BREAKING NEWS

১২  আষাঢ়  ১৪২৯  সোমবার ২৭ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

অপমানের বদলা! প্রিন্সিপালকে গুলি করে খুন দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 21, 2018 3:19 am|    Updated: January 21, 2018 3:20 am

Haryana: Class 12 student shots principal in Yamunanagar school

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ঘড়িতে তখন প্রায় বেলা সাড়ে এগারোটা। শিক্ষকদের সঙ্গে অভিভাবকদের বৈঠক চলছে স্কুলে। হঠাৎই ঘরে ঢুকে পড়ল স্কুলেরই দ্বাদশ শ্রেণির এক ছাত্র। কেউ কিছু বুঝে ওঠার আগেই অতর্কিতে পিস্তল বের করে প্রিন্সিপালকে লক্ষ্য করে গুলি। পর পর চারটি। লুটিয়ে পড়লেন প্রিন্সিপাল। সঙ্গে সঙ্গেই তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে। কিন্তু ততক্ষণে তাঁর মৃত্যু হয়েছে।

[রক্তাক্ত বন্ধুকে বাঁচাতে সাহায্যের আবেদন কিশোরের, দাঁড়িয়ে দেখল পুলিশ!]

শনিবার ভয়ংকর ঘটনাটি ঘটেছে হরিয়ানার যমুনানগরে, অন্যতম নামকরা স্বামী বিবেকানন্দ স্কুলে। পুলিশ সুপার রাজেশ কালিয়া জানিয়েছেন, নিহত প্রিন্সিপালের নাম ঋতু ছাবরা। বয়স ৪৭। প্রিন্সিপাল হওয়ার আগে স্কুলে অর্থনীতি পড়াতেন ঋতু। স্কুলের মধ্যে প্রিন্সিপালের হত্যা ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে হরিয়ানায়। উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন সমাজতাত্ত্বিক ও মনোবিজ্ঞানীরাও। খুন করেই পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছিল শিবাংশ নামে ছাত্রটি। কিন্তু অভিভাবক ও অন্যান্য পড়ুয়ারা স্কুল চত্বরেই তাকে ধরে ফেলেন। তুলে দেন পুলিশের হাতে। প্রাথমিকভাবে জানা গিয়েছে, ওই ছাত্রের বিরুদ্ধে স্কুলের মধ্যে মারপিট, নিষেধ করা সত্ত্বেও ফোনে কথা বলার অভিযোগ ছিল। বেশ কয়েকবার সতর্কও করা হয়। কিন্তু তা না শোনায় সম্প্রতি ১৫ দিন আগে স্কুল থেকে সাসপেন্ড করা হয় দ্বাদশ শ্রেণির ওই পড়ুয়াকে। এমনকী, অতীতে শিক্ষিকা-অভিভাবক বৈঠকে নিজের মা বা বাবাকে না এনে ‘সাজানো’ বাবা-মাকে সেখানে হাজির করিয়েছিল শিবাংশ। তা জানাজানি হওয়ার পর ওই পড়ুয়াকে বকাবকি করেন প্রিন্সিপাল। সেই অপমানের বদলা নিতেই সে প্রিন্সিপালকে গুলি করেছে বলে তদন্তকারীদের ধারণা। পিস্তলটি তার বাবার। লাইসেন্সও রয়েছে। ওই ছাত্রের পাশাপাশি তার বাবাকেও পুলিশ আটক করেছে।

[ঝাঁ চকচকে শপিং মলে দেহ ব্যবসা, আটক বিদেশি-সহ ৯ মহিলা]

স্কুলের এক সহপাঠী বলেছে, “যখন ওকে ধরা হয়, ওর হাতে তখন পিস্তল ছিল। কী হয়েছে প্রশ্ন করতেই নিজের অপরাধের কথা স্বীকার করে। শিবাংশ বলে, বেশ কিছুদিন ধরেই প্রিন্সিপাল তার উপর শারীরিক ও মানসিক অত্যাচার চালাচ্ছিলেন। কয়েকবার তাকে অপমানও করেছেন। বদলা নিতেই খুন করেছে প্রিন্সিপালকে।” এক পদস্থ পুলিশ আধিকারিক জানিয়েছেন, রবিবার ধৃতকে আদালতে তোলা হবে। তার বিরুদ্ধে খুনের মামলা দায়ের করা হয়েছে।

শিবাংশের ‘কীর্তি’-তে হতবাক তার পরিবারও। তাঁরা জানিয়েছেন, সাসপেন্ড হওয়ায় হতাশায় ভুগছিল শিবাংশ। বাড়ি থেকে বের হওয়ার সময় বলে গিয়েছিল, টিউশন পড়তে যাচ্ছে। পরিবারের কেউ ঘুণাক্ষরেও বুঝতে পারেনি, কী মারাত্মক কাণ্ড ঘটাতে চলেছে ওই কিশোর।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে