BREAKING NEWS

৭ শ্রাবণ  ১৪২৮  শনিবার ২৪ জুলাই ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

প্রয়াত হিমাচল প্রদেশের ৬ বারের মুখ্যমন্ত্রী বীরভদ্র সিং

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: July 8, 2021 8:52 am|    Updated: July 8, 2021 8:52 am

Former Himachal Pradesh chief minister and Congress leader Virbhadra Singh passes away | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা পরবর্তী উপসর্গ প্রাণ কাড়ল আরও এক প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর। প্রয়াত হিমাচল প্রদেশের ৬ বারের মুখ্যমন্ত্রী তথা বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা বীরভদ্র সিং (Virbhadra Singh)। বৃহস্পতিবার ভোর ৩টে ৪৫ মিনিট নাগাদ শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৭ বছর। তাঁর প্রয়াণে শোকের ছায়া রাজনৈতিক মহলে।

প্রবীণ এই কংগ্রেস নেতা বেশ কিছুদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন। গত সোমবার নতুন করে হৃদরোগে আক্রান্ত হন তিনি। তারপর থেকেই সংকটজনক অবস্থায় দিল্লির ইন্দিরা গান্ধী মেডিক্যাল কলেজের (IGMC) ক্রিটিক্যাল কেয়ার ইউনিটে ভরতি ছিলেন। আসলে ৮৭ বছর বয়সি প্রবীণ নেতা এর আগে দু’বার করোনার কবলে পড়েছিলেন। প্রথমবার তিনি এই মারণ ভাইরাসের কবলে পড়েন ১২ এপ্রিল। সুস্থও হয়ে যান। ১১ জুন ফের তাঁর শরীরে করোনা ভাইরাসের (Coronavirus) হদিশ মেলে। সেবারেও করোনামুক্ত হয়েছিলেন। কিন্তু দু’বার করোনা আক্রান্ত হওয়ার ধকল সইতে পারেনি বীরভদ্র সিংয়ের শরীর। বেশ কিছু জটিল সমস্যা দেখা গিয়েছিল। শেষপর্যন্ত বৃহস্পতিবার ভোরে প্রয়াত হন তিনি।

[আরও পড়ুন: মোদির পরিবর্তিত মন্ত্রিসভায় বাংলার ৪ মুখ, কে কোন দায়িত্ব পেলেন]

বীরভদ্র সিং প্রায় ৬ দশক রাজনীতিতে ছিলেন। হিমাচল প্রদেশের ৯ বারের বিধায়ক হওয়ার পাশাপাশি পাঁচ বার সাংসদও নির্বাচিত হয়েছেন। সব মিলিয়ে মোট ৬ বার হিমাচলের মুখ্যমন্ত্রী হয়েছিলেন সদ্যপ্রয়াত কংগ্রেস নেতা। এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সময় ধরে হিমাচলের মুখ্যমন্ত্রী থাকার রেকর্ড তাঁর দখলেই আছে। প্রথমবার ১৯৮৩ সালে মুখ্যমন্ত্রী হন। ২০১৭ সাল পর্যন্ত মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন। এর মধ্যে একাধিকবার রাজ্য বিধানসভায় বিরোধী দলনেতার আসনেও বসেন। যদিও, নিজের রাজনৈতিক কেরিয়ারের শেষদিকে বেশ কিছু দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছিল হিমাচলের ‘রাজা সাহেবে’র বিরুদ্ধে। ইডি-সিবিআইয়ের মতো এজেন্সিও তাঁর বিরুদ্ধে সক্রিয় হয়েছিল। তাতে অবশ্য দমে যাননি বীরভদ্র। জীবনের শেষদিন পর্যন্ত BJP বিরোধিতা করে গিয়েছেন। তাঁর মৃত্যুতে হিমাচল কংগ্রেসে বড়সড় শূন্যতার সৃষ্টি হল। আগামী বছর বিধানসভা নির্বাচনের আগে সেরাজ্যে কংগ্রেস (Congress) কার্যত দিশেহারা হয়ে গেল।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement