BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘মাকে প্রণাম না করে কি আফজল গুরুকে করবেন’, প্রশ্ন উপরাষ্ট্রপতির

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: December 8, 2017 3:39 am|    Updated: September 20, 2019 4:40 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কে সাচ্চা দেশভক্ত? কেই বা দেশদ্রোহী? বিজেপির জমানায় এই নিয়ে বারবার প্রশ্ন উঠেছে, জমেছে বিতর্ক! কিন্তু এবার সেই সব বিতর্কে ইতি টানতে চাইলেন উপরাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নায়ডু। একটি বই প্রকাশের অনুষ্ঠানে গিয়ে তাঁর মন্তব্য, ‘মা ছাড়া আর কাকে আপনি সেল্যুট করবেন? আফজল গুরুকে?’

[লালফৌজকে ধরাশায়ী করতে ডোকলামে ঐতিহাসিক পদক্ষেপ ভারতীয় সেনার]

তাঁর প্রশ্ন, ‘বন্দে মাতরম’ বলতে কারও আপত্তি থাকার কারণ কী? কেন মাতৃভূমিকে প্রণাম জানানোর বিরোধিতা করবেন কেউ? মা’কে প্রণাম করবেন না তো কি আফজল গুরুকে করবেন, খানিকটা ক্ষোভই যেন শোনা গেল নায়ডুর গলায়। প্রয়াত ভিএইচপি নেতা অশোক সিংঘলের উপর লেখা একটি বই প্রকাশের অনুষ্ঠানে গিয়ে উপরাষ্ট্রপতি বলেন, ” ভারতমাতা কি জয় শুধুমাত্র একটি ছবিকে উদ্দেশ্য করে বলা হয় না। দেশের ১২৫ কোটি মানুষ তাঁদের জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে এই কথা উচ্চারণ করেন। তাঁরা প্রত্যেকেই ভারতীয়।’

শুধু জাতীয়তাবাদী নয়, হিন্দুত্ব নিয়েও মুখ খুলেছেন নায়ডু। দাবি করেছেন, হিন্দুত্ব কোনও সংকীর্ণ ধর্ম নয়। এই প্রসঙ্গে সুপ্রিম কোর্টের ১৯৯৫-এর একটি রায়কে উদ্ধৃত করে উপরাষ্ট্রপতি বলেন, ‘আদালত বলেছিল, হিন্দুত্ব জীবনধারণের একটি সংজ্ঞা, শুধুমাত্র ধর্ম নয়।’ ভারতের সমৃদ্ধ সংস্কৃতি ও কৃষ্টি যে হিন্দুত্বেরই ফসল, সে কথাও মনে করাতে ভোলেননি মাননীয় উপরাষ্ট্রপতি। তাঁর কথায়, প্রত্যেকে আলাদা আলাদা দেবতার পুজো করতেই পারেন, কিন্তু প্রত্যেক হিন্দুই একটি নির্দিষ্ট জীবনযাত্রায় বিশ্বাসী।

[ইতিহাস গড়ে ভারতীয় নৌসেনায় প্রথম মহিলা পাইলট শুভাঙ্গী]

হিন্দুত্বই যে ভারতকে অন্য দেশের থেকে আলাদা করে তুলেছে, ইতিহাস থেকে পরিসংখ্যান তুলে সে কথারও উল্লেখ করেন বেঙ্কাইয়া নায়ডু। বলেন, ”কত নাম না জানা রাজাও ভারতকে আক্রমণ করেছে। কিন্তু ইতিহাস সাক্ষী, ভারত কাউকে আক্রমণ করেনি। এই শিক্ষা আমাদের দিয়েছে অহিংসে বিশ্বাসী হিন্দু ধর্ম। ভিএইচপি নেতা অশোক সিংঘল তাঁর জীবনের ৭৫টা বছর ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য পরিকাঠামো গড়ে তুলতে অতিবাহিত করেছেন। তিনি একজন যোগ্য হিন্দু, শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করে বলেন নাইডু। আরও বলেন, বিজ্ঞান ও ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ডিগ্রি থাকা সত্ত্বেও গঙ্গার ধারে আশ্রমে জীবন কাটাতেন তিনি। এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অন্যান্য হিন্দু সংগঠনের শীর্ষ নেতারাও। তাঁদের মধ্যে আরএসএসের সাধারণ সম্পাদক সুরেশ ভাইয়াজি বলেন, অযোধ্যাতে রাম মন্দির নির্মাণের স্বপ্ন দেখতেন প্রয়াত সিংঘল।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement