১২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  শনিবার ২৮ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘মোদি সরকার ট্যাবলো বাছাই করে না, ভুল ব্যাখ্যা চলছে’, বিস্তর বিতর্কে কেন্দ্রীয় সূত্রে মিলল প্রতিক্রিয়া

Published by: Sulaya Singha |    Posted: January 18, 2022 9:18 am|    Updated: January 18, 2022 9:20 am

Government Sources reacts On States vs Centre Over R-Day Tableaux | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সাধারণতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠান থেকে কেন বাদ নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর INA-র উপর ভিত্তি করে তৈরি বাংলার ট্যাবলো? এ নিয়ে কেন্দ্রকে একহাত নিয়েছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। শুধু বাংলা নয়, অ-বিজেপি রাজ্য তামিলনাড়ুর ট্যাবলোও বাদ পড়েছে অনুষ্ঠান থেকে। কেন্দ্রের তরফে যা নিয়ে কোনও ব্যাখ্যা দেওয়া হয়নি। কিন্তু বিতর্কের আঁচ বাড়তে এবার কেন্দ্রীয় সূত্রে মিলল প্রতিক্রিয়া। সাফ জানিয়ে দেওয়া হল, ট্যাবলো মোদি সরকার বাছাই করে না। তাই এই ইস্যুকে সামনে রেখে মুখ্যমন্ত্রীরা কেন্দ্র বনাম রাজ্যের যে সংঘাত তুলে ধরতে চাইছে, তা ঠিক নয়।

ট্যাবলো বাতিল নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে (PM Modi) চিঠি দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জানিয়েছিলেন, সাধারণতন্ত্র দিবস উপলক্ষে তৈরি বাংলা ট্যাবলোর মূল থিম ছিল নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু-সহ রাজ্যের অন্যান্য স্বাধীনতা সংগ্রামীদের কথা তুলে ধরা। কিন্তু কারণ না জানিয়েই তা বাতিল করা হল। দেশজুড়ে যখন আজাদি কি অমৃত মহোৎসব পালিত হচ্ছে, সেই সময় কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্ত মেনে নেওয়া যায় না। কিন্তু কেন্দ্রীয় সূত্রে মিলল উলটো প্রতিক্রিয়া। পরিষ্কার করে বলে দেওয়া হল, এই বিষয়টাকে কেন্দ্র-রাজ্যের দ্বন্দ্বের ফল হিসেবে ব্যাখ্যা করে ভুল দৃষ্টান্ত স্থাপন করা হচ্ছে। হয়তো রাজ্যগুলির মুখ্যমন্ত্রীদের কাছে নিজেদের কোনও এজেন্ডা নেই। এভাবে দেশের গণতান্ত্রিক পরিকাঠামোর ক্ষতি করা হচ্ছে। রাজ্যের এই পন্থা অবলম্বনে প্রতিবার সাধারণ মানুষের কাছে ভুল বার্তা পৌঁছায়।

[আরও পড়ুন: Coronavirus: আরও শিথিল রাজ্যের কোভিডবিধি, আউটডোর শুটিং-সহ একাধিক ক্ষেত্রে ছাড়ের ঘোষণা]

এরপরই সূত্রের ব্যাখ্যা, “সাধারণতন্ত্র দিবসের (Republic Day 2022) অনুষ্ঠানে রাজপথে কোন ট্যাবলো নামবে, সেই সিদ্ধান্ত মোদি সরকার নেয় না। এর জন্য একটি বিশেষজ্ঞর কমিটি তৈরি হয়। যেখানে কলা, সংস্কৃতি, স্থাপত্য, সংগীত, নৃত্যু-সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রের বিশিষ্ট্যরা থাকেন। সেই কমিটির কাছেই বিভিন্ন রাজ্য এবং কেন্দ্রের দেওয়া ট্যাবলোর প্রস্তাবগুলি জমা পড়ে। থিম, কনসেপ্ট, ডিজাইন, ভিজ্যুয়ালি তার প্রভাব ইত্যাদি বিষয় বিবেচনা করার পর কাকে নেওয়া হবে কিংবা হবে না, তা ঠিক করা হয়।”

পাশাপাশি অনুষ্ঠানের সময়টাও বড় ফ্যাক্টর। ওই সময়ের মধ্যে কতগুলি ট্যাবলো প্রদর্শন সম্ভব, সেই হিসাবও করতে হয়। জানা গিয়েছে, ৫৬টি প্রস্তাব জমা পড়েছিল। যার মধ্যে ২১টিকে বাছাই করা হয়েছে। স্বাভাবিক নিয়মেই এমনটা হয়েছে। এর সঙ্গে কেন্দ্র-রাজ্য সংঘাতের কোনও সম্পর্ক নেই বলেই দাবি করা হয়েছে। তবে এরপরও প্রশ্ন থেকে যাচ্ছে বাংলা, তামিলনাড়ুর (Tamil Nadu)  মতো অ-বিজেপি রাজ্যগুলির ট্যাবলোকেই কেন বাতিলের খাতায় ফেলা হল!

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে