২১ ফাল্গুন  ১৪২৭  রবিবার ৭ মার্চ ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

কখনও কান্না, কখনও হাসি! বাড়ির দেওয়াল থেকে আসছে ‘ভূতুড়ে’ আওয়াজ, আতঙ্কে বাসিন্দারা

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: February 10, 2021 7:20 pm|    Updated: February 10, 2021 7:47 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চারিদিক নিশ্চুপ। হঠাৎ করেই ভেসে আসছে নানারকম শব্দ। কখনও কান্নার, কখনও হাসির। খোঁজ করতেই দেখা যায়, বাড়ির একটি নির্দিষ্ট দেওয়াল থেকে আসছে ওই শব্দ। প্রতিদিন তার তীব্রতাও বাড়ছে। অথচ উৎস খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। সম্প্রতি লখনউয়ের (Lucknow) জানকিপুরমে (Jankipuram) এমনই এক ‘ভূতুড়ে’ বাড়ির খোঁজ মিলেছে। ইতিমধ্যে পুলিশেও অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। ভূত না অন্য কোনও কারণ, তা খতিয়ে দেখছেন পুলিশ আধিকারিকরা।

জানা গিয়েছে, গত ২৭ বছর ধরে ওই প্রাসাদোপম বাড়িটিতে স্বামী, কন্যা এবং শাশুড়িকে নিয়ে থাকছেন আরতি নামে এক মহিলা। এতদিন কোনও ঘটনা না ঘটলেও, গত দুসপ্তাহ ধরে বিভিন্ন ধরনের আওয়াজ শুনতে পাচ্ছেন ওই পরিবারের প্রত্যেকে। আরতির অভিযোগ, তাঁর শাশুড়ির ঘরের দেওয়াল থেকেই রহস্যময় ওই শব্দ ভেসে আসছে। এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, “গত দু’সপ্তাহ ধরে ওই অদ্ভুত আওয়াজগুলো আমরা শুনতে পাচ্ছি।”

[আরও পড়ুন: বয়ঃসন্ধি পেরলে বিয়ে করতে পারে মুসলিম নাবালিকারাও! পর্যবেক্ষণ পাঞ্জাব-হরিয়ানা হাই কোর্টের]

প্রথমদিকে, ওই পরিবারের সদস্যরা ভাবছিলেন, পাশের একটি বাড়িতে কাজ হচ্ছে। আর তাই ওই আওয়াজগুলো আসছে। কিন্তু নির্মাণকাজ বন্ধ হয়ে গেলেও ওই আওয়াজ আসা বন্ধ হয়নি। আর এরপরই আরতি এবং পরিবারের অন্যদের মনে ভয়ের সঞ্চার হয়। এই প্রসঙ্গে আরতির মন্তব্য, “প্রতিবেশীর বাড়িতে নির্মাণকাজ বন্ধ হয়ে গেলেও দেওয়াল থেকে ওই আওয়াজ আসতেই থাকে। আমি এবং স্বামী কাজের জন্য বাড়িতে থাকি না। কিন্তু মেয়ে এবং শাশুড়ি থাকেন। আর দিন যত এগিয়েছে আওয়াজও বেড়েছে।”

আরতি আরও জানান, বাড়িটি আগে মোটেও ভূতুড়ে ছিল না। কারণ গত ২৭ বছর ধরে তাঁরা ওই বাড়িটিতেই থাকছেন। তাছাড়া তাঁরা শিক্ষিত পরিবারের লোকজন এবং ভূতে বিশ্বাস করেন না। তাই ইতিমধ্যে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেছে ওই পরিবার। একজন মহিলা কনস্টেবলকে বাড়িটিতে নিরাপত্তার দায়িত্বে রাখা হয়েছে। কিন্তু তিনি কোনও আওয়াজ শুনতে পাননি। আপাতত সমস্ত দিক খতিয়ে দেখছেন পুলিশ আধিকারিকরা। তবে এই ঘটনায় এলাকাবাসীদের মনে রীতিমতো ভয়ের সঞ্চার হয়েছে। স্থানীয়দের বক্তব্য, বহুদিন ওই এলাকায় এক মহিলার অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছিল। তারপর থেকেই বিভিন্ন সময় বিভিন্ন গুজবও ছড়িয়েছে।

[আরও পড়ুন: সুপ্রিম হস্তক্ষেপে আপাতত রক্ষা পেল ভারতের ঐতিহ্যবাহী রণতরী আইএনএস বিরাট]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement