BREAKING NEWS

১৩ মাঘ  ১৪২৭  বুধবার ২৭ জানুয়ারি ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

দু’শো কোটি টাকার জালিয়াতি! ২৫১ টাকায় স্মার্টফোন প্রতারণা চক্রের চাঁই গ্রেপ্তার

Published by: Paramita Paul |    Posted: January 12, 2021 5:33 pm|    Updated: January 12, 2021 6:20 pm

An Images

ছবি: প্রতীকী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দেশবাসীকে ২৫১ টাকায় স্মার্টফোন (Freedom 251) কেনার স্বপ্ন দেখিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু সেই ফোন আর হাতে এসে পৌঁছয়নি। উলটে প্রি-বুকিং করে টাকা খুইয়েছিলেন অনেকে। এবার শ্রীঘরে সেই রিংগিং বেল  সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা ‘প্রতারক’ মোহিত গোয়েল। চার সঙ্গী-সহ মোহিতের বিরুদ্ধে ২০০ কোটি টাকা প্রতারণার অভিযোগ দায়ের হয়েছে বিভিন্ন রাজ্যে।

উত্তরপ্রদেশের, পাঞ্জাব, দিল্লি-সহ বিভিন্ন রাজ্যে মোহিত ও তাঁর চার বন্ধুর নামে আর্থিক প্রতারণার অভিযোগ দায়ের হয়েছিল। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে চলতি সপ্তাহে নয়ডার অফিস থেকে মোহিতকে গ্রেপ্তার করে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। তবে এই প্রথমবার নয়, এর আগে প্রতারণার অভিযোগে তাঁদের তিনটি ব্যবসা বন্ধ করেছিল পুলিশ।

[আরও পড়ুন : বিতর্কের ঊর্ধ্বে ত্রাতা PM CARES! এই তহবিল থেকেই ভ্যাকসিন কিনতে পারে সরকার]

পুলিশ সূত্রে খবর, এবার ড্রাই ফ্রুটের ব্যবসা ফেঁদেছিলেন মোহিত গোয়েল। প্রথমে বাজারদরের তুলনায় বেশি টাকা দিয়ে দেশের একাধিক ব্যবসায়ীর কাছ থেকে ড্রাই ফ্রুট কিনেছিলেন তাঁরা। প্রথমদফায় সঙ্গে সঙ্গে টাকাও মিটিয়ে দিয়েছিলেন। এরপর ফের ওই ব্যবসায়ীদের মোটা টাকার বরাত দেন মোহিত ও তাঁর সঙ্গীরা। প্রথমবারের অভিজ্ঞতার উপর বিশ্বাস করে সময়মতো ড্রাই ফ্রুট সরবরাহও করেছিলেন ফল ব্যবসায়ীরা। বরাত দেওয়ার পরই নেট ব্যাঙ্কিংয়ের মাধ্যমে ৪০ শতাংশ টাকা মিটিয়ে দেওয়া হয়েছিল। বাকি টাকা চেকে পেমেন্ট করার কথা ছিল। চেকও দিয়েছিলেন মোহিতরা। কিন্তু সেই চেক বাউন্স করে। এরপরই বিভিন্ন রাজ্যে প্রায় ২০০ কোটি টাকার প্রতারণার অভিযোগ দায়ের হয় তাঁদের বিরুদ্ধে। পুলিশ জানিয়েছে, ওই ড্রাই ফ্রুট খোলাবাজারে বিক্রি করে পুরো টাকা আত্মসাত করে মোহিত ও তাঁর সঙ্গীরা।

রবিবার নয়ডার অফিস থেকে মোহত ও তাঁর এক সঙ্গী ওমপ্রকাশ জাঙ্গীরকে গ্রেপ্তার করে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। বাকি তিন প্রতারক-সুমিত যাদব, রাজীব কুমার এবং প্রবীণ সিং নিরওয়ানের খোঁজ চলছে। মোহিতদের ডেরা থেকে দুটি দামী গাড়ি ও ৬০ কেজি ড্রাই ফ্রুট উদ্ধার হয়। পুলিশ সূত্রে খবর, এর আগে প্রতারণার অভিযোগে মোহিতের তিনটি ব্যবসা বন্ধ করে দিয়েছিল তাঁরা।

 

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালে দেশবাসীকে ২৫১ টাকায় স্মার্টফোন দেওয়ার স্বপ্ন দেখিয়েছিলেন মোহিত। অনেকেই ফোনের প্রি বুকিং করেছিলেন সেই সময়। টাকা দিয়ে দিলেও দুনিয়ার সবচেয়ে সস্তা মোবাইল তাঁদের হাতে এসে আর পৌঁছয়নি। এবার সেই প্রতারণা চক্রের মালিক শ্রীঘরে।

[আরও পড়ুন : নয়া কৃষি আইনে স্থগিতাদেশ, পর্যালোচনার জন্য কমিটি গঠন সুপ্রিম কোর্টের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement