BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

এক ব্র্যান্ডের পণ্যের খুচরো ব্যবসায় ১০০% বিদেশি লগ্নির অনুমোদন মন্ত্রিসভার

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 10, 2018 8:15 am|    Updated: January 10, 2018 8:15 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: স্বয়ংক্রিয় রুটে এক ব্র্যান্ডের পণ্যের খুচরো ব্যবসা বা সিঙ্গল ব্র্যান্ড রিটেলে ১০০% বিদেশি বিনিয়োগের অনুমোদন দিল কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা। বুধবার সংবাদ সংস্থা এএনআই এই খবর জানিয়ে বলেছে, এবার থেকে কেন্দ্রের অনুমোদিত রুটে ১০০% বিদেশি বিনিয়োগের ছাড়পত্র মিলল। এতদিন অটোমেটিক রুটে ৪৯% বিদেশি বিনিয়োগের সুযোগ ছিল। তার তুলনায় বেশি বিনিয়োগের জন্য প্রয়োজন হত কেন্দ্রের বিশেষ অনুমতির।

রিপোর্ট মোতাবেক, এভিয়েশন ও কনস্ট্রাকশন সেক্টরে স্বয়ংক্রিয় রুটে ১০০% এফডিআইয়ের সুবিধা পাওয়া যাবে। এয়ার ইন্ডিয়ার বিকেন্দ্রীকরণের কথা ভেবেই এভিয়েশন সেক্টরে ১০০% বিদেশি লগ্নির ছাড়পত্র দিল কেন্দ্র, মনে করছেন অর্থনীতিবিদদের একাংশ। কেন্দ্রের এই নীতি বিদেশি লগ্নিকারীদের কাছে ভারতের বিপুল বাজার খুলে দিল বলেও মনে করছেন তাঁরা। তবে ৫১% শতাংশের বেশি বিদেশি বিনিয়োগের ক্ষেত্রে ভারত থেকে ৩০% পণ্য কিনতে হবে লগ্নিকারীদের। শিল্পমহল ও অর্থনীতিবিদদের একাংশের ধারণা, এই লগ্নির পথ খুলে যাওয়ায় আরও কম দামে বিভিন্ন পণ্য কেনার সুযোগ পাবেন মধ্যবিত্তরা। কমবে মূল্যবৃদ্ধি। তৈরি হবে কাজের সুযোগও। আবার অন্য দিকে, বিরোধী দলগুলির আশঙ্কা, প্রথমে রিটেল বহুজাতিকগুলি কম দামে পণ্য বেচলেও, এক বার বাজারে নিজেদের আধিপত্য কায়েম করার পর তা বাড়াবে তারা। ন্যায্য মূল্য পাবেন না সরবরাহকারী কৃষকেরাও। মার খাবে পাড়ার ছোট দোকানগুলি।

[মেয়ের বিয়ের নিমন্ত্রণপত্রে সরকারি লোগো, বিতর্কে বিজেপি বিধায়ক]

তবে মোদি সরকারের এই পদক্ষেপের কড়া বিরোধিতা করেছে কনফেডারেশন অফ অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্স (CAIT)। তাদের দাবি, কেন্দ্রের এই পদক্ষেপে ক্ষতিগ্রস্ত হবেন ছোট ব্যবসায়ীরা। মোদির এই সিদ্ধান্ত বিজেপির নির্বাচনী প্রতিশ্রুতিকে লঙ্ঘন করেছে বলে অভিযোগ করেছে সংগঠনটি। ২০১৪-তে যখন প্রথমবার সিঙ্গল ব্র্যান্ড রিটেলে ১০০% বিদেশি বিনিয়োগের ছাড়পত্র মেলে, তখন বহু Nike, Ikea-র মতো নামীদামী আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ড ভারতে বিনিয়োগ করে। আর এবার অটোমেটিক রুটে ১০০% এফডিআই অন্যান্য আন্তর্জাতিক সংস্থাকেও ভারতে বিনিয়োগে আগ্রহী করবে বলে মনে করা হচ্ছে। খানিকটা হলেও লালফিতের জট আলগা হতে পারে। কিন্তু এক ছাদের তলায় একাধিক ব্র্যান্ডের পণ্যের খুচরো ব্যবসায় (মাল্টি ব্র্যান্ড রিটেল) প্রত্যক্ষ বিদেশি বিনিয়োগের ক্ষেত্রে এখনও কড়া বিধিনিষেধ রয়েছে ভারতে। মাল্টি-ব্র্যান্ড রিটেল মার্কেটে এফডিআইয়ের ছাড়পত্র এখনও বিরোধী দলগুলির সম্মিলিত প্রতিবাদের জন্য আটকে রয়েছে।

[জিএসটি-র প্রতিবাদে মোদিকে ১০০০ স্যানিটারি ন্যাপকিন পাঠাবেন ছাত্রীরা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement