BREAKING NEWS

০৯ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বুধবার ২৫ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

সীমান্তে ফের থাবা বাড়াচ্ছে ‘ড্রাগন’, LAC’র কাছে ওঁত পেতে চিনের সাঁজোয়া বাহিনী

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: February 2, 2021 12:31 pm|    Updated: February 2, 2021 2:46 pm

Huge number of Chinese tanks, troops near LAC | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারত ও চিনের মধ্যে কিছুতেই মিটছে না সীমান্ত সংঘাত। প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা (LAC) বরাবর ক্রমে আগ্রাসী হয়ে উঠছে লালফৌজ। প্রতিরক্ষা মহলে উদ্বেগ বাড়িয়ে সম্প্রতি জানা গিয়েছে, আকসাই চিনের দেপসাং সমতল ও প্যাংগং হ্রদের উত্তর ও দক্ষিণে বিশাল সাঁজোয়া বাহিনী মোতায়েন করেছে চিন।

[আরও পড়ুন: রাস্তায় কংক্রিটের দেওয়াল, পোঁতা রয়েছে পেরেক! কৃষক আন্দোলন রুখতে দিল্লি যেন ‘দুর্গ’]

সদ্য প্রকাশ্যে আসা এক ভিডিও থেকে জানা গিয়েছে, ভারতকে নজরে রেখে সীমান্তে প্রায় ৩৫০টি অত্যাধুনিক ‘টাইপ-৯৯’ ট্যাংক মোতায়েন করেছে লালফৌজ। এছাড়া, ওই অঞ্চলে রয়েছে কয়েক হাজার চিনা সৈন্য ও সাঁজোয়া গাড়ি। সূত্রের খবর, প্যাংগং হ্রদের দক্ষিণ পাড় থেকে ভারতীয় ফৌজকে সরাতে এই পদক্ষেপ করেছে চিন। তবে গোটা পরিস্থিতির উপর কড়া নজর রেখেছেন ভারতীয় জওয়ানরা। যে কোনও হামলার উত্তর দিতে প্রস্তুত তাঁরা। প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা সংলগ্ন ওই অঞ্চলে অত্যাধুনিক ‘টি-৯০’ বা ভীষ্ম ট্যাংক মোতায়েন করেছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। সব মিলিয়ে, সীমান্তে সংঘাত মেটাতে চিন ও ভারতের মধ্যে নয় দফা আলোচনা হলেও মেলেনি রফাসূত্র।

উল্লেখ্য, পূর্ব লাদাখে ভারত ও চিনের মধ্যে সংঘাতের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্র হচ্ছে প্যাংগং হ্রদ (Pangong Tso)। দক্ষিণ পাড়ে খুব অল্প দূরত্বে মুখোমুখি দাঁড়িয়ে ভারত ও চিনের ফৌজ। গত মার্চ মাস থেকেই প্যাংগং হ্রদের উত্তর পাড়ে আগ্রাসন চালিয়ে আসছিল চিনা বাহিনী (PLA)। ১৫ জুনের সংঘর্ষের পর দুই দেশের মধ্যে সেনা প্রত্যাহার নিয়ে বেশ কয়েক দফা আলোচনা হলেও কাজের কাজ কিছু হয়নি। তারপর গতবছরের ২৯ এবং ৩০ আগস্ট চিনারা ভারতীয় সীমান্তে ঢোকার চেষ্টা করেছিল। যা ভারত প্রতিহত করেছে। কিন্তু তারপর থেকেই প্যাংগংয়ের দক্ষিণ প্রান্তে ক্রমাগত প্ররোচনামূলক পদক্ষেপ করে চলেছে চিনারা। দ্বিপাক্ষিক চুক্তি না মেনে একেবারে ভারতীয় সেনার ঢিলছোঁড়া দুরত্বে সেনা মোতায়েন করেছে ড্রাগন। সুত্রের খবর, প্যাংগংয়ের দক্ষিণ উপকূলে গুরুং এবং মগর পাহাড়ের মাছে স্প্যাঙ্গুর গ্যাপে (Spanggur Gap) দুই দেশের সেনা শুটিং রেঞ্জের মধ্যে চলে এসেছে। এবং চিনারা যেভাবে প্ররোচনা দিচ্ছে তাতে যে কোনও সময় সংঘর্ষের পরিস্থিতি সৃষ্টি হতে পারে।

[আরও পড়ুন: অন্য সম্পর্কে জড়িয়েছে বান্ধবী! সন্দেহের বশে খুন করে তাঁর তিন মেয়ের শ্লীলতাহানি যুবকের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে