BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘লকডাউন না মানলে করোনা মোকাবিলা অসম্ভব’, রাজ্যগুলিকে বার্তা কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীর

Published by: Paramita Paul |    Posted: April 10, 2020 6:03 pm|    Updated: April 10, 2020 6:03 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা রুখতে একমাত্র দাওয়াই সামাজিক দূরত্ব। আর সেই দাওয়াই কার্যকর করতেই দেশজুড়ে লকডাউনের ঘোষণা করেছে কেন্দ্র সরকার। কিন্তু কে শোনে কার কথা! লকডাউন উপেক্ষা করেই রাস্তায় বের হচ্ছেন কিছু মানুষ। এবার রাজ্যগুলিকে কড়া পদক্ষেপ করার বার্তা দিলেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. হর্ষ বর্ধন। রাজ্যগুলিতে যাতে সঠিকভাবে লকডাউন মেনে চলা হয়, তার জন্য পদক্ষেপ করতে রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রীদের আবেদন জানান তিনি। ডা. হর্ষ বর্ধনের কথায়, “আমি রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রীদের কাছে আবেদন করছি, আপনাদের রাজ্যে যাতে লকডাউন ১০০ শতাংশ মানা হয়, তা নিশ্চিত করুন। এটাতে যদি পিছিয়ে পড়ি, তাহলে করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধে জেতা অসম্ভব হয়ে পড়বে।”

[আরও পড়ুন:পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরানোর আবেদন, প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি অধীর চৌধুরির]

দেশজুড়ে ২১ দিনের লকডাউন চলছে। জরুরি কাজ ছাড়া ঘরের বাইরে বের হওয়া নিষেধ। তারপরেও বিধিনিষেধ উপেক্ষা করে রাস্তায় বের হচ্ছেন মানুষ। কেউ স্রেফ লকডাউন কেমন হয় তা দেখতে, কেউ আবার ঘরে থাকতে পারছেন না বলে বেরিয়ে পড়ছেন। কিছু মানুষ অবশ্য পেটের দায়ে খাবারের খোঁজে রাস্তায় নামছেন। যদিও সরকারের তরফে অন্ন সংস্থান নিশ্চিত করা হয়েছে। আর এই ছোঁয়াচের জেরেই হুড়মুড়িয়ে বেড়ে চলেছে সংক্রমিতের সংখ্যা। দেশে শুক্রবার বিকেল পর্যন্ত করোনায় মৃত্যু হয়েছে ১৯১ জনের। আক্রান্তের সংখ্যা ছয় হাজার ছুঁইছুঁই। লকডাউন মানাতে পুলিশের তরফে কড়া পদক্ষেপ করা হচ্ছে। তারপরেও হুঁশ ফিরছে না দেশবাসীর একাংশের। ১৪ এপ্রিল লকডাউনের শেষদিন। কিন্তু তার মেয়াদ আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। ইতিমধ্যে ওড়িশা ও পাঞ্জাব এই দুই রাজ্যে লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে।

[আরও পড়ুন: ‘গেটওয়ে’ নেপাল সীমান্ত, ভারতে করোনা আক্রান্তদের ঢোকানোর ষড়যন্ত্র পাকিস্তানের]

এদিন স্বাস্থ্যমন্ত্রী কড়াভাবে লকডাউন পালনের আরজি জানিয়েছেন। অন্যথায় সংক্রমণের গ্রাফ উর্দ্ধমুখী হতে পারে বলে আশংকা। ওয়াকিবহাল মহল বলছে, পূর্ব নির্ধারিত লকডাউনের মেয়াদ শেষ হতে চারদিন বাকি। তার আগে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর এহেন বার্তা বেশ তাৎপর্যপূর্ণ।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement