন সুষমা। এদিনের নিজের চাঁচাছোলা বক্তব্যেই সুষমা বুঝিয়ে দিলেন, মোদির মন্ত্রিসভায় কেন তিনি অন্যতম সফল মন্ত্রী। এদিন রাজ্যসভায় তাঁর সাফ বক্তব্য, “প্রতি বছরই ডোকলামে ত্রিমুখী সীমানার কাছাকাছি আসার অজুহাত খোঁজে চিন। কখনও রাস্তা গড়ে, কখনও তা নষ্ট করে আবার গড়ার অজুহাতে…।” ভারত ও চিনের মধ্যে সীমান্ত পরিস্থিতি নিয়ে টানটান উত্তেজনার মধ্যে সুষমার এদিনের বক্তব্য যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে। এদিন রাজ্যসভায় এক প্রশ্নের উত্তরে এ কথা জানান সুষমা। সাফ বুঝিয়ে দেন, কেন প্রতিবারের তুলনায় এবছরের ১৬ জুন ভারত ও চিনের মধ্যে সম্পর্কের অবনতি তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে।

সুষমা বলেন, “এবার চিনারা বুলডোজার ও অন্যান্য সরঞ্জাম নিয়ে ডোকলামে ত্রিমুখী সীমানা সংলগ্ন এলাকা পেরিয়ে আসার চেষ্টা করছিল। যা ভারতের নিরাপত্তা পরিস্থিতিকে বিঘ্নিত করতে পারত।” এই পরিস্থিতিতে চিন বারবার ভারতকে সিকিম সীমান্ত থেকে সেনা প্রত্যাহারের দাবি জানালেও সুষমা বলেছেন, ‘সেটা তখনই সম্ভব যখন চিনও তাদের সেনা প্রত্যাহার করবে।’ ওয়ান বেল্ট ওয়ান রোড প্রসঙ্গেও এদিন মুখ খোলেন সুষমা। তিনি জানান, ভারত প্রথম থেকেই চিনের ওবিওআর প্রকল্পের বিরোধিতা করে এসেছে। শুধু ওবিওআর নয়, চিন-পাকিস্তান বিশেষ অর্থনৈতিক করিডর নিয়েও প্রতিবাদ জানিয়েছে নয়াদিল্লি। সুষমা স্পষ্ট জানান, ভারতের মিত্ররা ভালই জানেন সিপিইসি বা ওবিওআর তৈরির পিছনে কী লক্ষ্য রয়েছে চিনের।

[ড্রাগনের হুঙ্কারই সার, তিব্বতে নেই লালফৌজ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে