১২ মাঘ  ১৪২৯  শুক্রবার ২৭ জানুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

দেড় দশক পর কি বিজেপির হাতছাড়া দিল্লি পুরসভা? বুথফেরত সমীক্ষায় ঝাড়ু-ঝড়ের ইঙ্গিত

Published by: Paramita Paul |    Posted: December 5, 2022 9:04 pm|    Updated: December 5, 2022 9:11 pm

Exit Poll 2022: BJP likely to lose MCD to AAP | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রায় আড়াই দশক আগে রাজধানী দিল্লির (Delhi MCD) গদি হাতছাড়া হয়েছিল বিজেপির। এবার দেড় দশক পরে ঝাড়ু ঝড়ে দিল্লি মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশনও (এমসিডি) হাত ছাড়া হতে পারে গেরুয়া শিবিরের। বুথফেরত সমীক্ষায় মিলল এমনই ইঙ্গিত। যা দেখে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, আপের জনমোহিনী নীতির কাছে চুপসে যেতে চলেছে মোদি-শাহের ডবল ইঞ্জিন স্বপ্নের বেলুন।

সোমবার বুথফেরত সমীক্ষা বলছে, দিল্লির এমসিডি দখল করতে চলেছে অরবিন্দ কেজরিওয়ালের দল। প্রায় প্রতিটি সমীক্ষায় মিলেছে একই ইঙ্গিত। ২৫০ আসনের দিল্লি পুরসভায় ক্ষমতা দখল করতে প্রয়োজন ১২৬টি আসন। আজতক-অ্য়াক্সিস মাই ইন্ডিয়ার বুথফেরত সমীক্ষা বলছে, আপ পেতে পারে ১৪৯-১৭১টি আসন, বিজেপি ৬৯-৯১টি ও কংগ্রেসের দখলে থাকতে পারে ৩-৭টি আসন। আবার নিউজ এক্স-জন কি বাতের বুথফেরত সমীক্ষার দাবি, আপ ১৫৯-১৭৫, বিজেপি ৭০-৯২ এবং কংগ্রেস পেতে পারে ৪-৭টি আসন। আপ ১৪৬-১৫৬টি, বিজেপি ৮৪-৯৪ ও কংগ্রেস ৬-১০টি আসন পেতে পারে বলছে টাইমস নাও-ইটিজির বুথফেরত সমীক্ষা। প্রায় একইরকম ইঙ্গিত মিলেছে ইন্ডিয়া টুডে-অ্যাক্সিস মাই ইন্ডিয়ার বুথফেরত সমীক্ষায়। আপ ১৪৯-১৭১, বিজেপি ৬৯-৯১ ও কংগ্রেস ৩-৭টি আসন পেতে পারে দিল্লি পুরসভায়।

[আরও পড়ুন: কলকাতা পুরসভাকে দেখে শিক্ষা, এবার বিধাননগরে হুক্কা বার বন্ধের আরজি জানিয়ে চিঠি সিপিকে]

গুজরাটে গেরুয়া ঝড়ে আগাম পূর্বাভাস দিয়েছে প্রায় সব বুথফেরত সমীক্ষা। হিমাচলেও হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হতে পারে বিজেপি-কংগ্রেসের মধ্যে। দুই রাজ্যে তৃতীয় শক্তি হিসেবে উত্থান হতে পারে কেজরিওয়ালের দলের। কিন্তু এমন অবস্থায় দিল্লি পুরভোটের বুথফেরত সমীক্ষায় মিলে গেলে বিপাকে পড়বে গেরুয়া শিবির। গোটা দেশে যখন গেরুয়া-রাজ কায়েম করতে চাইছে মোদি-শাহ জুটি। এমন পরিস্থিতিতে দিল্লি পুরসভা হাতছাড়া হলে সেটা মোটেও ভাল বার্তা হবে না দাবি রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের।

পুরভোটের আগে গ্রেপ্তার হয়েছিলেন আপ নেতা সত্যেন্দ্র জৈন। তাঁকে নিয়ে একাধিক ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে। সেখানে দেথা গিয়েছে, জেলে তিনি বিশেষ সুবিধা পাচ্ছেন। আপের অভিযোগ, কুৎসার রাজনীতি করেছিল বিজেপি। কিন্তু বুথফেরত সমীক্ষা যদি মিলে যায় তাহলে গেরুয়া শিবিরের সেই কৌশল দিল্লিবাসী যে ভালভাবে নেয়নি, তা স্পষ্ট হয়ে যাবে।

[আরও পড়ুন: ‘দুবাইতে চোখের চিকিৎসা ভাল হয় না’, হাই কোর্টের বিচারপতির ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্যে শোরগোল]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে