BREAKING NEWS

২  ভাদ্র  ১৪২৯  বুধবার ১৭ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

অভিযোগ জানাতে এসে থানার ভিতরেই শ্লীলতাহানির শিকার দুই বোন

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 4, 2017 10:50 am|    Updated: June 4, 2017 10:50 am

In a shocking incident in UP, Complainant sisters got molested by cops

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিপদে পড়লে মানুষ সবার আগে পুলিশের কাছেই ছুটে যায়। কিন্তু মানুষের সেই অসহায়তার সুযোগ নিয়ে পুলিশকর্মীরাই যদি অপরাধীর ভূমিকায় অবতীর্ণ হন, তাহলে বোধহয় আর কিছুই করার থাকে না। এমনই একটি ঘটনা ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের মৈনপুরীতে। থানার ভিতরেই দুই বোনের শ্লীলতাহানি করেছেন পুলিশকর্মীরা। ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

[মানব মস্তিষ্ক নিয়ে জন্মাল গরু, দেবতা ভেবে পুজো দিলেন গ্রামবাসীরা]

জানা যাচ্ছে, উত্তরপ্রদেশের মৈনপুরীর কারহাল গেট পুলিশ থানায় শ্লীলতাহানিরই অভিযোগ দায়ের করতে গিয়েছিলেন দুই বোন। কিন্ত সেই অভিযোগ গ্রহণ করা তো হলই না, উল্টে ওই দুই অভিযোগকারিনীর সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করতে শুরু করেন কর্তব্যরত পুলিশ আধিকারিকরা। শুধু তাই নয়, ভিডিও-তে দেখা গিয়েছে, অভিযুক্ত পুলিশকর্মী ঈশ্বরী প্রসাদ একজন অভিযোগকারিনীর গায়ে অত্যন্ত আপত্তিজনকভাবে হাত দেওয়ার চেষ্টা করছেন।

[এমআরআই মেশিনে আটকে গেল মন্ত্রীমশাইয়ের অনুগত নিরাপত্তারক্ষীর বন্দুক]

ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হতেই নড়েচড়ে বসে পুলিশ। অভিযুক্ত পুলিশকর্মীকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। মৈনপুরীর সার্কেল অফিসারকে ঘটনার তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন পুলিশ সুপার রাজেশ এস। তিনি সাফ জানিয়েছে দিয়েছেন, কোনও অবস্থাতেই অভিযোগকারীদের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার বরদাস্ত করা হবে না।

[যোগীর রাজ্যে গরুকে বাঁচাতে বৃদ্ধাকে পিষে মারল পুলিশের জিপ]

দিন কয়েক আগেই পুলিশের কাছে অভিযোগ জানাতে গিয়ে একইরকমের তিক্ত অভিজ্ঞতা হয়েছিল মুম্বইয়ের থানের এক তরুণীরও। গত ১২ মে স্নানের সময় হঠাৎ দেখতে পান, পাশের বাড়ি থেকে একজন তাঁর স্মানের দৃশ্য ভিডিও করছে। সঙ্গে সঙ্গে বাড়ি থেকে ওই ব্যক্তির কাছ থেকে মোবাইলটি কেড়ে নেন ২৮ বছরের ওই যুবতী। গোটা ঘটনা জানান স্বামীকে। এরপর মোবাইল নিয়েই থানায় অভিযোগ জানাতে যান ওই দম্পতি। কিন্তু সেখানে একেবারে অপ্রত্যাশিত অভিজ্ঞতা হয় তাদের। থানার পুলিশ আধিকারিক ভিডিওটি দেখে বাকিদেরও দেখাতে থাকেন। সকলে হাসাহাসি করতে শুরু করেন। গোটা ঘটনায় চুড়ান্ত অপমানিত ও লজ্জিত হয়ে পড়েন ওই যুবতী। শেষপর্যন্ত থানের মেয়রের দ্বারস্থ হন ওই দম্পতি। তাঁদের অভিজ্ঞতার কখা শুনে পুলিশের তীব্র নিন্দা করেন মেয়র মীনাক্ষী শিণ্ডে। পাশাপাশি প্রতিটি থানায় মহিলাদের আলাদা সেল গঠনের নির্দেশ দেন তিনি।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে