১৪ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বুধবার ১ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

কাশী বিশ্বনাথ মন্দিরে এবার পোশাক-বিধি, পরা যাবে না পশ্চিমী জামাকাপড়

Published by: Paramita Paul |    Posted: January 13, 2020 11:21 am|    Updated: January 13, 2020 11:21 am

Dress code mandatory for entering sanctum of Kashi Vishwanath Temple.

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কাশী বিশ্বনাথ মন্দিরের গর্ভগৃহে ঢুকতে মানতে হবে নির্দিষ্ট পোশাক বিধি। এই মন্দিরের গর্ভগৃহে ঢুকতে পশ্চিমী পোশাকের উপর কার্যত নিষেধাজ্ঞা জারি করল মন্দির কর্তৃপক্ষ। তাঁদের এহেন ফতোয়ায় বেজায় চটেছেন পর্যটকরা। এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ক্ষোভে উত্তাল সোশ্যাল মিডিয়া।

ভ্রমণপিপাসু মানুষজনের কাছে জনপ্রিয় নাম বারাণসী। প্রাচীন ভারতের শিল্পকলার নির্দশন হিসেবে রয়েছে একাধিক মন্দির। উপরি পাওনা গঙ্গার সান্নিধ্য। সন্ধে হতেই গঙ্গারতি দেখতে গঙ্গার ঘাটে ভিড় জমান আবাল-বৃদ্ধ-বনিতা। ভারতীয় ঐতিহ্যের টানে বারাণসী ছুটে যান বহু মানুষ। এমনকী সারাবছর বিদেশ থেকেও পর্যটকরাও আসেন। এবার সেখানেরই জনপ্রিয় মন্দির কাশী বিশ্বনাথে জারি হল পোশাক বিধি।

[আরও পড়ুন: আজই ঐশী-সহ তিন বাম ছাত্রনেতাকে জেরা করবে দিল্লি পুলিশ]

নয়া পোশাক বিধি অনুযায়ী, এবার থেকে প্যান্ট-শার্ট পরে আর মন্দিরের গর্ভগৃহে ঢোকা যাবে না। মন্দিরের গর্ভগৃহে ঢুকতে হলে পুরুষদের জন্য ধুতি ও পাঞ্জাবী বাধ্যতামূলক। মহিলাদের ক্ষেত্রেও রয়েছে বেশ কিছু নতুন নিয়ম। জানা গিয়েছে, শাড়ি ছাড়া মন্দিরের গর্ভগৃহে প্রবেশ একেবারে নিষেধ। তবে পুজো দিতে হলে তবেই এই নিয়ম মানতে হবে। বিধি না মানলে গর্ভগৃহের দূর থেকে দেবতা দর্শন করা যাবে। পরিবর্তন হয়েছে পুজোর সময়ও। নয়া বিধি অনুযায়ী, সকাল এগারোটা পর্যন্ত গর্ভগৃহে ঢুকে পুজো করা যাবে। যদিও কাশী বিদ্দত পরিষদের ঘোষিত এই ড্রেস কোড কবে থেকে চালু হবে তা এখনও জানানো হয়নি। পরিষদের পক্ষ থেকে আরও জানানো হয়েছে, প্যান্ট শার্ট-সহ অন্যান্য পশ্চিমী পোশাক পরে থাকলে মন্দিরে ঢোকার উপর কোনও নিষেধাজ্ঞা নেই। কিন্তু কেন এই পোশাক বিধি জারি করা হল, তার ব্যাখা মেলেনি।

[আরও পড়ুন : লক্ষ্য সর্ব ধর্ম সমন্বয়, মন্ত্র-আজান-প্রার্থনায় মাতল শাহিনবাগ]

সোশ্যাল মিডিয়ায় নয়া পোশাক বিধি নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়েছে। বারাণসী প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদির লোকসভা কেন্দ্র। সেখানে এই বিধি লাগু হওয়ার পিছনে রাজনৈতিক উদ্দেশ্য দেখছেন নে়টিজেনদের একাংশ। তাঁদের অভিযোগ, কে কী পরবে, তা নির্দিষ্ট করে দেওয়ার অধিকার কারোর নেই। কিন্তু বিজেপির মধ্যে এই প্রবণতা রয়েছে। এই পোশাক বিধির পিছনে গোঁড়া হিন্দুত্ববাদের প্রতিফলনই দেখছেন নেটিজেনরা।     

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে