BREAKING NEWS

৩০ আশ্বিন  ১৪২৮  রবিবার ১৭ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

কালো টাকার কারবারিদের বিরুদ্ধে ‘ডোজ’ আরও বাড়বে, হুঁশিয়ারি মোদির

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: November 13, 2016 1:16 pm|    Updated: November 13, 2016 1:35 pm

I left my family, my home to serve the nation, PM Modi says

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জাপান সফরেই ইঙ্গিতটা দিয়ে রেখেছিলেন৷ দেশে ফিরে কালো টাকার বিরুদ্ধে কার্যত ‘জেহাদ’ ঘোষণা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ বললেন, কালো টাকার কারবারিদের বিরুদ্ধে ‘ডোজ’ আরও বাড়ানো হবে৷ তারা টের পাবেন ধীরে ধীরে৷ ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট বাতিলের পর দেশজুড়ে বিরোধীরা সওয়াল তুলেছিল, দেশবাসীকে বিপাকে ফেলে প্রধানমন্ত্রী জাপানে লুকিয়ে রয়েছেন৷ রবিবার, প্রধানমন্ত্রী তাঁর ভাষণে বিরোধীদের সেই অভিযোগের জবাব তো দিলেনই, পাশাপাশি কালো টাকার বিরুদ্ধে আমরণ সংগ্রামের অঙ্গীকারে পাশে টেনে নিলেন গোটা দেশকে৷

এদিন, গোয়ায় একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়ে কালো টাকার কারবারিদের হুঁশিয়ারি দিয়ে প্রধানমন্ত্রী সাফ জানিয়ে দেন, জনপ্রিয়তার রাজনীতি তাঁর না-পসন্দ৷ তিনি বলেন, “গদি আঁকড়ে বসে থাকা নয়, দেশের প্রকৃত উন্নয়নই আমার পাখির চোখ৷ চেয়ারে বসে থাকতে আমি জন্মাইনি৷ দেশের স্বার্থে আমি পরিবার, বাড়ি, আমার যা কিছু ছিল ছেড়ে এসেছি৷” এ কথা বলতে বলতে মোদির গলা ধরে আসে৷ কয়েক সেকেন্ড তাঁর ভাষণ থেমে যায়৷ একটু সামলে নিয়ে ফের দুর্নীতিগ্রস্তদের বিরুদ্ধে খড়গহস্ত হন তিনি৷ গত ৮ নভেম্বর ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট বাতিল করায় অনেকের যে রাতের ঘুম উড়ে গিয়েছে সে কথাও এদিন উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী৷ পাশাপাশি সৎ মানুষরা মিষ্টি খেয়ে ঘুমোচ্ছে বলেও তাঁর সরস মন্তব্য৷ ১৭ মাসে নয়া সরকার যে কাজ করেছে তা গত ৭০ বছরে হয়নি বলে দাবি মোদির৷

প্রধানমন্ত্রী এদিন জানিয়েছেন, কালো টাকার পর কেন্দ্রের নজরে এবার বেনামি সম্পত্তি৷ পাশাপাশি, তিনি এও জানান, নোট বাতিলের পরিকল্পনা অত্যন্ত গোপনে গত ১০ মাস ধরে চলেছে৷ রাতারাটি বড় নোট অচল হয়ে যাওয়ায় আপাত একটা সমস্যা তৈরি হয়েছে, সে কথা স্বীকার করে নিয়ে এদিন দেশবাসীর কাছ থেকে ৫০ দিন সময় চেয়ে নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী৷ বলেছেন, “৩০ ডিসেম্বরের পর আপনারা যেমন দেশ চান, তেমন দেশ উপহার দেব৷ না দিতে পারলে আমি চৌরাস্তায় গিয়ে দাঁড়াব৷ যা শাস্তি দেবেন মাথা পেতে নেব৷”

ভিডিও:

অনেক সাংসদই যে সোনা কেনাবেচায় প্যান কার্ডের ব্যবহারের বিরুদ্ধে মত দিয়েছিলেন, এদিন সে কথা প্রকাশ্যেই বলেন মোদি৷ গরিব মানুষ, মনরেগা মজদুর, তৃণমূল স্তরের মানুষকে কেন্দ্রীয় ভরতুকির টাকা সরাসরি ব্যাঙ্কে পাঠানোয় দালাল-রাজ বন্ধ হয়েছে বলে দাবি করেছেন প্রধানমন্ত্রী৷ তাঁর বক্তব্য, “এখন সবাই বুঝতে পারছে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থাকার সুবিধা৷ প্রয়োজনে শূন্য রাখুন অ্যাকাউন্ট, কিন্তু একবার ব্যাঙ্কে পা দিন৷ সেটাই আমার লক্ষ্য৷” দেশের টাকা কেউ লুঠ করে বিদেশে লুকিয়ে রাখলে সেই টাকা ফিরিয়ে আনা কেন্দ্রের দায়িত্বও বলেও এদিন নিজের ভাষণে জানিয়েছেন মোদি৷ তাঁর কথায়, “সৎ মানুষের সদিচ্ছার অভাব নেই৷ তাঁদের উপর আমার পূর্ণ আস্থা আছে৷” বিরোধীদের নিশানা করে তাঁর বক্তব্য, “টুজি স্ক্যাম, কয়লা কেলেঙ্কারিতে যাঁরা জড়িয়ে ছিল, আজ ৪ হাজার টাকা তুলতে তাঁদেরও লাইনে দাঁড়াতে হচ্ছে৷” দেশের মানুষকে পাশে থাকতে অনুরোধ জানিয়ে মোদির আহ্বান, ‘কালো টাকার বিরুদ্ধে এই বৈপ্লবিক সংগ্রামে সৎ মানুষরা আমার পাশে দাঁড়ান৷’

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement