২৯ ভাদ্র  ১৪২৬  সোমবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিয়ের পিঁড়িতে বসতে কনের বাড়ি যেতে প্রস্তুত বর। সাজগোজ করে তৈরি বরযাত্রীরাও। বিয়ের অনুষ্ঠান বলে কথা। হইহুল্লোড়, হাসি-ঠাট্টা সবই চলছে দেদার। সময় মতো বরকে সঙ্গে নিয়ে রওনাও দিলেন বরযাত্রীরা। কিন্তু রাস্তায় বিয়ের আনন্দ করতে গিয়ে যে এমন হাল হবে, তা কেউ আন্দাজও করতে পারেননি। এই ঘটনার পর হয়তো সব বরযাত্রীই বরের সামনে নাচতে নাচতে যাওয়ার আগে দুবার ভাববেন।

[“রাহুল ফেল করা ছাত্র, ‘টপার’ মোদিকে হিংসা করে”, কটাক্ষ জেটলির]

কী কাণ্ড ঘটল তবে খোলসে করে বলা যাক। ঘটনা নয়ডার সেক্টর ৫২-র হোশিয়ারপুর গ্রামের। শনিবার রাতে বরকে সঙ্গে নিয়ে কনের বাড়ি যাচ্ছিলেন ১৫ জন বরযাত্রী। বেশ ফুরফুরে মেজাজেই ছিলেন প্রত্যেকে। নাচতে নাচতেই এগিয়ে চলেছিলেন তাঁরা। একটি সরু সেতু পেরনোর সময়ও নাচ থামেনি। আর তাতেই ঘটে বিপত্তি। হঠাৎই ভেঙে পড়ে সেই ব্রিজ। আর নিচের নর্দমায় পড়ে যান সকলে। ঘটনায় আহত হয় দুই শিশুও। তাদের প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য় স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

Bridge

যে ব্যাঙ্কোয়েট হলে বিয়ের অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল, ব্রিজটি তাদেরই অধীনস্ত। সেতুর শেষ প্রান্তে দাঁড়িয়ে বরযাত্রীকে স্বাগত জানানোর অপেক্ষায় ছিল কনেপক্ষ। কিন্তু সে প্রান্তে পৌঁছনোর আগেই সোজা নর্দমায় গিয়ে পড়েন বরযাত্রীরা। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বিয়ের আসরে প্রবেশের আগে মিনিট দশেক ব্রিজের উপর নাচছিলেন সকলে। আর তাতেই ভেঙে পড়ে দুর্বল সেতুটি। সেক্টর ২৪ থানার পুলিশ জানায়, ঘটনায় কোনও পক্ষই অভিযোগ দায়ের করেনি। হলের মালিক কনে পক্ষকে তিন লক্ষ টাকা দিয়ে ব্যক্তিগত স্তরেই বিষয়টি মিটিয়ে নেন।

তবে নর্দমায় পড়ে যাওয়ায় অনেকেরই মোবাইল এবং দামী গয়না খোয়া গিয়েছে। বরের ভাই সুমিত যাদব জানাচ্ছেন, ওই ব্রিজটি ছাড়া অনুষ্ঠানে পৌঁছনোর আর কোনও রাস্তা ছিল না। আর কনে পক্ষের সামনে ওভাবে সবাই মিলে পড়ে যাওয়ার বিষয়টিও খুব লজ্জাজনকও। তবে কারও গুরুতর চোট লাগেনি। কাদা মাখা নোংরা অবস্থাতেই কনে সোনমের কাছে পৌঁছান পাত্র অমিত যাদব। তাতেও অবশ্য বিয়ে নিয়ে খুশির আমেজে বিশেষ ভাটা পড়েনি।

[‘সমস্ত কাজে হস্তক্ষেপ করত রাহুল’, প্রাক্তন বিদেশমন্ত্রীর আক্রমণের মুখে কংগ্রেস সভাপতি]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং